০১ জুন ২০২০
নিউ ইয়র্কে সেনা মোতায়েন

জেলায় জেলায় হোম কোয়ারেন্টাইন

করোনা আক্রান্ত তিনজনের দু’জন সুস্থ; দুই আক্রান্তের ৪০ স্বজন পর্যবেক্ষণে; আরো ১০ জনকে পরীক্ষা, সবাই নেগেটিভ; আসছে আরো পাঁচ থার্মাল স্ক্যানার; করোনায় মৃত ৪২৯৯
-

করোনা আক্রান্ত তিনজনের মধ্যে দুইজন বর্তমানে সুস্থ। তাদের মধ্যে কোনো ধরনের উপসর্গ নেই। আরেকবার পরীক্ষায় ভাইরাস পাওয়া না গেলে তাদের ছাড়পত্র দেয়া হবে। এই তিনজনের সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিরা কোয়ারেন্টাইনে ভালো আছেন। এ দিকে করোনা সন্দেহে আরো ১০ জনের নমুনা (সোয়াব) পরীক্ষা করা হয়েছে। তাদের কারো দেহে করোনাভাইরাস পাওয়া যায়নি (সবার নেগেটিভ)। নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে গতকাল বুধবার রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা এ তথ্য জানিয়েছেন।
অন্য দিকে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে বিদেশ ফেরত যাত্রী ও তাদের পরিবারের জন্য হোম কোয়ারেন্টাইন করার খবর পাওয়া যাচ্ছে। অনেক স্থানে প্রশাসনের সহযোগিতায় স্থানীয় উদ্যোগেই এসব কোয়ারেন্টাইন করা হচ্ছে।
অধ্যাপক মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা তার নিয়মিত ব্রিফিংয়ে জানান, বিদেশ থেকে আগত যাত্রীদের দেহের তাপমাত্রা মাপার জন্য আরো পাঁচটি থার্মাল স্ক্যানারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সামিট গ্রুপ এ পাঁচটি স্ক্যানারের ব্যবস্থা করছে। এর দু’টি ইতোমধ্যে আমরা পেয়ে গেছি। অবশিষ্ট তিনটি আসবে। এর আগে নতুন পাঁচটি থার্মাল স্ক্যানার দেশের ছয়টি স্থানে বসানো হয়েছে। এর দু’টি শাহজালাল রহ: আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বসানো হয়েছে। চট্টগ্রামের শাহ আমানত বিমানবন্দরে একটি, চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরে একটি, সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরে একটি এবং যশোরের বেনাপোল স্থলবন্দরে একটি মেশিন কাজ করছে। গতকাল সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠানটি মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. এ এস এম আলমগীর।
অধ্যাপক সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, আমরা শুরু থেকেই বলছি করোনায় আক্রান্ত তিনজনের মৃদু সংক্রমণ হয়েছে। তাদের বাড়িতে রেখেই চিকিৎসা দেয়া সম্ভব ছিল। তারা আমাদের প্রথম রোগী বলে তাদের হাসপাতালে এনে চিকিৎসা দিয়েছি। তিনি জানান, আক্রান্তদের তিনজনের একজনের শরীরে এখনো ভাইরাসের অস্তিত্ব রয়েছে। তবে তিনিও ভালো আছেন। তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা হটলাইনে তিন হাজার ২২৫টি কল এসেছে। এর মধ্যে তিন হাজার ১৪৫টি কল ছিল সরাসরি কোভিড-১৯ বিষয়ে। এখন পর্যন্ত সরাসরি এসে সেবা গ্রহণ করেছেন ২৪ জন। বিভিন্ন হাসপাতালে বর্তমানে আইসোলেশনে আটজন আর তিনজন কোয়ারেন্টাইনে আছেন।
বিদেশফেরতদের স্বেচ্ছা কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশনা দিয়ে অধ্যাপক ড. মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, আপনারা আতঙ্কিত হবেন না। সতর্ক ও সচেতন থেকে করোনা মোকাবেলা করতে হবে। বিদেশীদের ব্যাপারে তিনি বলেন, বিদেশীরা হোটেলের একটা রুমে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন। যেসব বিদেশী এখানে কাজ করেন তাদের কর্তৃপক্ষের প্রতি তিনি আহ্বান জানান, কোয়ারেন্টাইনে থাকা অবস্থায় যেন ‘কর্মরত’ হিসেবে ধরে নেয়া হয়।
তিনি জানান, হাসপাতালে এখনো আটজন আইসোলেশনে আছেন। চারজন কোয়ারেন্টাইনে আছেন। তারা ভালো আছেন। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়েছে, আইইডিসিআরে ১৩টি হটলাইন নম্বর রয়েছে। এর মধ্যে ০১৯৪৪৩৩৩২২২ নম্বরটি হান্টিং নম্বর। এ ফোনে কল করলে অন্য যে নম্বর খালি আছে, সেখানে চলে যাবে অথবা পরে কল ব্যাক করা হবে। হটলাইনে ২৪ ঘণ্টাই ফোন করা যাবে। কল ধরতে না পারলে পরে ব্যাক করা হবে।
নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতা জানান, করোনা আক্রান্তের খবরে নারায়ণগঞ্জে আতঙ্ক বিরাজ করছে। বিশেষ করে যে ফ্ল্যাটে ইতালি প্রবাসী বসবাস করতেন তার আশপাশে জনসমাগম কমে গেছে। ওই ভবনের নিচের মার্কেটটি বন্ধ রয়েছে। ভবনের অন্য ফ্ল্যাটের বাসিন্দারা কার্যত বন্দী রয়েছেন। এ দিকে করোনা আক্রান্ত দুই ইতালি প্রবাসী দেশে ফেরার পর তার সাথে দেখা করেছেন এমন ৪০ জনের তালিকা করে তাদের পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার মো: আসাদুজ্জামান এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি জানান, বিদেশফেরত আক্রান্তদের রাজধানী ঢাকায় চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তাদের পরিবারের অন্য সদস্যদের সদর থানা সংলগ্ন জয়নাল প্লাজায় বিশেষ নজরদারিতে রাখা হয়েছে। এ ভবন এলাকায় কাউকে ভিড় না করার অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি। সিভিল সার্জন ডা: ইমতিয়াজ সরকারিভাবে যেসব নির্দেশনা দেয়া হয়েছে তা মেনে চলার পরামর্শ দিয়েছেন।
এ দিকে নারায়ণগঞ্জে কোয়ারেন্টাইনের জন্য ৫০ শয্যা প্রস্তুত রাখা হয়েছে। শহরের শায়েস্তা খান সড়কে নির্মিত জুডিশিয়াল ভবনে ওই ৫০টি শয্যার ইউনিট খোলা হয়েছে। এর আগে শহরের ১০০ শয্যা ও ৩০০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে পাঁচটি করে ১০ শয্যার ব্যবস্থা করা হয়েছিল।
দিনাজপুর সংবাদদাতা জানান, দিনাজপুরে ১৩ দিন আগে চীনফেরত এক শিক্ষার্থী জ্বর-সর্দি ও কাশিতে আক্রান্ত হওয়ায় নাক ও গলার লালার নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। একই সাথে তাকে হোম কোয়ারেন্টাইনে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। গত ২৭ ফেব্রুয়ারি চীনের জেজিয়াং প্রদেশ থেকে মালয়েশিয়া হয়ে ঢাকার হজরত শাহজালাল রহ: আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দিয়ে দিনাজপুরে আসেন ওই শিক্ষার্থী। ওই শিক্ষার্থীর পরিবারের সদস্যরা জানান, ১৩ দিন আগে সুস্থ অবস্থায় দিনাজপুর আসেন ওই শিক্ষার্থী। তিন দিন আগে জ্বর-সর্দি ও কাশিতে আক্রান্ত হন তিনি। তার এক দিন পরই ওই শিক্ষার্থীর বাবা জ্বর-সর্দিতে আক্রান্ত হন। দিনাজপুরের সিভিল সার্জন ডা: মো: আবদুছ কুদ্দুছ বলেন, ওই শিক্ষার্থীর শরীরের তাপমাত্রা বেশি হলেও করোনার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে তার বাবার শরীরেও একই রকম উপসর্গ লক্ষ করা গেছে। গত মঙ্গলবার রাতে সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে ঢাকার রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানকে (আইইডিসিআর) বিষয়টি জানানো হয়।
মানিকগঞ্জ সংবাদদাতা জানান, গত দুই দিনে মানিকগঞ্জের বিভিন্ন উপজেলায় বিদেশ ফেরত ৭৯ জন ব্যক্তিকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তাদের শরীরে করোনাভাইরাসের উপসর্গ না থাকলেও বিদেশ ফেরত হওয়ার কারণে তাদের নিজ নিজ বাড়িতে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। সিভিল সার্জন আনোয়ারুল আমিন আখন্দ জানান, বুধবার ২০ জন ও মঙ্গলবার ৫৯ জনকে মোট ৭৯ জনকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। তিনি বলেন, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসায় মানিকগঞ্জ জেলা হাসপাতালে ১২টি বেডের আইসোলেশন ইউনিট এবং সদর উপজেলার কেওয়ারজানি এলাকায় আঞ্চলিক জনসংখ্যা প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে ১০০ শয্যার কোয়ারেন্টাইন ইউনিট প্রস্তুত রাখা হয়েছে। সিভিল সার্জন বলেন, জেলায় প্রায় এক হাজার ২০০ জন বিদেশফেরত ব্যক্তি রয়েছেন। তারা সম্প্রতি ইতালি, চীন, দক্ষিণ আফ্রিকা, সৌদি আরব ও সিঙ্গাপুর থেকে দেশে এসেছেন।
ঝালকাঠি ও রাজাপুর সংবাদদাতা জানান, ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলায় বিদেশফেরত চারজনকে নিজ বাড়িতে গতকাল সকাল থেকে কোয়ারেন্টাইনে রেখেছে স্বাস্থ্য বিভাগ। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আবুল খায়ের মাহমুদ রাসেল জানান, সৌদি থেকে দুইজন, চীন থেকে একজন এবং ইতালি থেকে একজন ব্যক্তি রাজাপুরের গ্রামের বাড়িতে আসেন। স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীরা তাদের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেন। তাদের শরীরে কোনো ভাইরাস পাওয়া যায়নি। তারা চারজনই সুস্থ আছেন। ঝালকাঠির সিভিল সার্জন ডা: শ্যামল কৃষ্ণ হালদার বলেন, বিদেশ থেকে আসায় নিরাপত্তার স্বার্থেই তাদের নিজ ঘরে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।
বগুড়া অফিস জানায়, বগুড়ায় বিদেশফেরত পাঁচজনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে পর্যবেক্ষণ করছেন চিকিৎসকরা। বগুড়ার এই নাগরিকরা সাম্প্রতিক ইতালি ও চীন থেকে দেশে ফিরেছেন। তবে তারা সুস্থ আছেন। বগুড়া ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা: মোস্তাফিজুর রহমান তিতাস ও সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: সামির হোসেন মিশু জানান, সতর্কতামূলক বিদেশফেরত পাঁচজনকে ১৪ দিন পর্যবেক্ষণে থাকবেন। এ দিকে করোনাভাইরাস চিকিৎসার জন্য বগুড়ার কয়েকটি হাসপাতালে খোলা হয়েছে প্রায় ২০০ শয্যার করোনাভাইরাস ইউনিট। হাসপাতালগুলো হলোÑ বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, মোহাম্মদ আলী হাসপাতাল, টিএমএসএস মেডিক্যাল কলেজ ও শাজাহানপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স।
ফরিদপুর সংবাদদাতা জানান, ফরিদপুরের তিন ব্যক্তিকে নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তারা তিনজনই সম্প্রতি ইতালি থেকে ফিরেছেন। ফরিদপুর জেলা সিভিল সার্জন ডা: ছিদ্দিকুর রহমান জানান, ওই তিন ব্যক্তির পরিবারের উদ্যোগেই স্বাস্থ্য বিভাগের সাথে যোগাযোগ করা হয়েছে। তবে তাদের শরীরে করোনাভাইরাসের কোনো লক্ষণ পাওয়া যায়নি। এরপরও সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে সতর্কতামূলক পর্যবেক্ষণের জন্য নিজ বাড়িতে তাদের আলাদা থাকতে বলা হয়েছে। তিনি জানান, ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে একটি আইসোলেশন সেন্টার খোলা হয়েছে। আর জেনারেল হাসপাতালে করোনা আক্রান্তদের জন্য পাঁচটি শয্যা তৈরি রাখা হয়েছে।
বালিয়াকান্দি (রাজবাড়ী) সংবাদদাতা জানান, বালিয়াকান্দিতে ইতালিফেরত পিতা-পুত্রসহ পাঁচ সদস্য হোম কোয়ারেন্টাইনে সুস্থ আছেন। তবে নতুন করে চীন ও সৌদি আরব থেকে দেশে আসা দুইজনের ব্যাপারে যাচাই শেষে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। বালিয়াকান্দি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ কে এম হেদায়েতুল ইসলাম বলেন, ইতালিফেরত পিতা-পুত্রসহ তাদের পরিবারের সদস্যদের সোমবার রাত থেকে এক সপ্তাহ হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।
ফেনী সংবাদদাতা জানান, ফেনীতে প্রবাসফেরত ৯ ব্যক্তিকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তারা মঙ্গলবার ঢাকায় এসে গতকাল বুধবার গ্রামের বাড়িতে পৌঁছেন। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, মঙ্গলবার চীন থেকে একজন, ইতালি থেকে আটজন ও কুয়েত থেকে একজন ব্যক্তি দেশে ফিরেছেন। তাদের মধ্যে দুইজনের বাড়ি সদর উপজেলায়, দুইজনের বাড়ি দাগনভূঞা, দুইজনের বাড়ি ছাগলনাইয়া ও অপর চারজনের বাড়ি ফুলগাজী উপজেলায়। তাদের ব্যাপারে ঢাকায় সংশ্লিষ্ট দফতর হতে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগকে জানানো হয়। দেশে ফেরার পর তাদের বিমানবন্দরে কোনো ধরনের পরীক্ষা-নিরীক্ষা না করেই ছেড়ে দেয়া হয়েছিল। এ দিকে ফেনী জেনারেল হাসপাতালের নতুন ভবনের তৃতীয়তলায় ১০৫ শয্যার আইসোলেশন ইউনিট চালু করা হয়েছে।
দামুড়হুদা (চুয়াডাঙ্গা) সংবাদদাতা জানান, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে এক নারী চিকিৎসাধীন রয়েছে। কাশি-জ্বর এবং শ্বাসকষ্ট অনুভব করলে তিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন। করোনা আইসোলেশন ইউনিটের একটি কক্ষে রেখে তার চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। ওমরা পালন শেষে গত ১৭ ফেব্রুয়ারি তিনি দেশে ফেরেন।
চৌগাছা (যশোর) সংবাদদাতা জানান, যশোরের চৌগাছায় ইতালিফেরত এক দম্পতিকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। গত ৭ ফেব্রুয়ারি তারা দেশে ফিরেন। তাদের সাথে পরিবারের অন্য চার সদস্যকেও হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।
রাবি ক্যাম্পাসে সব কর্মসূচি স্থগিত
ইউএনবি জানায়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) কর্তৃপক্ষ সব ধরনের কর্মসূচি স্থগিত করেছে। গতকাল বুধবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের মুজিববর্ষ উদযাপন কমিটির বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। তবে ১৭ মার্চ ছোট আকারে মুজিববর্ষের কর্মসূচি পালন করা হবে।
কিশোরগঞ্জে ৩৯ জন কোয়ারেন্টাইনে : করোনাভাইরাস আক্রান্ত সন্দেহে কিশোরগঞ্জের ভৈরবে ৩৭ জন, নিকলীতে একজন এবং কিশোরগঞ্জ সদরে একজনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কিশোরগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা: মো: মুজিবুর রহমান। তারা সবাই বিদেশফেরত। যার মধ্যে ইতালি ফেরতের সংখ্যাই বেশি।
মেহেরপুরের যুবককে ঢাকায় প্রেরণ : করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে মেহেরপুরে বিদেশফেরত এক যুবককে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। পাঁচ দিন আগে তিনি সৌদি আরব থেকে দেশে ফেরেন। মঙ্গলবার বিকেলে তিনি মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হন।
সারা বিশ্বে করোনায় মৃত ৪২৯৯, আক্রান্ত এক লাখ ১৯ হাজার
বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। এখন পর্যন্ত এক লাখ ১৯ হাজার ২১৭ জন এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। মারা গেছে চার হাজার ২৯৯ জন। অন্য দিকে করোনায় আক্রান্ত ৬৬ হাজার ৫৬৩ জন চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে। খবর বিবিসি, রয়টার্স ও আলজাজিরার।
বিশ্বের ১১৯টি দেশ ও অঞ্চলে এই ভাইরাসের প্রকোপ ছড়িয়েছে। শুধু চীনের মূল ভূখণ্ডেই করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৮০ হাজার ৭৭৮ এবং মৃত্যু হয়েছে তিন হাজার ১৫৪ জনের। চীনের পর করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি ইতালিতে। দেশটিতে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৬৩১ জনের।
যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক অঙ্গরাজ্যে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়া একটি শহরে সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। ইতালিতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ১৪৯ জনে। এমন পরিস্থিতিতে জরুরি অবস্থা জারি করেছে দেশটির সরকার। অন্য দিকে ইরানে এখন পর্যন্ত আট হাজার ৪২ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে এবং মারা গেছে ২৯১ জন।
ভাইরাসটির উৎপত্তিস্থল চীনে নতুন সংক্রমণের সংখ্যা কমে এলেও নতুন করে ইতালিতে ব্যাপক উদ্বেগ সৃষ্টি করছে এটি। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, মিউজিয়াম, জিমনেশিয়াম, নাইট ক্লাবসহ বিভিন্ন ভেনু বন্ধের ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী গুইসেপ কন্টে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে প্রথমে লোম্বার্ডিসহ ১৪টি প্রদেশের অন্তত এক কোটি ৬০ লাখ মানুষকে আগামী ৩ এপ্রিল পর্যন্ত বাধ্যতামূলকভাবে কোয়ারেন্টাইনে রাখার ঘোষণা দেয় কর্তৃপক্ষ। পরে পুরো দেশকেই কোয়ারেন্টাইনের আওতায় নিয়ে আসা হয়। এর ফলে কেউ নিজ এলাকার বাইরে যেতে পারবে না।
ইউরোপীয় দেশগুলোর মধ্যে ইতালির পর সবচেয়ে বেশি প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে ফ্রান্সে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত অন্তত ৩৩ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। যুক্তরাষ্ট্রে এ পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ৩০। আর মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৯৭৮। এর মধ্যে ১৫ জন ইতোমধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন।
যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক অঙ্গরাজ্যে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়া একটি শহরে সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। গভর্নর অ্যান্ড্রিই কোয়োমো নিউ ইয়র্ক সিটির উত্তরের নিউ রচেল শহরকে ‘আক্রান্ত এলাকা’ ঘোষণা করার পর এই সেনা মোতায়েন করা হয়। সেনারা শহরের স্কুল পরিষ্কার ও যেকোনো আক্রান্ত ব্যক্তিকে খাবার সরবরাহ করবে। দেশটির মধ্যে সবচেয়ে বেশি আক্রান্তের সংখ্যা নিউ ইয়র্কে। এখন পর্যন্ত সেখানে ১৭৩ জন আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।
গভর্নর কুয়োমো বলেছেন, নিউ রচেল শহর ভাইরাসটির বিস্তারের মূলকেন্দ্রে পরিণত হয়েছে। শহরটিতে এখনো যাতায়াত নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়নি। তবে বড় ধরনের জমায়েত হওয়া স্থানগুলো বন্ধ করা হবে। স্কুল, কমিউনিটি কেন্দ্র ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান দুই সপ্তাহের জন্য বন্ধ থাকবে।
মঙ্গলবার পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে ৮০৪ জন ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে জন্স হপকিন্স ইউনিভার্সিটি। দেশটিতে আক্রান্তদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ২৮ জনের। এর মধ্যে ওয়াশিংটন অঙ্গরাজ্যে ২৩, ক্যালিফোর্নিয়ায় ২, ফ্লোরিডায় ২ ও নিউ জার্সিতে ১ জন।
সেনা মোতায়েনের বিষয়ে নিউ ইয়র্কের গভর্নর বলেন, এটি নাটকীয় পদক্ষেপ। কিন্তু দেশের সবচেয়ে বিস্তারের কেন্দ্রে পরিণত হয়েছে শহরটি। সত্যিকার অর্থেই তা জীবন-মরণ সঙ্কট। আপনারা শুধু যে মানুষকে আক্রান্ত করছেন তা না, সব স্থাপনাকেও আক্রান্ত করছেন। তিনি জানান, স্থানীয় হাসপাতালগুলোতে করোনাভাইরাস পরীক্ষা কেন্দ্র স্থাপন করা হবে।
ব্রিটেন স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী আক্রান্ত : ব্রিটেনের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ও কনজারভেটিভ পার্টির এমপি নাদিন ডোরিয়েস করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। মঙ্গলবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সিএনএনকে এ তথ্য জানিয়েছে। প্রতিমন্ত্রী হিসেবে ডোরিয়েস রোগীদের সুরক্ষা ও আত্মহত্যা প্রতিরোধবিষয়ক দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ার পর থেকে তিনি ‘সেলফ-আইসোলেশন’ এ আছেন বলে ব্রিটিশ স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র সিএনএনকে জানিয়েছেন।
আক্রান্ত হলেন পোল্যান্ডের সেনাপ্রধান : পোল্যান্ডের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী গত মঙ্গলবার জানিয়েছেন, পোল্যান্ডের সেনাপ্রধান করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। সম্প্রতি তিনি জার্মান সফর করেছেন। পোল্যান্ডের প্রতিরক্ষামন্ত্রী এক টুইট বার্তায় বলেছিলেন, জেনারেল জারোসলা মিকা জার্মানিতে একটি সামরিক সভা শেষে দেশে ফেরার পর মেডিক্যাল পরীক্ষা করা হলে তার শরীরে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস ধরা পড়ে।
এ দিকে ইউরোপীয় পার্লামেন্টের প্রেসিডেন্ট ডেভিড সাসৌলি মঙ্গলবার বলেছেন, তিনি ইতালি ভ্রমণ করার পর ব্রাসেলসে নিজ বাসায় সতর্কতামূলক আবদ্ধ হয়ে আছেন এবং সবার থেকে নিজেকে পৃথক করে রেখেছেন। দেশটির একজন সরকারি কর্মকর্তা বলেছেন, গত রোববার করোনাভাইরাসের কারণে ইউরোপীয় পার্লামেন্টের মাসিক সভা সংক্ষিপ্ত করা হয়। ফ্রান্সের স্টার্সবার্গে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় সেটি বাতিল করা হয়।
বাতিল করোনাবিষয়ক সম্মেলন : যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে করোনাভাইরাস বিষয়ক একটি সম্মেলন এ ভাইরাসেরই কারণে বাতিল হয়ে গেছে। ‘করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে ব্যবসা’ শীর্ষক এ সম্মেলন আগামীকাল শুক্রবার হওয়ার কথা ছিল। সম্মেলনটির আয়োজক যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র সম্পর্কবিষয়ক পরিষদের পক্ষ থেকে আয়োজন বাতিলের সিদ্ধান্ত জানিয়ে বলা হয়, করোনাভাইরাসে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে অনিবার্য কারণে সম্মেলনটি হচ্ছে না। অন্য দিকে ওয়াশিংটন, নিউ ইয়র্কসহ কয়েকটি অঞ্চলে নির্ধারিত আরো একটি অনুষ্ঠান পেছানোর পর শেষ পর্যন্ত বাতিল করা হয়েছে। এটি ১১ মার্চ শুরু হয়ে ৩ এপ্রিল শেষ হওয়ার কথা ছিল।
তুরস্কে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত : তুরস্কে এই প্রথম বুধবার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সন্ধান পাওয়া গেছে। সম্প্রতি তিনি ইউরোপ সফর করেছিলেন এবং তার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী ফাহরেনতিন কোকা বলেন, ‘সন্দেহভাজন এ ব্যক্তির পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়। এতে তার শরীরে করোনাভাইরাস ধরা পড়ে।’ ভাইরাস ধরা পড়ার পর থেকে তিনি সতর্কতামূলক সব পরামর্শ মেনে বাড়িতে স্বেচ্ছা-আইসোলেশনে আছেন বলে জানিয়েছেন।
ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৬২ : ভারতে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৬২ জনে পৌঁছেছে। এর মধ্যে চারজন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে, মানুষ শুধু নিজেদের নিয়েই ভাবছে না, দেবতাদের নিয়েও দুশ্চিন্তা করছে তারা। বারানসিতে করোনাভাইরাস থেকে রক্ষা করতে সদ্যনির্মিত এক দেবতার মূর্তিতে মাস্ক পরিয়ে দেয়া হয়েছে। আশা করা হচ্ছে, এর মাধ্যমে ভক্তদের প্রতি সদয় হয়ে ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাবেন দেবতা। বারানসির প্রহেলাদেশ্বর মন্দিরে ঘটেছে এমন ঘটনা। সেখানে শিব লিঙ্গেও মাস্ক পরানো হয়েছে।


আরো সংবাদ

ভারতীয় সুতা আমদানি রুখতে বিটিএমএ’র অ্যান্টিডাম্পিং শুল্ক আরোপের দাবি আমেরিকার কৃষ্ণাঙ্গরা বহুকাল ধরে পুলিশি বর্বতার শিকার : ইলহান ওমর হিন্দুত্ববাদের জনক সাভারকর ছিলেন ব্রিটিশ এজেন্ট : বিচারপতি কাটজু ইসলামের দৃষ্টিতে সুবিচার বসনিয়ার ইসলামী শিক্ষার শ্রেষ্ঠ পীঠস্থান গুপ্তচর বৃত্তির অভিযোগে ভারত থেকে দুই পাকিস্তানি কূটনীতিক বহিষ্কার আবাসিকে ঢাকা ওয়াসার পানির মূল্য ২৫ শতাংশ বৃদ্ধি ভূরুঙ্গামারীতে ইয়াবাসহ আটক ৩ করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন ঢাবি অধ্যাপক ঢামেক করোনা ইউনিটে ২৪ ঘণ্টায় ২২ জনের মৃত্যু লালমোহনে সম্মুখ সারির যোদ্ধাদের মাঝে এমপি শাওনের পিপিই বিতরণ

সকল





justin tv maltepe evden eve nakliyat knight online indir hatay web tasarım ko cuce Friv buy Instagram likes www.catunited.com buy Instagram likes cheap Adiyaman tutunu