১২ এপ্রিল ২০২১
`

মিনুসহ বিএনপির চার শীর্ষ নেতার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার আবেদন

মিনুসহ বিএনপির চার শীর্ষ নেতার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার আবেদন -

বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও রাজশাহীর সাবেক মেয়র মিজানুর রহমান মিনুসহ চার নেতার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার আবেদন করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে রাজশাহী জেলা প্রসাশকের কাছে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার আবেদন করেছেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

এ মামলায় সাক্ষী হিসেবে আছেন নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, সহ-সভাপতি মো: আহসানুল হক পিন্টু, বীর মুক্তিযোদ্ধা নওশের আলী ও সাবেক জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো: আসাদুজ্জামান আসাদ।

মিনু ছাড়াও মামলার আবেদন করা হয়েছে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, রাজশাহী মহানগর বিএনপির সভাপতি মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল ও মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম মিলনের নামে।

উল্লেখ্য, গত ২ মার্চ বিএনপির রাজশাহী বিভাগীয় সমাবেশে মিজানুর রহমান মিনু বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে অবজ্ঞা ও তার মেয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘হত্যার’ ইঙ্গিতপূর্ণ বক্তব্য দিয়েছেন বলে মহানগর আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে অভিযোগ তোলা হয়। এর প্রতিবাদে পরদিনই বিক্ষোভ-সমাবেশ করে আওয়ামী লীগ।

ওই সমাবেশ থেকে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন মিনুকে ৭২ ঘণ্টার আলটিমেটাম দেন। লিটন ঘোষণা দেন, এই সময়ের মধ্যে মিনু ক্ষমা না চাইলে তার বিরুদ্ধে মামলা করা হবে।

আওয়ামী লীগের বেঁধে দেয়া ৭২ ঘণ্টার আলটিমেটাম শেষ হয় গত শনিবার সন্ধ্যায়। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ক্ষমা না চাইলেও পর দিন তিনি দুঃখ প্রকাশ করে বিবৃতি দেন।

বিবৃতিতে মিনু উল্লেখ করেন, ‘আমার বক্তব্যের জন্য যারা ব্যথিত হয়েছেন, মর্মাহত হয়েছেন, আমি তাদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করছি।’ মিনু আরো বলেন, ‘আমি এই মহানগরীতে জন্মগ্রহণ করে দীর্ঘ দিন রাজশাহীবাসীকে নিয়ে রাজনৈতিক নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছি। স্বৈরাচার এরশাদবিরোধী আন্দোলনসহ সকল আন্দোলনে পাশে পেয়েছি। সুতরাং কোনো ব্যক্তিবিশেষ বা গোষ্ঠী বিশেষকে উদ্দেশ্য করে আক্রোশমূলক বক্তব্য প্রদান করা আমার স্বভাববহির্ভূত। তাই সবাইকে আমার বক্তব্যে ষড়যন্ত্র না খোঁজার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি।’



আরো সংবাদ