৩০ অক্টোবর ২০২০

হালুয়াঘাট ইউপি নির্বাচনে আসছে একঝাঁক নতুন মুখ


ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট উপজেলার আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে দেখা যাবে বেশ কয়েকজন তরুণ ও নতুন মুখ। নির্বাচনের জন্য আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টির সব দলেই প্রস্তুত হচ্ছেন তরুণরা। বিভাজনের রাজনীতি নয়, এ পথে গুণগত পরিবর্তন আনাই হবে তাদের চ্যালেঞ্জ।

কথা বলে জানা যায়, বেশিরভাগ তরুণ রাজনীতিবিদ একটি জায়গায় একমত যে, বিভাজন দিয়ে দেশকে এগিয়ে নেয়া যাবে না। তাদের মতে, পুরনো ধ্যান-ধারণা নিয়ে বসে থাকলে চলবে না। এখন প্রয়োজন পরিবর্তন। তবে তা করতে গিয়ে তারা দলের নিয়ম-কানুন ভেঙে ফেলতে চান না। বরং নতুন ও পুরনোর যৌক্তিক সংমিশ্রণ ঘটাতে চান। তারা জানিয়েছেন নিজেদের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার কথা। তরুণ এসব রাজনীতিবিদ মনে করেন শিক্ষিত, মেধাবী ও যোগ্য তরুণদের অংশগ্রহণের মাধ্যমে দেশের রাজনৈতিক সংস্কৃতিতে পরিবর্তন আসতে পারে।

উপজেলার ১২টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়নপ্রত্যাশী প্রার্থীদের মাঝে রয়েছেন, ভূবনকুড়া ইউপি থেকে মোঃ আব্দুল জলিল ও মোঃ আব্দুল জব্বার, জুগলী থেকে আবুল কাশেম ফজলুল হক, কৈচাপুর থেকে মির্জা মোঃ হুমায়ুন কবির, হালুয়াঘাট সদর ইউপি থেকে মোঃ মতিউর রহমান, পল্লব ভাট, এমদাদুল হক, বিলডোরা থেকে মশিউর রহমান শাহীন, মোঃ উবায়দুল হক, শাকুয়াই থেকে শামছুদ্দোহা সুইটি ও আতিকুর রহমান, নড়াইল থেকে মোঃ আবুল কালাম আজাদ, ধারা থেকে মোঃ কামরুজ্জামান ও তালুকদার ফয়জুর রহমান খুশু, ধুরাইল থেকে মোঃ শফিকুল ইসলাম লিটন, আমতৈল থেকে আবুল কালাম আজাদ খোকা, স্বদেশী থেকে মুহাঃ আবু নাসের সরকার ও শাহজাহান স্বপন ও ইঞ্জিনিয়ার হুমায়ুন।

সেই সাথে ওই ইউনিয়নগুলোতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল- বিএনপি থেকে মনোনয়নপ্রত্যাশী নতুন প্রার্থীদের মাঝে ভূবনকুড়া ইউপি থেকে অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ, জুগলি থেকে মোহাম্মদ মুক্তাদির আহসান, কৈচাপুর থেকে ইফতেখার রসুল খোকন, হালুয়াঘাট সদর ইউনিয়ন থেকে মোঃ আব্দুল জলিল, গাজীরভিটা থেকে মোশাররফ হোসেন, বিল ডোরা থেকে সুজন খান, শাকুয়াই থেকে মোঃ সাইদুল ইসলাম, নড়াইল থেকে মানিক মিয়া, ধুরাইল থেকে অধ্যাপক মাসুম বিল্লাহ, আমতৈল থেকে অ্যাডভোকেট তোফায়েল আলম সুজন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবদুর রশিদ বলেন, আওয়ামী লীগ বাংলাদেশের একটি বড় রাজনৈতিক দল। আসন্ন ইউপি নির্বাচনে আমাদের দল থেকে নির্বাচিত বর্তমান চেয়ারম্যানদের পাশাপাশি প্রতিটি ইউনিয়নে একাধিক নতুন মনোনয়নপ্রত্যাশীরা মাঠে কাজ করছেন। দল যোগ্য ও ত্যাগী প্রার্থীদের মনোনয়ন বোর্ডের মাধ্যমে নির্বাচন করবে।

বিএনপি নির্বাচনে আসবে কিনা ও প্রার্থীদের বিষয়ে জানতে চাইলে, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি'র ময়মনসিংহ বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স বলেন, বিএনপি সব সময় তরুণদের প্রাধান্য দেয়। তরুণদের মধ্যে যারা জনপ্রিয়, যোগ্য ও ত্যাগী বিএনপি তাদের ব্যপারে সবসময় অগ্রাধিকার দিয়ে থাকে। কিন্তু বর্তমান প্রেক্ষাপটে সুষ্ঠু নির্বাচনের কোনো নিশ্চয়তা নেই। নেই লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড। তাই নির্বাচন সুষ্ঠু হবে কিনা সেটা এখন বড় প্রশ্ন। নির্বাচন কমিশন যদি শক্ত থাকে এবং সরকার যদি নির্বাচনে হস্তক্ষেপ না করে নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হয়, সেক্ষেত্রে বিএনপি ভালো ফলাফল করবে বলে আশা করছি।

জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোঃ জাহিদুল ইসলাম পাপ্পু বলেন, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে উপজেলার ১২টি ইউনিয়নেই জাতীয় পার্টি থেকে প্রার্থী দেয়ার বিষয়ে চিন্তাভাবনা চলছে।


আরো সংবাদ

নারীদের হিজাব, পুরুষের টাকনুর ওপর পোশাক পরে অফিসে আসার নির্দেশ (৩৯৮৩১)অফিসে ধর্মীয় পোশাক, নোটিশ প্রত্যাহার করে দুঃখ প্রকাশ (১৬৯২৬)ফরাসিদের শাস্তি দেয়ার অধিকার মুসলমানদের রয়েছে : মাহাথির (১১৬৪৬)সরব হচ্ছেন হাজী সেলিমের ভিকটিমরা (৯৯১৪)আর্মেনিয়ার দুটি যুদ্ধবিমান ধ্বংস করলো আজারবাইজান (৯১৭৯)ঢাকায় আসছেন এরদোয়ান (৭৮৭৪)র‌্যাবের শীর্ষ কমান্ডারদের উপর নিষেধাজ্ঞা জারির জন্য যুক্তরাষ্ট্রের সিনেটরদের আহ্বান (৭৮২৪)রংপুরের জুয়েলকে যে অভিযোগে হত্যা করা হয়েছে তা মানতে রাজি নয় স্বজনরা (৭৮০২)জি কে শামীমকে জামিনে সহায়তার অভিযোগে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেলকে দুদকে তলব (৬৫৫৭)ভারতের ম্যাপ থেকে কাশ্মির বাদ দিল সৌদি আরব (৬৪২৫)