০৯ এপ্রিল ২০২০
ফটিকছড়িতে প্রগতি গোল্ডকাপ ব্যাডমিন্টন টুর্ণামেন্টের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কাদের গনি চৌধুরী

খেলাধুলাই পারে একটা সুস্থ জীবন দিতে

-

ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কাদের গনি চৌধুরী বলেছেন, খেলাধুলার মূল কথা হলো প্রতিযোগিতামূলক মনোভাব সৃষ্টি করা। প্রতিযোগিতামূলক মনোভাব খেলোয়াড়দের মধ্যে তৈরী করে শৃঙ্খলাবোধ, অধ্যবসায়, দায়িত্ববোধ, কর্তব্যপরায়ণতা ও পেশাদারিত্ব। খেলাধুলার সঙ্গে স্বাস্থ্য ও মনের একটা নিবিড় সম্পর্ক রয়েছে। সুস্থ দেহ মানেই সুস্থ মন। খেলাধুলা জীবনকে করে সুন্দর, পরিশীলিত। তাছাড়া আন্তর্জাতিক অঙ্গনে দেশের পরিচিতি ও সম্মান বাড়ানোর ক্ষেত্রে খেলাধুলার ভূমিকা অতুলনীয়’। শনিবার সন্ধ্যায় চট্টগ্রামের ফটিকছড়ির শাহনগরে প্রগতি গোল্ডকাপ ব্যাডমিন্টন টুর্ণামেন্টের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব বলেন।

বিশিষ্ট ক্রীড়া সংগঠক ও সমাজ সেবক সারোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মঈনুল হাসান, মির্জাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আবছার, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও তরুণ সমাজ সেবক এম এ সুজন, এস এম শহিদুল আনোয়ার, শিক্ষানুরাগী মাহবুবুল আলম, বেলাল উদ্দিন, হাজি সেলিম উদ্দিন, আসিব চৌধুরী, নাছির মির্জা,আলমগীর হোসেন বাহাদুর,ওমর ফারুক নান্নু প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

কাদের গনি চৌধুরী বলেন, খেলাধুলা দেশের জন্য একান্তভাবে প্রয়োজন। যতবেশি খেলাধুলার সঙ্গে আমাদের ছেলে-মেয়েদেরকে সম্পৃক্ত রাখতে পারবেন তারা ততবেশী সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হবে। চিন্তা-চেতনায়, মন-মননে অনেক বেশি শক্তিশালী, অনেক বেশি উন্নত হবে তারা।’

খেলাধুলার গুরুত্ব বোঝাতে গিয়ে কাদের গনি চৌধুরী বলেন, খেলা যেমন মানুষের মনকে সুন্দর রাখে, তেমনি জীবনের চলার পথটা করে দেয় সুন্দর। সুস্থ দেহ থাকলে, একটা সুস্থ মনও থাকবে। এই মন আর এদিক-ওদিক যাবে না। এখন সমাজে একটা সাংঘাতিক অসুস্থতা দেখা যাচ্ছে। এই যেমন জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসবাদ, মাদকাসক্তি-মানুষের মন-মানসিকতা একেবারেই নষ্ট করে দিচ্ছে। সমাজকে কলুষিত করে দিচ্ছে। বুয়েটের মেধাবী ছাত্রটি খুন হচ্ছে তার সহপাঠির হাতে। হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে রাজশাহীর ছাত্রটির মেরুদণ্ড ভেঙ্গে দিচ্ছে আরেক ছাত্র। ইয়াবা সেবনকারিদের অধিকাংশই যুবক। এসব নোংরা পথ থেকে আমাদের যুব-সমাজকে ফিরিয়ে আনতে হবে।’

আমি মনে করি খেলাধুলা সবার জন্য দরকার। স্কুলজীবনের শুরু থেকেই মাঠে যাওয়া উচিত, খেলা উচিত। পুরো জাতিকে খেলোয়াড় বানানোর কথা আমি বলছি না। আমি বলছি সুস্থ থাকার কথা। কিছুদিন আগে পড়লাম, বাংলাদেশে নব্বই লাখের বেশি মানুষ ডায়াবেটিসে আক্রান্ত। এমন রেকর্ড আমাদের গর্বিত করে না। আমরা এই রেকর্ড বদলে ফেলতে চাই। খেলাধুলাই পারে একটা সুস্থ জীবন দিতে। তাই মাঠে নামতে হবে, খেলতে হবে। অনেক ছেলেমেয়েকে দেখি আইপড, ল্যাপটপ, কম্পিউটার ও মোবাইলে ভিডিও গেমস নিয়ে মেতে থাকে। কিন্তু ঘরে বসে স্রেফ আঙুলের ব্যায়াম করলে তো হবে না। এই শক্তিটা মাঠে ব্যয় করা উচিত। কারণ খেলাধুলা শুধু সুস্থতাই দেয় না, সুখও দেয়।

খেলাধুলা ছেড়ে দিয়ে আমাদের সন্তানেরা ফার্মের মুরগির মতো হয়ে যাচ্ছে। এটা রুখতে হবে।আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মকে সুস্থ, সবল ও যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে হবে।

আমরা পুরো জাতি খেলোয়াড় হতে পারব না। কিন্তু একটা সুখী জাতি তো আমরা হতেই পারি। তাই নয় কী।
সূত্র : প্রেস বিজ্ঞপ্তি


আরো সংবাদ

সেই প্রিয়া সাহা করোনায় আক্রান্ত! (৫০৮৩৩)নিজ এলাকায় ত্রাণ দিয়ে ঢাকায় ফিরে করোনায় মৃত্যু, আতঙ্কে স্থানীয়রা (৪৪৬১১)বেওয়ারিশের মতো সারা রাত সঙ্গীতশিল্পীর লাশ পড়েছিল রাস্তায় (২৬৭২১)দীর্ঘদিন জেলখাটা আসামিদের মুক্তির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর (২০২৫৬)করোনা ছড়ানোয় চীনকে যে ভয়ঙ্কর শাস্তি দেয়ার দাবি উঠল জাতিসংঘে (১৬৩৮৯)কাশ্মিরে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে নিহত ভারতীয় দুর্ধর্ষ কমান্ডো দলের সব সদস্য (১৫৫২৩)রোজার ঈদের ছুটি পর্যন্ত বন্ধ হচ্ছে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান (১৩০৭৯)করোনার লক্ষণ নিয়ে নিজের বাড়িতে মরে পড়ে আছে ব্যবসায়ী, এগিয়ে আসছে না কেউ (১২৮০৫)ঢাকায় নতুন করে ৯টি এলাকা লকডাউন (১০৬৪৩)সবচেয়ে ভয়াবহ দিন আজ : মৃত্যু ৫, আক্রান্ত ৪১ (১০০৬১)