০২ জুন ২০২০

ইরানের সর্বোচ্চ নেতাকে নিয়ে জল্পনা

আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি - ছবি : সংগৃহীত

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনিকে দুই সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে জনসমক্ষে দেখা যাচ্ছে না। ইরানের অনেক সরকারি কর্মকর্তা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় তিনিও এতে আক্রান্ত হতে পারেন বলে জল্পনা শুরু হয়েছে। দুবাইভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল আরাবিয়া এক খবরে এমনটাই জানিয়েছে।

খবরে প্রকাশ, দেশটিতে সরকারি কর্মকর্তাদের এই ভাইরাসে আক্রান্তের সম্ভাবনা বেশি দেখা যাচ্ছে। ইতোমধ্যে সংসদ সদস্য ও খামেনির উপদেষ্টাসহ কমপক্ষে ১৫ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

আলি খামেনি নিজ সিদ্ধান্তে গত সপ্তাহে পার্সিয়ান নববর্ষে তার বক্তব্য বাতিল করেন ও এরপর আর তাকে জনসমক্ষে দেখা যায়নি। তাকে সর্বশেষ গত ৩ মার্চ ইরানের জাতীয় বৃক্ষরোপণ দিবসে প্রকাশ্যে গাছ লাগাতে দেখা গিয়েছিল। তবে এখন পর্যন্ত তার টুইটার অ্যাকাউন্ট সক্রিয় রয়েছে।

তাকে এতদিন প্রকাশ্যে দেখা না যাওয়ায় কেউ কেউ অনুমান করেছেন ৮১ বছর বয়সী খামেনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে থাকতে পারেন।

মার্কিন ম্যাগাজিন দ্য আটলান্টিকের লেখক গ্রায়েম উড সন্দেহ পোষণ করে লিখেছেন, খামেনি কেন স্টুডিও থেকে পার্সিয়ান নববর্ষের ভাষণ দিলেন না।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ব্যাপারে তিনিই মূলত টুইটারে গুজব ছড়িয়েছেন।

তবে, খামেনির ভাইরাস সংক্রমণ নিয়ে কোনো সঠিক প্রমাণ পাওয়া যায়নি, কেবল অনুমানের উপর নির্ভর করে বলা হচ্ছে।

ইরানে সরকারি হিসাবে করোনাভাইরাসে বুধবার পর্যন্ত ১ হাজার ৩১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছেন ১৭ হাজার ৩৬১ জন।


আরো সংবাদ