০৭ জুলাই ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ৭ জিলহজ ১৪৪৩
`

চৌগাছায় সেই স্কুলছাত্র শরীফের জীবন কাটছে হুইলচেয়ারে

চৌগাছায় সেই স্কুলছাত্র শরীফের জীবন কাটছে হুইলচেয়ারে - নয়া দিগন্ত

যশোরের-চৌগাছায় সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয় স্কুলছাত্র আরমান শরীফ (১৩)। চিকিৎসা অভাবে হুইলচেয়ারে জীবন কাটছে তার। মা-বাবার প্রশ্ন মাঝপথে এসে কি থেমে যাবে নয়নের মনি বুকে মানিকের চিকিৎসা? অসহায় এ পরিবারটি ছেলের চিকিৎসার জন্য সমাজের বিত্তবানদের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

শরীফের বাবা লাল্টু হোসেন বলেন, আরমান শরীফ বাইসাইকেল নিয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়। সে উপজেলা স্বরুপদহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র। বিত্তবানদের সহযোগিতায় শরীফের ছয়টা কেমোথেরাপি দেয়া হয়েছে। আরো আটটি কেমো দিয়ে তার ভেঙে যাওয়া জায়গায় অপারেশন করতে হবে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। তার পর পর দুটি কেমো দেয়ার সময় পার হয়ে গেলেও টাকার অভাবে দিতে পারেনি। গত ১ ও ৩ ডিসেম্বর তার সাত ও আট নম্বর কেমো দেয়ার কথা ছিল।

চিকিৎসকরা বিভিন্ন রিপোর্ট দেখে বলেছেন আরমানের কোমরের একটি হাড় ভেঙে আরেকটি হাড়ের উপর উঠে গেছে। আর সেই জায়গাটায় ক্যান্সার আক্রান্ত হয়েছে। এ কারণে ওই জায়গাটি অপারেশন করতে হলে ১৪টি কেমো দিতে হবে। ইতোমধ্যে যার ছয়টি কেমো ঢাকার ক্যান্সার হাসপাতালে দেয়া হয়েছে। আরো আটটি কেমো দিয়ে ওই জায়গায় অপারেশন করাতে হবে।

লাল্টু হোসেন বলেন, এর আগে আরমান শরীফকে নিয়ে স্থানীয় সাংবাদিকরা বিভিন্ন পত্রিকায় খবর প্রকাশ করলে চৌগাছার মনোয়ারা বেগম ফাউন্ডেশনের এমডি প্রকৌশলী হাফিজুর রহমান সোনা শরীফের চিকিৎসার জন্য দুই লাখ টাকা অনুদান দেন। এছাড়া এসময় অনেকেই এগিয়ে আসেন। তাদের সহায়তায় আরমানের চিকিৎসা মধ্যপথে এসেছে। আমি চৌগাছা শহরে তালাচাবি মেরামত করে জীবিকা নির্বাহ করি।

আরমানের মা ছায়রা বলেন, সমাজের বিত্তবানদের সহায়তায় আমার মানিকের চিকিৎসা প্রায় অর্ধেক সম্পন্ন হয়েছে। আপনারা আরেকটু সহানুভূতির হাত বাড়ালে আমার কলিজার টুকরাটা সুস্থ হয়ে আবারো স্কুলে যেতে পারবে। যোগাযেগের মাধ্যম আরমানের পিতা লাল্টুর মোবাইল নম্বর ০১৭৪০৪৬৭৫৭২।


আরো সংবাদ


premium cement