২২ মে ২০২৪, ০৮ জৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৩ জিলকদ ১৪৪৫
`

বিআইআইটির ‘জাকাত অ্যাডমিনিস্ট্রেশন’ বইয়ের প্রকাশনা

-

দেশের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় ইসলামিক থিংক ট্যাংক বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ইসলামিক থটের (বিআইআইটি) আয়োজনে গত শুক্রবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উচ্চতর মানববিদ্যা গবেষণা কেন্দ্রে অবস্থিত মমতাজুর রহমান তরফদার সভাকক্ষে ‘জাকাত অ্যাডমিনিস্ট্রেশন : প্রিন্সিপাল অ্যান্ড কন্টেম্পরারি প্র্যাকটিসেস’ বইয়ের প্রকাশনা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও বিআইআইটির ট্রাস্টি মাহবুব আহমেদের সভাপতিত্বে প্রকাশনা উৎসবে উদ্বোধনী বক্তব্য প্রদান করেন বিআইআইটির মহাপরিচালক ড. এম আবদুল আজিজ। তিনি বিআইআইটির প্রতিষ্ঠাকাল থেকে এর লক্ষ্য, উদ্দেশ্য ও সামগ্রিক কর্মকাণ্ড তুলে ধরেন। এরপর বইয়ের সংক্ষিপ্ত পরিচয় তুলে ধরে বলেন, জাকাত হলো ইসলামী অর্থনৈতিক ব্যবস্থার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ স্তম্ভ, যা সমাজে সম্পদ পুনঃবণ্টন এবং দারিদ্র্য, ক্ষুধা এবং অন্যান্য সামাজিক সমস্যা দূর করার একটি হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহৃত হয়। সাদাকাহ যা স্বাভাবিক দাতব্য, তার বিপরীতে জাকাত হলো ইসলামে একটি ধর্মীয় বাধ্যবাধকতা, যা প্রদান করার যোগ্য ব্যক্তিদের জন্য এটি একটি বাধ্যতামূলক কাজ। জাকাত হলো নিজের সম্পদকে পবিত্র করার একটি উপায় এবং এটি সমাজে অর্থনৈতিক ও সামাজিক ন্যায়বিচার অর্জনে সহায়তা করে। তিনি ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপট থেকে দু’টি দৃষ্টান্ত তুলে ধরেন, প্রথম ঘটনাটি খলিফা উমর ইবনুল খাত্তাবের সময়ের এবং দ্বিতীয় ঘটনাটি খলিফা উমর বিন আব্দুল আজিজের সময়ের। এরপর অনুষ্ঠানে আগত অতিথি ও উপস্থিত সদস্যদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।
প্রধান আলোচক হিসেবে বইয়ের পরিচিতি ও মূল বক্তব্য প্রদান করেন ইউনিভার্সিটি অব নিউ অর্লিন্স, ইউএসএর ইকোনমিক্স ও ফিন্যান্স বিভাগের অধ্যাপক এবং বইয়ের লেখক ড. এম কবির হাসান। তিনি বইয়ে উল্লেখিত অধ্যায়গুলোর বিষয়বস্তু তুলে ধরে বলেন, জাকাতের ধর্মীয় গুরুত্বের পাশাপাশি সামাজিক ও অর্থনৈতিক গুরুত্ব রয়েছে। জাকাত দারিদ্র্য দূরীকরণ ও সামাজিক বৈষম্য দূরীকরণে বিশেষ ভূমিকা রাখতে পারে। তিনি জাকাত ও করের মধ্যে মৌলিক পার্থক্য ব্যাখ্যা করেন এবং জাকাতের নিসাব ও খাতগুলো আলোচনা করেন। তিনি বলেন, বিআইআইটি প্রকাশিত জাকাত অ্যাডমিনিস্ট্রেশন বইটি পাঠকদেরকে জাকাতবিষয়ক মৌলিক ধারণার পাশাপাশি জাকাত প্রশাসনের নীতিমালা সম্পর্কে অবহিত করবে।
এ ছাড়া আলোচনায় প্যানেলিস্ট হিসেবে অংশগ্রহণ করেন ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক ইউনিভার্সিটি, মালয়েশিয়ার সাবেক অধ্যাপক ড. আতাউল হক প্রামাণিক; ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড ও এক্সিম ব্যাংকের সাবেক ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও এবং আইসিবি ইসলামী ব্যাংকের ইন্ডিপেন্ডেন্ট ডিরেক্টর মো: ফরিদ উদ্দিন আহমেদ; বিশিষ্ট ইসলামিক উলামা ও মিডিয়া ব্যক্তিত্ব ড. মুহাম্মদ মনজুর-ই-এলাহী। বিজ্ঞপ্তি।

 


আরো সংবাদ



premium cement
রাণীনগরে অগ্নিকাণ্ডে স-মিলসহ ৬ দোকান পুড়ে ছাই আলোচনার মাধ্যমে ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করা উচিত : হোয়াইট হাউস বুড়িচংয়ে পানিতে ডুবে ২ বোনের মৃত্যু ভারতে পাচার হওয়া ৩ বাংলাদেশী নারীকে ৩ বছর পর ফেরত ইউরোপীয় দেশগুলোর রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতিকে স্বাগত জানিয়েছে ফিলিস্তিনিরা অভয়নগরে মায়ের লাঠির আঘাতে মেয়ের মৃত্যু করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত প্রার্থীদের এনটিআরসিএতে আবেদন গ্রহণের দাবি মমতার মন্তব্যে কেন ক্ষুব্ধ সাধু-সন্তদের একাংশ? হঠাৎ অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি শাহরুখ খান দখলদার বাহিনীর মোকাবেলা করুন : পশ্চিমতীরবাসীকে হামাস স্বাধীনতা ব্যাংকার্স পরিষদের সম্মেলন শুক্রবার

সকল