১৬ মে ২০২১
`

লকডাউনে ভার্চুয়ালি আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট চলবে সীমিত পরিসরে

-

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবজনিত উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ১৪ থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত চলাচলে সরকার কর্তৃক বিধিনিষেধ আরোপের মধ্যে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগে স্বাভাবিক কার্যক্রম বন্ধ রেখে ভার্চুয়ালি সীমিত পরিসরে বিচারিক কাজ পরিচালনার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। গতকাল প্রধান বিচারপতির নির্দেশক্রমে এ বিষয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন।
আপিল বিভাগের রেজিস্ট্রার মো: বদরুল আলম ভূঞার সই করা বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের ১২ এপ্রিল জারি করা প্রজ্ঞাপন অনুসারে সব সরকারি আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি অফিস/আর্থিক প্রতিষ্ঠান আগামী ১৪ এপ্রিল থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত সার্বিক কার্যাবলি/চলাচলে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। এমন পরিস্থিতে আপিল বিভাগের স্বাভাবিক কার্যক্রম বন্ধ রেখে জনগণের সাংবিধানিক অধিকার রক্ষার্থে ভার্চুয়ালি সীমিত পরিসরে বিচার কাজ পরিচালনা করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ১১ এপ্রিলে আপিল বিভাগের জারি করা বিজ্ঞপ্তির ধারাবাহিকতায় ভার্চুয়ালি আপিল বিভাগের এক নম্বর কোর্ট প্রতি রোববার, মঙ্গলবার এবং বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টা থেকে ১২টা পর্যন্ত বিচার কার্যক্রম সীমিত পরিসরে পরিচালিত হবে। এ ছাড়া ভার্চুয়ালি প্রতি সোমবার ও বুধবার বেলা ১১টা থেকে চেম্বার আদালত অতীব জরুরি বিষয়ে শুনানি গ্রহণ করবেন বলেও বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।
করোনার বিস্তার রোধে চলাচলে সাত দিনের নিষেধাজ্ঞা আরোপের মধ্যে গত ৫ এপ্রিল থেকে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের বিচারকার্যক্রম বন্ধ ছিল। শুধু ভার্চুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে মঙ্গলবার ও বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা থেকে চেম্বার আদালত অতিব জরুরি বিষয়ে শুনানি করা হয়েছিল।
এ ছাড়া করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধকল্পে হাইকোর্ট বিভাগের স্বাভাবিক কার্যক্রম বন্ধ রেখে তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে ভার্চুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে সীমিত পরিসরে বিচার কার্যক্রম পরিচালনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন। গতকাল এ বিষয়ে পৃথক বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়।
অগ্রাধিকার ভিত্তিতে আইনজীবীদের টিকার আওতায় আনতে রুল : অগ্রাধিকার ভিত্তিতে আইনজীবীদের করোনাভাইরাসের টিকার আওতায় আনতে কেন নির্দেশ দেয়া হবে নাÑ তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে করোনার টিকা পাওয়ার ক্যাটাগরি থেকে আইনজীবীদের বাদ পড়ার বিষয়টি কেন অসাংবিধানিক হবে নাÑ রুলে তাও জানতে চাওয়া হয়েছে। গতকাল বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো: মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ এই রুল জারি করেন। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে স্বাস্থ্যসচিব ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালককে (ডিজি) রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।
আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট আবু তালেব। তিনি বলেন, সরকার করোনার টিকা দেয়ার জন্য ১৯ শ্রেণী-পেশার মানুষের ক্যাটাগরি করেছেন। সেই ক্যাটাগরিতে আইনজীবীদের নাম নেই। বিষয়টি চ্যালেঞ্জ করে রিট করেছিলাম। আদালত শুনানি নিয়ে রুল জারি করেছেন।
সোমবার অগ্রাধিকার ভিত্তিতে আইনজীবীদের করোনার টিকার আওতায় আনতে হাইকোর্টে রিট করা হয়। গত ৩১ মার্চ অগ্রাধিকার ভিত্তিতে আইনজীবীদের করোনা টিকার আওতায় আনতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালককে লিগ্যাল নোটিশ পাঠান এই আইনজীবী। নোটিশে বলা হয়, করোনার টিকা দেয়ার জন্য যে তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে সেখানে আইনজীবীদের কথা উল্লেখ নেই। নোটিশের জবাব না পাওয়ায় হাইকোর্টে রিট করা হয়।



আরো সংবাদ


গাজায় ইসরাইলের প্রচণ্ডতম বোমাবর্ষণ, টার্গেট হামাসপ্রধানও কেন আসিফকে ব্যাট তুলে মারতে গিয়েছিলেন শোয়েব? জানালেন আফ্রিদি খুনের মামলায় ভারতীয় কুস্তিগিরের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি ফিলিস্তিনিদের উপর ইসরাইলি নিয়ে যা বলল যুক্তরাষ্ট্র গাজার জাতিসঙ্ঘ অফিসের কাছে ব্যাপক বোমা হামলা ঘুম নেই, আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন ইসরাইলে কর্মরত হাজার হাজার ভারতীয় নার্স! সিংগাইরে ট্রাকের ধাক্কায় যুবক নিহত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়ল ২৯ মে পর্যন্ত অত্যাধুনিক ঢাকা গড়তে সকলের সহযোগিতায় চেয়েছেন মেয়র আতিক আগামী ২৩ মে পর্যন্ত কঠোর লকডাউন মঙ্গলে অবতরণ করল চীনের মহাকাশযান

সকল