১৪ মে ২০২১
`
৮০ লাখ টাকা রাজস্ব হারাবে সরকার

পাবনার রসুলপুর-বনগ্রাম হাট নিলামে সিন্ডিকেট

-

পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার রসুলপুর-বনগ্রাম হাটটি রাজস্ব আয়ের অন্যতম উৎস। সিন্ডিকেটের মাধ্যমে নামমাত্র মূল্যে এ হাটের টেন্ডার পেতে মরিয়া অবস্থান নিয়েছে একটি মহল। কাউকে টেন্ডারে অংশ নিতে না দিয়ে নানা পাঁয়তারা চালাচ্ছে তারা। এর সাথে ক্ষমতাসীন দলের কিছু দুবৃত্ত জড়িত থাকার অভিযোগ উঠছে। গত বছর সাঁথিয়া বনগ্রাম রসুলপুর হাট এক কোটি ১৩ লাখ টাকায় নিলাম হয়। এবার সেই একই হাট নিলামে ডাক হয়েছে মাত্র ৩০ লাখ টাকা। সে হিসেবে সরকার প্রায় ৮০ লাখ টাকা রাজস্ব হারাবে। যারা প্রভাব পড়বে স্থানীয় উন্নয়ন কাজে। চলতি বছর সরকার নির্ধারিত মূল্য যেখানে এক কোটি পাঁচ লাখ সেখানে চার দফা টেন্ডার আহ্বান করার পর সর্বোচ্চ মূল্য উঠেছে মাত্র ৩০ লাখ টাকা।
গতবারের তুলনায় এ বছর নিলামের মূল্য কমের কারণ অনুসন্ধানে জানা গেছে প্রথম দফায় চারটি সিডিউল বিক্রি হয়। নিলাম বা টেন্ডার ডাক মূল্য ওঠে মাত্র ৩০ লাখ টাকা। সরকার নির্ধারিত মূল্য ৰা গত বছরের টেন্ডার মূল্যের চেয়ে অনেক কম। অন্যদিকে সরকার নির্ধারিত মূল্য না হওয়ায় পরপর তিন দফা টেন্ডার আহবান করা হয়েছে। কিন্তু কোনাে এক রহস্যজনক কারণে কেউ আর টেন্ডারে অংশগ্রহণ করেনি। সরকারি বিধান মোতাবেক যদি সরকার নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে হাট ঘাট জলা নিলাম মূল্য কম হয় তা হলে ‘খাস কালেকসান করে সরকারি তহবিলে অর্থ (রাজস্ব) জমা করার। এ ব্যাপারে ক্ষেতুপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মনসুর আলম পিন্টু বলেন, 'আমি হাট নিলাম সিন্ডিকেটের সাথে জড়িত নই।' তবে বনগ্রাম-রসুলপুরের বেশির ভাগ মানুষ তার দিকেই অভিযােগে আঙুল তুলছে। রসুলপুরের ব্যবসায়ী আব্দুল আজিজ এবং রহমত আলী বললেন, অনুসন্ধান করলেই সরকার আবিষ্কার করতে পারবে কে বাকারা সরকারিরাজ নিয়ে তামাশা করছে। তারা আরাে বলেন, দাপটশালী একটি সিন্ডিকেট এই হাট নিলামের সাথে জড়িত।
সাঁথিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জামাল উদ্দিন স্বীকার করলেন, রসুলপুর-বগ্রাম হাট সাঁথিয়া উপজেলার অন্যতম রাজস্ব আয়ের একটি উৎস্য। এবার চার দফা টেন্ডার করার পরেও নিলামে যথাযথ মূল্য না পাওয়ায় উপজেলার উন্নয়ন কাজবিঘ্নিত হবে। স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়নের উপপরিচালক মােখলেসুর রহমান বলেন, বিষয়টি আমরা পর্যবেক্ষণ করছি। সাঁথিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ দেলােয়ার বলেন, একটি অসাধুচক্ৰহাটনিলামে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করছে। তারা কমদামে হাট নিলামে নিয়ে বাণিজ্য করার মানসে কাউকে টেন্ডারে অংশ নিতে দিচ্ছে না। এতে সরকার ন্যায্য রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। একটি সূত্র জানিয়েছে, টেন্ডারে অংশ গ্রহণকারীদেরভয়াভীতি প্রদর্শন করছে একটি চক্র।



আরো সংবাদ


গাজার তৃতীয় টাওয়ার ধ্বংসের পর আরো বেশি রকেট নিক্ষেপ হামাসের (১৭৫৬১)এবারের মতো ক্ষতির শিকার ইসরাইল আর কখনো হয়নি : হামাস (১৪১১৮)দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর পাকিস্তানে ঈদ হচ্ছে আজই (১১০৩২)ইসরাইলের পক্ষে দাঁড়াল ভারত, জাতিসঙ্ঘে ফিলিস্তিনের ‘বিশেষ নিন্দা’ (১০২৩৭)ফিলিস্তিনিদের আরো শক্তিশালী সমর্থন দেবে ইরানের আইআরজিসি (৯৭১০)এবার র‌্যামন বিমানবন্দরে হামাসের দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র হামলা (৯৫৩২)ইসরাইলের পরমাণু কেন্দ্রের কাছে হামাসের ১৫ রকেট নিক্ষেপ (৮০৭১)ইসরাইল-ফিলিস্তিন যুদ্ধ বন্ধে যে উদ্যোগ নিচ্ছে জাতিসঙ্ঘ (৬৪৭৭)হামাসের রকেট হামলায় বিমান চলাচলের পথ পরিবর্তন ইসরাইলের (৫৯৫২)এখনো মূল ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করিনি : হামাস (৫৮৪৪)