ঢাকা, বুধবার,১৭ জুলাই ২০১৯

দিগন্ত সাহিত্য

কবি তালিম হোসেন

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৬,শুক্রবার, ০০:০০


প্রিন্ট

কবি ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব তালিম হোসেন ছিলেন মানবতাবাদী এবং ইসলামের সাম্য, শান্তি ও কল্যাণের আদর্শে বিশ্বাসী। নজরুল অনুসারী কবি ও গীতিকার হিসেবে তিনি ইসলামি আদর্শ, ঐতিহ্য ও মূল্যবোধের রূপকার। তাঁর কাব্যগ্রন্থ ‘দিশারী’, ‘শাহীন’, ‘নূহের জাহাজ’।
সত্তর দশকে যে বছর আমি ডিএফপিতে সহকারী সম্পাদক রূপে যোগদান করি, সে বছরই কবি তালিম হোসেন ডিএফপি থেকে অবসরে যান। মনে পড়ে সে সময় একদিন ইত্তেফাকে ‘বিমূর্ত ইলোরা’ নামে আমার একটি রোমান্টিক কবিতা ছাপা হয়। সুশিক্ষিত অভিজাত পরিবারের এক পরিচিত ওইদিন টেলিফোনে কবিতাটি পড়ে ভীষণ উষ্মা প্রকাশ করেন। তাঁর কাছে এটি অত্যন্ত অরুচিকর মনে হয়েছিল। কী আশ্চর্য, পরদিন কবি তালিম হোসেন ওই কবিতাটি সম্পর্কে খুবই উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে আমাকে অভিনন্দিত করেন।
সঙ্গীতানুরাগী তালিম হোসেন ‘নজরুল একাডেমি’র অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা। তার তিন কৃতী কন্যা শবনম মুশতারী, পারভীন মুশতারী ও ইয়াসমীন মুশতারী বিশিষ্ট নজরুলসঙ্গীতশিল্পী হিসেবে খ্যাতিমান। স্ত্রী মরহুমা মাফরুহা চৌধুরী বিশিষ্ট কথাশিল্পী ও সাংবাদিক।
১৯৯৯ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি কবি তালিম হোসেন ইন্তেকাল করেন। তাঁর সৃষ্টি আজো আমাদের মাঝে তাঁর সরব উপস্থিতি নিশ্চিত করে।

পরিতাপের বিষয়, বহু গুণান্বিত এসব মনীষীর জীবন সম্পর্কে বর্তমান প্রজন্মের অনেকেই তেমন কিছু জানে না। সাহিত্যের প্রতি মানুষের দৃষ্টি যেন ক্রমেই ক্ষীণ হয়ে আসছে। অথচ এঁরা চিরকালের। এঁরা একেকটি স্তম্ভ। সেই স্তম্ভগুলো আজ স্তম্ভিত হয়ে পড়ে আছে এক মৃত সময়ের এলিজি রূপে!

 

 

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫