নতুন চলচ্চিত্রে তমালিকা

বিনোদন প্রতিবেদক

এখন পর্যন্ত নিজের ভালোলাগা থেকে ছয়টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন তমালিকা কর্মকার। এর মধ্যে আবু সাইয়ীদ পরিচালিত কীত্তনখোলা চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। তাই একজন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী হিসেবে বরাবরই চলচ্চিত্রে কাজ করার বিষয়ে তমালিকা একটু বেশিই সচেতন ছিলেন। যে কারণে কমসংখ্যক চলচ্চিত্রে অভিনয় করলেও প্রতিটি চলচ্চিত্রে তার অভিনয় হয়েছে দর্শকনন্দিত, প্রশংসিত। গুণী এই অভিনেত্রী আবারো নতুন একটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে যাচ্ছেন। চলচ্চিত্রের নাম প্রিয়াঙ্কা। এটি নির্মাণ করতে যাচ্ছেন নাজমুফ শাকিব আহমেদ। চলচ্চিত্রটির কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয়ের জন্য চূড়ান্ত হয়েছেন তমালিকা কর্মকার। পরিচালক নাজমুফ বলা যায় অনেক কষ্ট তমালিকাকে এই চলচ্চিত্রে কাজ করানোর জন্য রাজি করিয়েছেন। কারণ তমালিকা যে চরিত্রে কাজ করতে যাচ্ছেন তাতে তমালিকার বিকল্প কেউ নেই। ৩৫ বছর বয়সী একজন আধুনিক, উচ্চবিত্ত, প্রতিষ্ঠিত মেয়ের গল্প (তমালিকা) নিয়েই প্রিয়াঙ্কা চলচ্চিত্রের কাহিনী এগিয়ে যাওয়া। চলচ্চিত্রে কাজ করা প্রসঙ্গে তমালিকা বলেন, আমার চরিত্রটি অনেক চ্যালেঞ্জিং একটি চরিত্র। গল্প পড়ে খুব ভালো লেগেছে বিধায় কাজটি করতে যাচ্ছি। সত্যিই আমি অনেক বেশি উচ্ছ্বসিত এবং আনন্দিত যে, আমি বেশ কয়েক বছর বিরতির পর মনেরমতো কমার্শিয়াল একটি চলচ্চিত্রে কাজ করার সুযোগ পেয়েছি। যেখানে আমি আমার অভিনয়কে যথাযথ উপস্থাপন করতে পারব। তমালিকা জানান, নতুন বছরের মার্চ-এপ্রিলে চলচ্চিত্রটির শুটিং শুরু হবে। বর্তমানে চলছে অন্যান্য শিল্পী নির্বাচনপ্রক্রিয়া। তমালিকা প্রথম অভিনয় করেন শেখ নিয়ামত আলীর অন্য জীবন চলচ্চিত্রে। এরপর তিনি মিথ্যার রাজা, এই ঘর এই সংসার, কীত্তনখোলা এবং সর্বশেষ হুমায়ূন আহমেদের ঘেটুপুত্র কমলা চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। এ দিকে তমালিকা নিয়মিত অভিনয় করছেন ধারাবাহিক নাটক লেকড্রাইভ লেন, পরম্পরা, লাইফ ইন এ মেট্রোতে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.