ঢাকা, সোমবার,১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

বাংলার দিগন্ত

ছোট যমুনা নদীতে জয়পুরহাট চিনিকলের বিষাক্ত বর্জ্য মরে ভেসে উঠছে মাছ

নওগাঁ সংবাদদাতা

২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৫,মঙ্গলবার, ২১:২২


প্রিন্ট

জয়পুরহাট সুগারমিলের বিষাক্ত বর্জ্যরে বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে নওগাঁয় ছোট যমুনা নদীর মাছ মরে যাচ্ছে। গত শনিবার সকাল থেকে শহরের বিপুল মানুষ সে মাছ সংগ্রহ করে নিয়ে যাচ্ছে। এ নিয়ে জনমনে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা যাচ্ছে।
জানা গেছে, শনিবার সকাল থেকে জয়পুরহাট সুগার মিল থেকে ছেড়ে দেয়া বিষাক্ত বর্জ্য নওগাঁ জেলার সীমানায় ছোট যমুনা নদীর পানিতে মিশে গেছে। এতে পানির রঙ কালো বিবর্ণ হয়ে পড়ে এবং পানি থেকে দুর্গন্ধ ছড়াতে থাকে। সেই সাথে নদীর বোয়াল, ট্যাংড়া, পুঁটি, বাইন প্রভৃতি মাছ ভাসতে থাকে। ভেসে ওঠার কিছুণের মধ্যে মাছ মরে যেতে শুরু করে।
বিষয়টি জানতে পেরে শহরের দুই কিলোমিটার জুড়ে নদীর উভয় তীরে হাজার হাজার মানুষ সে মাছ ধরতে শুরু করে। এ যেন মাছ শিকারের মহোৎসবে পরিণত হয়।
এ ব্যাপার নওগাঁ জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোহা: ওবাইদুল্লাহের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি খবর পেয়ে আমাদের কর্মকর্তাদের সেখানে পাঠিয়েছি। তাদের তথ্য মতে প্রতি বছরের মতো এবারো জয়পুরহাট সুগার মিলের বিষাক্ত বর্জ্য তুলশীগঙ্গা নদীতে ছেড়ে দেয়। তুলশীগঙ্গা নদী বেয়ে তিলকপুরের ছোট যমুনা নদী বেয়ে শহরের মরাকাটা পর্যন্ত এই বিষাক্ত বর্জ্য প্রবাহিত হয়েছে। এতে নদীতে থাকা সব প্রকার মাছ ভেসে ওঠে। যা সাধারণ জনগণ ধরে নিয়ে যাচ্ছে। এর যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আমার প্রতিবেদন আমি নওগাঁ জেলা প্রশাসকসহ আমার ঊর্ধ্বতন মহলে পাঠিয়েছি।
এর আগের বছরগুলোতেও জয়পুরহাট চিনিকলের বর্জ্যরে বিষক্রিয়ায় নওগাঁর ছোট যমুনা নদীর মাছের এমন মড়ক দেখা দিয়েছিল। প্রতিবাদ করেও কোনো প্রতিকার হয়নি।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫