ঢাকা, রবিবার,১৯ নভেম্বর ২০১৭

বিবিধ

সীসাযুক্ত রঙ নিষিদ্ধে আইন করার দাবি

নিজস্ব প্রতিবেতক

২৬ অক্টোবর ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ১৮:২৪


প্রিন্ট

রঙে সীসার সহনীয় মাত্রা ৯০পিপিএম নির্ধারণ করে গেজেট প্রকাশের আহবান জানিয়েছেন দেশের পরিবেশবাদিসহ বিভিন্ন ব্যক্তিরা। তারা ২০১৮ সালের মধ্যে সীসাযুক্ত রঙ নিষিদ্ধকরণ আইন প্রণয়নেরও আহ্বান জানান।

আজ বৃহস্পতিবার এনভায়রনমেন্ট অ্যান্ড সোসাল ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন এসডোর প্রধান কার্যালয়ে এই ‘লার্ন দ্য রিস্কস অ্যান্ড ব্যান লেড পেইন্ট’ শীর্ষক সভাটি অনুষ্ঠিত হয়।

সাবেক সচিব ও এসডোর চেয়ারপারসন সৈয়দ মার্গুব মোর্শেদ সভার সভাপতিত্ব করেন। বক্তব্য রাখেন পরিবেশ অধিদপ্তরের সাবেক পরিচালক, মাহমুদ হাসান খান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক ড. আবু জাফর মাহমুদ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক এবং চেয়ারম্যান অব ক্যামিকেল ডিভিশন ( বিএসটিআই) মোঃ আবুল হাশেম, পরিবেশ অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, উপ-পরিচালক, সোনিয়া সুলতানা ও সাইদুল ইসলাম ,বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ড আ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশন (বিএসটিআই) প্রতিনিধি সাইদুর রহমান খান, সিনিয়র সহকারী সচিব, পরিবেশ স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান মন্ত্রণালয়, ওয়ার্ল্ড হেলথ্ অর্গানাইজেশন-ডাব্লিউএইচও-এর প্রতিনিধি।

এতে সৈয়দ মার্গুব মোর্শেদ বলেন, এসডোর পলিসি অ্যাডভোকেসির ফলে সম্প্রতি কিছু বড় ও মাঝারি রঙ কোম্পানি সীসামুক্ত রঙ বাজারজাত করা শুরু করেছে। তিনি সীসামুক্ত বাংলাদেশ গড়ে তুলতে সবার কাছে আহবান জানান। বিশেষত: সরকারকে এ বিষয়ে দ্রুত আইন প্রণয়নের আহবান জানান।

বিএসটিআই’র রসায়ন বিভাগের উপ পরিচালক, জোহরা শিকদার বলেন, অতি দ্রুতই রঙ-এ সীসার সর্বোচ্চ ঘনমাত্রা ৯০ পিপিএম নির্ধারণ করা হবে।

মাহমুদ হাসান খান, পরিবেশ অধিদপ্তরের সাবেক পরিচালক বলেন, স্ট্যান্ডার্ড নির্ধারণ করা উচিত একটি দেশের অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে। অন্য দেশের বা নির্ধারিত আন্তর্জাতিক দলিলের অনুকরণে নয়।

পরিবেশ, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব বলেন, নিয়মিত যোগাযোগ ও পলিসি অ্যাডভোকেসির মাধ্যমে বাংলাদেশে সীসাযুক্ত রঙ নিষিদ্ধকরণে আইন প্রণয়ন সম্ভব হবে।

এসডোর সেক্রেটারি জেনারেল ড. শাহরিয়ার হোসেন বলেন, এ বছর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার স্লোগান ‘শিশুর দেহে সীসার কোনো সহনীয় মাত্রা নেই’ অর্থাৎ ভবিষ্যত প্রজন্মের স্বার্থে অতি দ্রুত রঙ-এ সীসার ব্যবহার বন্ধে আইন প্রণয়ন করে বাস্তবায়ন করা হোক।

এসডোর নির্বাহী পরিচালক সিদ্দীকা সুলতানা বলেন, এ বছরে ইন্টারন্যাশনাল লেড পয়জনিং প্রিভিনশন উইক-এর প্রতিপাদ্য বিষয়, ‘লার্ন দ্য রিস্ক, এডুকেট ইওর কমিউনিটি, ব্যান লেড পেইন্ট’, প্রতি বছর বাংলাদেশ এ সপ্তাহটি অবজার্ভ করে। আমরা আশা করছি ২০১৮ সাল থেকে এ দিনটি আমরা উদযাপন করব।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫