২১ মে ২০২২
`

ক্যালিফোর্নিয়ায় দাবানলে বাড়ি ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন অনেকে

ক্যালিফোর্নিয়ায় দাবানলে বাড়ি ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন অনেকে - ছবি : সংগৃহীত

ক্যালিফোর্নিয়ার উপকূলবর্তী এলাকা বিগ সার বরাবর পাহাড়ে শনিবার দমকলকর্মীরা একটি দাবানল নেভানোর চেষ্টা করছিলেন। দাবানলটি ক্যালিফোর্নিয়ার উপকূলের এই বিপজ্জনক অংশটির শত শত বাসিন্দাদের নিরাপদে স্থানে সরে যেতে এবং কর্তৃপক্ষকে সেখানকার প্রধান রাস্তাটি বন্ধ করে দিতে বাধ্য করে।

শুক্রবার রাতে একটি খাড়া গিরিখাতে, আগুনটির সূত্রপাত হয় এবং তা দ্রুত সমুদ্র অভিমুখে ছড়িয়ে পড়ে। ঘণ্টায় প্রায় ৫০ মাইল (৮০ কিলোমিটার) গতিবেগের জোরালো বাতাস, আগুনের গতি বাড়িয়ে দেয়। ক্যালিফোর্নিয়ার ডিপার্টমেন্ট অফ ফরেস্ট্রি অ্যান্ড ফায়ার প্রোটেকশন-এর মুখপাত্র, সেসিল জুলিয়েট বলেন যে, দাবানলটির ফলে অন্তত ২.৩ বর্গমাইল (৬ বর্গকিলোমিটার) এলাকার ব্রাশ ও রেডউড গাছ পুড়ে যায়।

কারমেল ও বিগ সারের মধ্যবর্তী, বিক্ষিপ্ত বসতি এলাকাটির, অন্তত ৫০০ জন বাসিন্দার সাথে যোগাযোগ করে, তাদেরকে নিরাপদ স্থানে সরে যেতে অনুরোধ করেছে কর্তৃপক্ষ। শনিবার সন্ধ্যা নাগাদ, কয়েকটি সংস্থা ও স্বেচ্ছাসেবী দলের প্রায় ২৫০ জন দমকলকর্মী, দাবানলের প্রায় ২০% নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম হন। এতে পানি বর্ষণকারী দমকল বিমানও সাহায্য করেছে।

জুলিয়েট বলেন, বাতাস থেমে গিয়েছে এবং সেটিই আমাদের পক্ষে কাজ করেছে।

কর্তৃপক্ষ হাইওয়ে ওয়ানের একটি অংশ বন্ধ করে দিয়েছে। সেটি খোলার আনুমানিক কোনো সময়ও জানানো হয়নি। বিগ সারের এই দুই লেন হাইওয়েটি, দাবানলের কারণে প্রায়ই বন্ধ হয়ে যায়। ভারী বর্ষণে ভুমিধসের কারণে, ২০১৭ সালে রাস্তাটির একটি অংশ ধ্বসে পড়েছিল।

সোনোমা কাউন্টির গিজার পিক-এ, দমকলকর্মীরা ৫ একর এলাকা জুড়ে থাকা একটি আগুন নেভাতে সক্ষম হয়েছেন। সেখানে বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ৯০ মাইল (১৪৫ কিলোমিটার) পর্যন্ত উঠে যায়। সিয়েরা নেভাডায়, কার্কউড পাহাড়ী রিসোর্টের চূড়ার কাছে, বাতাসের বেগ ঘণ্টায় ১৪১ মাইল (২২৬ কিলোমিটার) পর্যন্ত উঠে। এর ফলে কয়েকটি স্কি লিফট বন্ধ করে দিতে হয়।

আগুনটির কারণ অনুসন্ধানে তদন্ত চলছে।


আরো সংবাদ


premium cement