০৭ মে ২০২১
`

পবিত্র রমজানে প্রেসিডেন্ট বাইডেন ও ফার্স্ট লেডির শুভেচ্ছা

পবিত্র রমজানে প্রেসিডেন্ট বাইডেন ও ফার্স্ট লেডির শুভেচ্ছা - ছবি- সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও ফার্স্ট লেডি জিল বাইডেন মুসলিম সম্প্রদায়কে পবিত্র মাহে রমজানের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। মঙ্গলবার এক শুভেচ্ছা বার্তায় বাইডেন বলেন, জিল আর আমি যুক্তরাষ্ট্র ও বিশ্বের সকল মুসলিম সম্প্রদায়ের জন্য আন্তরিক শুভেচ্ছা ও শুভকামনা জানাচ্ছি। ‘রামাদান করিম’।

প্রেসিডেন্ট বাইডেন বলেন, বহু আমেরিকান বুধবার মাহে রমজানের রোজা শুরু করছেন। সাথে সাথে আমরা স্মরণ করিয়ে দিচ্ছি, এ বছরটি কতটা কঠিন ছিল। করোনা মহামারীতে বন্ধুবান্ধব ও প্রিয়জনরা এখনো একত্রিত হতে পারেননি। অনেক পরিবার প্রিয়জনদের ছাড়াই ইফতার করবেন।

শুভেচ্ছা বার্তায় আরো বলা হয়, আমাদের মুসলিম সম্প্রদায় নতুন প্রত্যাশায় সংযম শুরু করবেন। অনেকেই সৃষ্টিকর্তার নৈকট্য লাভের জন্য আরো সচেতন হবেন, একে অন্যের প্রতি সেবার ব্রত নিয়ে। তাদের বিশ্বাসের প্রতি অবিচল থেকে সৃষ্টিকর্তার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে সকলের সুস্বাস্থ্য, কল্যাণ ও সুন্দর জীবন কামনা করবেন।

বাইডেন আরো বলেন, প্রতিষ্ঠার পর থেকে মুসলিম আমেরিকানরা এ দেশটিকে সমৃদ্ধ করেছেন। তাদের শ্রম ও প্রাণশক্তি দিয়ে তারা যুক্তরাষ্ট্রকে প্রতিষ্ঠায় সহায়তা করেছেন। আজ মুসলমানরা কোভিড-১৯ মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছেন। এ মহামারীতে তারা টিকা উন্নয়ন ও সামনের কাতারের স্বাস্থ্যসেবাকর্মী হিসেবেও অগ্রণী ভূমিকা পালন করছেন। তারা উদ্যোক্তা ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের মালিক হিসেবে কর্মসংস্থান সৃষ্টি করছেন, জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সামনের কাতারের কর্মী হিসেবে কাজ করছেন। তিনি বলেন, আমাদের স্কুলে শিক্ষাদান করছেন, দেশজুড়ে নিবেদিতপ্রাণ সরকারি কর্মচারী হিসেবে কাজ করছেন মুসলিমরা। জাতিগত সমতা ও সামাজিক ন্যায়বিচারের জন্য আমাদের চলমান সংগ্রামে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছেন তারা।

প্রেসিডেন্ট বাইডেন মনে করেন, তবুও মুসলিম আমেরিকানরা ভীতি প্রদর্শন, ধর্মান্ধতা ও বর্ণবাদি অপরাধের লক্ষ্যবস্তু হচ্ছেন। তাদের প্রতি এ কুসংস্কার ও আক্রমণ ভুল। এগুলো অগ্রহণযোগ্য। এটা অবশ্যই থামানো উচিত। আমেরিকাতে নিজের বিশ্বাস প্রকাশে কারো ভীত হওয়া উচিত নয়। আমার প্রশাসন সকল মানুষের অধিকার সুরক্ষায় অক্লান্ত পরিশ্রম করবে।

তিনি বলেন, প্রেসিডেন্ট হিসেবে আমার প্রথম দিনেই আমি লজ্জাজনক মুসলিম ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার অবসান ঘটাতে পেরে গর্বিত হয়েছিলাম। আমি চীনের উইঘুর, বার্মার রোহিঙ্গা ও বিশ্বের সর্বত্র মুসলিম জনগোষ্ঠীর মানবাধিকারের পক্ষে দাঁড়াবো।

শুভেচ্ছা বার্তায় বলা হয়, গত রমজানের পর থেকে আমরা যাদেরকে হারিয়েছি তাদের স্মরণ করি। আমরা উজ্জ্বল আগামীর জন্য আশাবাদী। পবিত্র কুরআন আমাদের স্মরণ করিয়ে দেয় যে ‘ঈশ্বর বেহেশত ও পৃথিবীর আলো’। তিনি আমাদের অন্ধকার থেকে আলোর দিকে নিয়ে যান।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, এবারের রমজানে হোয়াইট হাউস ভার্চুয়াল অনুষ্ঠান করলেও, জিল আর আমি আশাবাদী যে পরের বছর হোয়াইট হাউসের ঐতিহ্যবাহী ঈদ উদযাপন সকলের উপস্থিতিতেই হবে, ‘ইনশাআল্লাহ’। তিনি বলেন, আমরা কামনা করি রামজান মাসটি আপনাদের ও আপনাদের পরিবারের জন্যে একটি অনুপ্রেরণামূলক ও ফলপ্রসূ মাস হবে।

সূত্র : ভয়েস অব আমেরিকা



আরো সংবাদ