০৬ আগস্ট ২০২০

করোনার কারণে যুক্তরাষ্ট্রে অন্য রোগের চিকিৎসায় সংকট বেড়েছে

24tkt

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের এক ব্যক্তি চিকিৎসকের কাছে না যেয়ে তার মাথার টিউমারটি আকারে বড় না হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করছেন। অন্যদিকে এক শিশু ছয় দিন ধরে কানের সংক্রমণ নিয়ে ভুগলেও নিয়ে যাওয়া হচ্ছে না ডাক্তারের কাছে। একজন হৃদরোগী চেকআপ না করিয়েই ইতোমধ্যে মারা গেছেন। এভাবেই করোনা মহামারি যুক্তরাষ্ট্রে তৈরি করেছে আরো নানা রোগের স্বাস্থ্য সঙ্কট। কেননা রোগীদের জন্য হাসপাতাল যাওয়া এখন ভীতিকর বিষয় আবার কিছুক্ষেত্রে তারা হাসপাতাল যেতে সক্ষমও হচ্ছেন না।

মার্কিনীদের মাঝে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ায় চিকিৎসক ও হাসপাতালগুলো বলছে, রুটিন চিকিৎসা চেকআপ ও স্ক্রিনিংয়ের জন্য রোগীর সংখ্যা তীব্রভাবে হ্রাস পেয়েছে। যারা এত দিন ধরে চিকিৎসা নিতে দেরী করছেন তাদের অসুস্থতা বেড়ে চলেছে।

ডা. ডায়ানা ফাইট বলেন, আমার এক মহিলা পেশেন্ট পাঁচ দিনের পেটে ব্যথা নিয়ে যখন আসলেন তখন তার অবস্থা আরো খারাপ হয়ে গেছে।

গত মার্চ মাসে মহামারীটি জাতীয় জরুরি অবস্থা ঘোষণার পরে দেশটির অনেক রাজ্যে স্বল্প চিকিৎসায় নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। এছাড়াও অন্যান্য রোগের রোগীর সংখ্যাও উদ্বেগজনক। এভাবে হাসপাতাল ও চিকিৎসাক্ষেত্র আর্থিকভাবে মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। মহামারির প্রথম ১০ সপ্তাহের মধ্যে জরুরী অবস্থা বিভাগে অন্য রোগী হ্রাস পেয়েছে আর করোনাভাইরাসের লক্ষণসহ রোগীদের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ছে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্রের তথ্য মতে, নিয়মিত চিকিৎসার জন্য আসা হার্ট অ্যাটাকের রোগীদের সংখ্যা ২৩ শতাংশ ও স্ট্রোকের রোগী ২০ শতাংশ কমেছে।

মার্কিন অনকোলজিস্ট ডা. দেব্রা পাট বলেছেন, মহামারির পরের বছরগুলোতে ক্যান্সারে আকাশচুম্বী মৃত্যুর সংখ্যার আশঙ্কা রয়েছে। এছাড়াও জরুরী চিকিৎসা না পেয়ে হাসপাতালে আনার আগে হৃদরোগীদের মৃত্যুর সংখ্যা ৪৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। সূত্র : রয়টার্স


আরো সংবাদ