০৯ মে ২০২১
`

মেগান কালো! ঘুম ছুটে গিয়েছিল ব্রিটিশ রাজপরিবারে

মেগান কালো! ঘুম ছুটে গিয়েছিল ব্রিটিশ রাজপরিবারে - ছবি সংগৃহীত

রাজপরিবার, আলো, হীরা, সম্পদে মোড়া। কিন্তু ওই আলোর প্রাসাদে কালোর কোনো জায়গা নেই। সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে ব্রিটেন রাজপরিবারের পুত্রবধূ মেগান মার্কেল চাঞ্চল্যকর দাবি করেছেন। তিনি বলেন, 'আমার গায়ের রং কালো। সে ক্ষেত্রে আমার সন্তান হলে তাদের গায়ের রং কতটা কালো হবে তা নিয়ে দিনরাত আলোচনা চলত রাজপ্রাসাদে।' বর্ণবিদ্বেষ নিয়ে এর আগে সরব হয়েছেন বহু বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব। কিন্তু ব্রিটেনের রাজপরিবারের অন্দরমহলেও গায়ের রং নিয়ে এই বাছবিচারে অবাক গোটা বিশ্ব।

আন্তর্জাতিক নারী দিবস ২০২১। কিছু কি বদলেছে? মেগানের এই সাক্ষাৎকারের পর উঠতে শুরু করেছে একাধিক প্রশ্ন। মেগানের দাবি, তিনি তখন গর্ভবতী। সেই সময় তার স্বামী তথা ব্রিটিশ রাজকুমার হ্যারিকে ডেকে বলা হয়েছিল, যদি তাদের ছেলের গায়ের রং কালো হয়, তাহলে তাকে রাজকুমার বলে মেনে নেয়া হবে না। 'রাজপরিবারের বড় ঘরে এই নিম্ন আলোচনার মধ্যে মাঝে মাঝে আত্মহত্যার কথাও মনে হতো', বিস্ফোরক মেগান।

উল্লেখ্য, মেগানের বাবা শেতাঙ্গ হলেও মা আফ্রিকান বংশোদ্ভূত। আর মায়ের গায়ের রং পেয়েছেন মেগান। ব্রিটিশ রাজপরিবার তাকে বাড়ির অন্দরমহলে সাদরে গ্রহণ করেছিল। হ্যারি-মেগানের বিয়ে ছিল চোখ ধাঁধানো। কিন্তু নতুন তার গায়ের রং নিয়ে সন্তুষ্ট ছিলেন না রাজপরিবার, জানিয়েছেন মেগান। তিনি আরো বলেন, এই যাবতীয় সমস্যার সমাধানের জন্য রাজপরিবারের অন্যতম প্রবীণ ও ক্ষমতাশালী মানুষের কাছেও গিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু তিনিও মেগানের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেননি।

বর্ণবিদ্বেষ আজকের সমস্যা নয়। কিন্তু স্বপ্নের রাজপ্রাসাদের ভেতরেও মেয়েদের গায়ের রং নিয়ে হাহাকার করতে হয়, রাজপুত্র জন্মানোর আগেই তার আসন ছিনিয়ে নেয়ার কথা হয়, এই প্রথমবার এমন বাস্তবের সম্মুখীন হতে হলো বিশ্ববাসীকে।

উল্লেখ্য, রাজপরিবারের যাবতীয় উপাধি ত্যাগ করেছেন হ্যারি ও মেগান। ছেড়েছেন রাজপ্রাসাদও।
সূত্র : আজকাল

 



আরো সংবাদ