১০ জুলাই ২০২০

ব্রিটিশ ক্ষমতাসীন দলের বিরুদ্ধে তদন্ত চায় শতাধিক মসজিদ

কনজারভেটিভ পার্টির প্রধান ও ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন - ফাইল ছবি

ব্রিটেনের ক্ষমতাসীন দল কনজারভেটিভ পার্টির মধ্যে ইসলাম সম্পর্কে অমূলক ভয় বা ইসলামফোবিয়ার বিষয়ে তদন্তে ব্যর্থতার পরিচয় দেয়ার জন্য দেশটির সাম্য ও মানবাধিকার কমিশনের (ইএইচআরসি) সমালোচনা করেছে একশটির বেশি মসজিদ ও অনেকগুলো ইসলামি সংগঠন। তাদের পক্ষ থেকে ইএইচআরসি’র কাছে পাঠানো একটি চিঠিতে বলা হয়েছে, ক্ষমতাসীন দলের মধ্যে ইসলামফোবিয়ার বিষয়ে যেসব অভিযোগ রয়েছে সেগুলো তদন্ত ও সংস্থাটির অবস্থান পূণর্বিবেচনা করতে হবে। উদাহরণ হিসেবে, কনজারভেটির পার্টির কয়েকজন নেতার ইসলাম বিষয়ে আপত্তিকর মন্তব্যের কথা উল্লেখ করা হয়েছে চিঠিতে।

সাম্য ও মানবাধিকার কমিশন (ইএইচআরসি) একটি স্বাধীন সংস্থা যারা ইংল্যান্ডে সব নাগরিক ও মতের জন্য সমান আইন প্রয়োগ নিশ্চত করতে কাজ করে। কিন্তু ক্ষমতাসীন দলের বিরুদ্ধে এসব অভিযোগের বিষয়ে সংস্থাটি দায়িত্বশীল আচরণের পরিচয় দেয়নি বলে মসজিদগুলোর কর্তৃপক্ষ তাদের চিঠিতে অভিযোগ করেছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, ‘সমাজে বৈষম্য দূরীকরণ, সবার সমান অধিকার নিশ্চিত করা যে সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানের কাজ সেটি এই অভিযোগের বিষয়ে যে ভূমিকা রেখেছে তা গ্রহণযোগ্য নয়। কনজারভেটিভ পার্টির লোকদের মধ্যে ইসলামফোবিয়ার তদন্ত করতে অস্বীকৃতি জানানোয় এই ঘ্টনা আরো বাড়বে এবং ব্রিটিশ সমাজে মুসলিমদের বিরুদ্ধে বৈষম্যও বৃদ্ধি পাবে’।

ফিন্সবুরি পার্ক মসজিদ, গ্লাসগো পার্ক মসজিদ, ওয়ালথাম ফরেস্ট কাউন্সিল অব মসজিদসহ একশোর বেশি মসজিদের নেতারা চিঠিতে স্বাক্ষর করেছেন।

চিঠিতে বলা হয়েছে, কনজারভেটিভ পার্টির নেতাদের বিরুদ্ধে ইসলাম নিয়ে অমূলকভীতির অভিযোগ ‘সত্যিই গুরুত্বর’। গত মার্চ মাসে মুসলিম কাউন্সিল অব ব্রিটেন তাদের বিরুদ্ধে তিনশো অভিযোগ দাখিল করেছে। চিঠিতে এই বিষয়গুলো নিয়ে তদন্ত করে পুণঃ পুণঃ আহ্বান জানানো হয় ইইএইচআরসিকে।


আরো সংবাদ