০৬ ডিসেম্বর ২০২১
`

তুর্কি ড্রোন কিনতে চায় ব্রিটেন

তুর্কি ড্রোন-ব্রিটেন-তুরস্ক-তুরস্কের তৈরি সশস্ত্র ড্রোন-ইউরোপ
তুরস্কের আকিঞ্জি ড্রোন - ছবি : সংগৃহীত

তুরস্কের শিল্প ও প্রযুক্তিমন্ত্রী বলেছেন, ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষ তুরস্কের তৈরি সশস্ত্র ড্রোন কিনতে ভীষণ আগ্রহী হয়ে উঠেছে। শুক্রবার তুরস্কের শিল্প ও প্রযুক্তিমন্ত্রী এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেন বলে জানিয়েছে ইয়েনি শাফাক।

তুর্কি ভাষায় সম্প্রচারিত সিএনএন চ্যানেলকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তুরস্কের শিল্প ও প্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তফা ভারঙ্ক বলেন, তুর্কি ড্রোনের প্রতি ভীষণ আগ্রহ দেখাচ্ছে ব্রিটেন। এখন তাদেরকে এ বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। আমরা তাদেরকে অনেকগুলো বিকল্প প্রস্তাবও দিয়েছি। তারা আমাদের প্রস্তাবগুলোকে নিয়ে ভাবছে।

তিনি বলেন, আমি বিশ্বাস করি যে ভবিষ্যতে আমরা ইউরোপের আকাশে বায়রাখতার ও অঙ্কাস ড্রোনগুলোকে উড়তে দেখব। তারা এ ড্রোনগুলোকে তুরস্ক থেকেই কিনবে।

এ বছরের ২১ জানুয়ারি তারিখে ইস্তাম্বুল ডিফেন্স, এয়ারোস্পেস ক্লাস্টার অ্যাসোসিয়েশন ও ইস্তাম্বুল চেম্বার অব ইন্ডাস্ট্রি আয়োজিত এক অনুষ্ঠানেও মোস্তফা ভারঙ্ক এমন আশাবাদ ব্যক্ত করেছিলেন।

এর আগে তিনি তার এক বিবৃতিতে বলেছেন, ব্রিটিশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেছেন যে তুর্তি ড্রোনগুলো যে কোনো (যুদ্ধ) পরিস্থিতি পরিবর্ত করে দিতে পারে।

তুরস্কের প্রতিরক্ষা ও বিমান নির্মাণ খাত থেকে এ বছরে ১২ বিলিয়ন অর্থ আয় হয়েছে। ২০০৫ সালে তুরস্কের প্রতিরক্ষা রফতানি ছিল ৩৪ কোটি মার্কিন ডলার, এখন তা বেড়ে হয়েছে তিন শ’ কোটি মার্কিন ডলার।

বর্তমানে বিভিন্ন দেশে তুরস্ক নির্মত ড্রোনের চাহিদা বাড়ছে। বর্তমান সময়ের আধুনিক যুদ্ধগুলোতে ড্রোনের গুরুত্বের কথা বিবেচনা করে তুর্কি সরকারও চাচ্ছে ড্রোনের রফতানি বাড়াতে।

তুরস্কের ড্রোনগুলো সিরিয়া, লিবিয়া ও নাগরনো-কারাবাখে সাফল্য লাভের পর তাদের বিক্রি বেড়েছে। সাবেক সোভিয়েতভুক্ত দেশগুলোতেও এ ড্রোনগুলোর চাহিদা বেড়েছে ।

দামি ও কার্যকর এ ড্রোনগুলো তুরস্কের বায়কার কোম্পানি তৈরি করেছে। এ ড্রোনগুলো যুদ্ধের গতিপ্রকৃতিই বদলে দিচ্ছে। ২০২০ সালে এ ড্রোনগুলো যে তিন দেশে (সিরিয়া, লিবিয়া ও আজারবাইজান) ব্যবহৃত হয়েছে সেখানকার প্রতিপক্ষ বাহিনীর ট্যাংক, আর্মড ভেইকল, গোলা-বারুদের গুদাম ও বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংস করেছে।


বিভিন্ন গণমাধ্যমের দেয়া তথ্য মতে, মাত্র ১০ বছরেরও কম সময়ের মধ্যে তুরস্ক ড্রোন নির্মাণে যুক্তরাষ্ট্র, ইসরাইল ও চীনের মতো প্রভাবশালী দেশে পরিণত হয়েছে।

প্রচুর চাহিদা সম্পন্ন এ বায়রাখতার টিবি-২ ড্রোন চারটি মিসাইল বহন করতে পারে। এ ড্রোনগুলো নির্ভুলভাবে আক্রমণ পরিচালনা করতে পারে।

সাম্প্রতিক সময়ে তুর্কি ড্রোনগুলো বিস্ময়কর সাফল্য লাভ করেছে। এ ড্রোনগুলো সিরিয়া ও লিবিয়াতে মোতায়েনকৃত রাশিয়ার ব্যয়বহুল ও শক্তিশালী পানসির বিমানবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাকে অকার্যকর করে দিয়েছে। এছাড়া আর্মেনিয়ায় মোতায়েনকৃত রাশিয়ার মিসাইল ব্যবস্থাকে অকার্যকর করে দিয়েছে এ ড্রোনগুলো।

সূত্র : ইয়েনি শাফাক



আরো সংবাদ


অবিরাম বৃষ্টি আর যানজটে নাকাল রাজধানীবাসী তথ্য প্রতিমন্ত্রী মুরাদের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীকে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি ডেনমার্কে ‘ওমিক্রন’ ধরণে আক্রান্তের সংখ্যা দ্রুত বাড়ছে চকরিয়ায় র‌্যাবের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২ ৫ দিন সাগরে ভাসতে থাকা ১৩ জেলে উদ্ধার ওমিক্রন আতঙ্কের মাঝেই ভারতে আসছেন পুতিন মুম্বাই বিমানবন্দরে আটকে দেয়া হলো অভিনেত্রী জ্যাকলিনকে বাংলাদেশ তলাবিহীন নয়, এখন একটা উপচে পড়া ঝুড়ি : তথ্যমন্ত্রী ইউক্রেনে সম্ভাব্য রুশ হামলার খবর হেসে উড়িয়ে দিলেন জাখারোভা করোনায় বিশ্বে মৃতের সংখ্যা ৫২ লাখ ৭০ হাজার ছাড়িয়েছে ওমিক্রন বাড়ছে, আমেরিকা ও ব্রিটেন সফরে শর্ত

সকল

বাংলাদেশ ভারতের পক্ষে যাবে না (১৭৫২৮)এরদোগানকে হত্যার চেষ্টা! (১৬৩৫৫)`আগামীতে পিছা মার্কা আনমু, নৌকা মার্কা আনমু না’ - নির্বাচনে হেরে নৌকার প্রার্থী (৮৩১১)ইরানের নাতাঞ্জ পরমাণু স্থাপনার কাছে বিস্ফোরণ (৭৭৭৮)আইভী আবারো নৌকা পাওয়ার নেপথ্যে (৭৫৩৭)স্বামীর সাথে সম্পর্ক! গৃহকর্মীকে খুন করে লাশ ঝাউবনে ফেললেন গৃহকর্ত্রী (৬৭৩৮)নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনের ফরম কিনলেন বিএনপির ২ শীর্ষ নেতা (৬০১৬)ইরানের আকাশ প্রতিরক্ষা ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ (৪৯০৯)আলেম-ওলামা ও তৌহিদী জনতার নিঃশর্ত মুক্তির দাবি হেফাজতের (৪০১২)রুশ অস্ত্র কিনলে নিষেধাজ্ঞা, ভারতকে বার্তা যুক্তরাষ্ট্রের (৩৭৬১)