১৩ মে ২০২১
`

রাশিয়ার কাছে হারানো পতাকা ফেরত আনতে আদালতে তুর্কি নাগরিক

উসমানিয়া সাম্রাজ্যের সামরিক পতাকা - ছবি : সংগৃহীত

প্রথ্ম বিশ্বযুদ্ধে তুরস্কের পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ এরজুরুমে রাশিয়ার আগ্রাসনের সময় রুশ বাহিনীর কাছে হারানো তৎকালীন উসমানিয়া সাম্রাজ্যের ১০টি সামরিক পতাকা ফেরত আনতে আদালতের দারস্থ হয়েছেন এক তুর্কি নাগরিক। গত বৃহস্পতিবার তুরস্কের আদালতে রাশিয়া থেকে এই পতাকাগুলো ফেরত আনার জন্য আবেদন করেন সৌখিন ঐতিহাসিক ও লেখক উমিদ তোপাল।

ওই আবেদনের আর্জিতে বলা হয়, ১৯১৬ সালে রুশ বাহিনীর কাছে হারানো এই পতাকা তুর্কি জাতির 'সম্মানের' প্রতিনিধিত্ব করে এবং তা অবশ্যই ফিরিয়ে আনতে হবে।

প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময়ে তৎকালীন উসমানিয়া সাম্রাজ্যের পূর্বাঞ্চলীয় এরজুরুম প্রদেশে ১৯১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে হামলা করে রাশিয়া। রক্তক্ষয়ী এক যুদ্ধের পর রুশ বাহিনী এরজুরুম তদখন করে নেয়। এই যুদ্ধে উসমানিয়া সেনাবাহিনীর প্রায় ১০ হাজার সৈন্য নিহত হয়।

 

উসমানিয়া সামরিক পতাকা নিয়ে রুশ সেনা কর্মকর্তারা- ছবি : ডেইলি সাবাহ

 

যুদ্ধের পর রুশ বাহিনী বিজয়ের স্মারকস্বরূপ উসমানিয়া সেনাবাহিনীর ১০টি সামরিক পতাকা জব্দ করে নিয়ে হাজার হাজার বন্দীকে রাশিয়ায় নিয়ে যায়। দুই বছর পর রাশিয়ার বলশেভিক বিপ্লবের পরিপ্রেক্ষিতে এরজুরুম রুশ দখলমুক্ত হয়ে তুরস্কের সাথে যুক্ত হয়।

তুর্কি বার্তা সংস্থা দেমিরোরেন নিউজ এজেন্সির সাথে সাক্ষাতকারে তোপাল বলেন, এরজুরুমের আজিজিয়ে দুর্গ থেকে এই পতাকাগুলো রুশ বাহিনী জব্দ করে। বর্তমানে রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গের হার্মিটেজ জাদুঘরে এই পতাকাগুলো সংরক্ষিত রয়েছে।

তিনি বলেন, 'পতাকার সাথে সাথে এরজুরুম শহরের ক্লক টাওয়ারের ঘড়ি, দুর্গের দরজা, ব্যবহার্য বস্তু ও পুস্তক নিয়ে যাওয়া হয়, যা পরে রাশিয়ার লাইব্রেরিগুলোতে নিয়ে যাওয়া হয়।'

তবে পতাকা হারানোকে বেশি বেদনাদায়ক বলে মন্তব্য করেন তোপাল।

তুরস্কের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও প্রাদেশিক সরকারের ঐতিহাসিক তথ্য সংরক্ষণ দপ্তরে সংশ্লিষ্ট তথ্যপ্রমাণ জমা দিয়েছেন বলে সাক্ষাতকারে জানান উমিদ তোপাল।

সূত্র : ডেইলি সাবাহ



আরো সংবাদ