০৬ মার্চ ২০২১
`

পশ্চিম আফ্রিকা উপকূলে জলদস্যুর কবলে তুর্কি জাহাজ : নিহত ১, অপহৃত ১৫

পশ্চিম আফ্রিকা উপকূলে জলদস্যুর কবলে তুর্কি জাহাজ : নিহত ১, অপহৃত ১৫ - ছবি সংগৃহীত

পশ্চিম আফ্রিকা উপকূলে তুর্কি এক কার্গো জাহাজে হামলা করে জলদস্যুরা ওই জাহাজের এক ক্রুকে হত্যা ও অপর ১৫ জনকে অপহরণ করেছে। শনিবার গিনি উপসাগরে এই হামলার ঘটনা ঘটে বলে তুরস্কের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আনাদোলু এজেন্সি জানায়।

তুরস্কের সামরিক বাহিনী উদ্ধার অভিযানের জন্য এরমধ্যেই প্রস্তুতি নিচ্ছে।

তুরস্কের মেরিটাইম ডাইরেক্টরেট রোববার জানায়, জলদস্যুর হামলার পরিপ্রেক্ষিতে এমভি মোজার্ট নামের ওই জাহাজের ক্রুরা প্রাথমিকভাবে জাহাজের নিরাপদ স্থানে সরে যেতে সক্ষম হয়েছিল। কিন্তু জলদস্যুরা ছয় ঘণ্টা পর ওই স্থানে জোর করে প্রবেশ করে। এসময় সংঘর্ষে একজন নিহত হন।

তুর্কি সংবাদমাধ্যমে জানানো হয়েছে, নিহত ওই ক্রু জাহাজটির একমাত্র বিদেশি ক্রু। ফারমান ইসমাইলভ নামের এই ক্রু আজারবাইজানের নাগরিক।

আনাদোলু এজেন্সির সংবাদে জানানো হয়, অপহৃত ক্রুদের নিয়ে মাত্র তিন নাবিককে রেখে গিনি উপসাগরে জাহাজটি ছেড়ে যায় জলদস্যুরা। বর্তমানে জাহাজটি গ্যাবনের বন্দর পোর্ট-গেন্টিল অভিমুখে চলছে।

তুর্কি প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান জাহাজে থাকা সিনিয়র কর্মকর্তা ফুরকান ইয়ারেনের সাথে দুইবার কথা বলেছেন বলে তুরস্কের প্রেসিডেন্টের দফতর এক টুইট বার্তায় জানায়। টুইট বার্তায় আরো বলা হয়, জাহাজের অপহৃত ক্রুদের উদ্ধারের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থার নির্দেশ দিয়েছেন এরদোগান।

ফুরকান ইয়ারেন জানিয়েছেন, জলদস্যুরা সবাইকে মারধর করেছে। মারধরে তিনি পায়ে আঘাত পেয়েছেন। এ ছাড়া জাহাজে থাকা অপর একজন বিস্ফোরণের শার্পনেলের আঘাতে আহত হয়েছেন।

লাইবেরিয়ার পতাকাবাহী মোজার্ট জাহাজটি নাইজেরিয়ার লাগোস বন্দর ছেড়ে দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউন অভিমুখে যাত্রা করেছিল। শনিবার সকালে সাও তোমে অ্যান্ড প্রিন্সিপের দ্বীপের এক শ’ ন্যটিক্যাল মাইল উত্তর-পশ্চিমে জলদস্যুরা জাহাজটির ওপর হামলা করে।

তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভুশওলু ইতোমধ্যেই আজারবাইজানি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে কলা বলেছেন। নিহত আজারবাইজানি নাগরিকের জন্য শোক প্রকাশ করে তিনি জানান, জাহাজটি বন্দরে পৌঁছার সাথে সাথে নিহতের লাশ হস্তান্তর করা হবে।

প্রকাশিত সংবাদ অনুসারে, জলদস্যুরা জাহাজের নেভিগেশন সিস্টেম ছাড়া বাকি সব সিস্টেম বিকল করে দিয়েছে।

ইন্টারন্যাশনাল মেরিটাইম ব্যুরোর সূত্রানুসারে, নাইজেরিয়া, গিনি, টোগো, বেনিন ও ক্যামেরনের উপকূলের গিনি উপসাগরের সমুদ্রপথ জলদস্যুতার কারণে বিশ্বের সবচেয়ে বিপজ্জনক সমুদ্রপথ।

২০১৯ সালের জুলাই মাসে নাইজেরিয়া উপকূলে ১০ তুর্কি নাবিককে জলদস্যুরা অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরে এক মাসের কম সময়ে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়।

সূত্র : আলজাজিরা



আরো সংবাদ


নোয়াখালীতে হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যাওয়া রোহিঙ্গা নারী ফিরে এলেন আওয়ামী পন্থী আইনজীবীদের সংঘর্ষে আহত এমপি জাকিয়া হাসপাতালে রায়হানপুরে ভোট কেন্দ্র পুনঃস্থাপনের দাবিতে মানববন্ধন ইরাকে শান্তির আহ্বান পোপের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল চান ড. কামাল করোনাভাইরাস : দুই ডোজ টিকার আগে পুরোপুরি নিরাপদ নয় কুমারখালীতে আ’লীগের দু’গ্রুপের দ্বন্দ্বে সভা পণ্ড, পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন নবীনগরে সড়ক দুর্ঘটনায় ২ শিক্ষার্থী নিহত গাজীপুরে কেমিক্যাল গুদামে আগুন : নিহত ১, আহত ১২ অন্ধ হাফেজের সাফল্য গাঁথা অধ্যায়, পাগড়ি নিলেন ১০ অন্ধসহ ২০০ হাফেজ-হাফেজা উত্তর সিরিয়ায় তেল শোধনাগারে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা : নিহত ১

সকল