২৪ নভেম্বর ২০২০

দেশে বিক্রয়োত্তর সেবায় ‘সেরা ব্র্যান্ড’ শাওমি

-

ভারতের শীর্ষস্থানীয় কনজ্যুমার ইন্টেলিজেন্স ফার্ম রেডকোয়ান্টা শাওমিকে বাংলাদেশে বিক্রয়োত্তর সেবায় ‘সেরা ব্র্যান্ড’ হিসেবে ঘোষণা করেছে। গবেষণা প্রতিষ্ঠান রেডকোয়ান্টা প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শাওমি বাংলাদেশে ২০১৯ সালের চতুর্থ প্রান্তিকে বিক্রয়োত্তর সেবায় ‘সেরা ব্র্যান্ড’ হিসেবে উঠে এসেছে। পাঁচ শতাধিক প্রতিনিধির ওপর জরিপে এমন তথ্য দিয়েছে রেডকোয়ান্টা। যেখানে সমস্যা সমাধান প্রক্রিয়ার গতিকে প্রধান লক্ষ্য হিসেবে ধরা হয়েছিল।
শাওমি বিক্রয়োত্তর গ্রাহকসেবার বাইরে অন্যান্য ক্ষেত্রে বিশেষ করে অবকাঠামো এবং পরিবেশ, সমস্যা সমাধান ও কর্মীদের সেসব বিষয়ে জ্ঞান বৃদ্ধিতেও উন্নতি করেছে। ২০১৯ সালের তৃতীয় প্রান্তিক থেকে ২০২০ সালের প্রথম প্রান্তিক পর্যন্ত সময়ে বিক্রয়োত্তর সেবায় ক্রমাগত উন্নতি করেছে শাওমি। আর এই সময়ে অন্য ব্র্যান্ড বিশেষ করে স্যামসাং এবং হুয়াওয়ের থেকে শাওমির সেবার ব্যবধান ধীরে ধীরে বেড়েই চলেছে।
শীর্ষস্থানীয় ব্র্যান্ডগুলো গ্রাহকদের বিক্রয়োত্তর সেবা দিতে কতটা প্রতিশ্র“তিবদ্ধ তা বোঝার জন্য পরিচালিত জরিপে সাধারণ গ্রাহক তার স্মার্টফোন মেরামত বা সার্ভিস পাবার ক্ষেত্রকে পাঁচটি বিভাগে ভাগ করা হয়েছে। এগুলো হলোÑ সেবা দেয়ার অবকাঠামো ও পরিবেশ, সেবার সহজলভ্যতা, কর্মীদের ব্যবহার, সমস্যা সমাধানের সময়সীমা এবং সমস্যা সমাধানের গুণগত মান। এই সেবাগুলোর প্রত্যেকটির আলাদা আলাদা করে স্কোর এবং তা বিশ্লেষণ করা হয়। ঢাকা এবং অন্যান্য বড় শহরগুলোতে দেশের শীর্ষস্থানীয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ড শাওমি, স্যামসাং ও হুয়াওয়ের ওপর জরিপটি করা হয়েছে ।
শাওমি বাংলাদেশ-এর কান্ট্রি জেনারেল ম্যানেজার জিয়াউদ্দিন চৌধুরী বলেন, শাওমি বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত গর্বের যে, এই সময়ে বিক্রয়োত্তর সেবায় বাংলাদেশে সেরা ব্যান্ড হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে। এটি অবশ্যই আমাদের লক্ষ্য পূরণে গ্রাহকদের অভিজ্ঞতা বাড়িয়ে আরও কাছাকাছি নিয়ে আসতে এবং শাওমির সাথে গ্রাহকদের সংযোগ আরও বাড়াতে সহায়তা করেছে। সেবার মান অবশ্যই আমাদের কাছে সফলতার অন্যতম একটা স্তম্ভ এবং সারা দেশে বিক্রয়োত্তর এবং গ্রাহক সেবায় সর্বোত্তম উদ্ভাবনী ব্যবস্থাগুলো বাস্তবায়নে আমাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

 


আরো সংবাদ