২০ আগস্ট ২০২২
`

পঞ্চম শ্রেণীর প্রস্তুতি : ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা- পর্বসংখ্যা-৪৪

দ্বিতীয় অধ্যায় : ইবাদত
-


প্রিয় পঞ্চম শ্রেণীর শিক্ষার্থী বন্ধুরা, শুভেচ্ছা নিয়ো। আজ তোমাদের ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা বিষয়ের ‘দ্বিতীয় অধ্যায় : ইবাদত’ থেকে ৭টি সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন উত্তর নিয়ে আলোচনা করা হলো।
সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন উত্তর
প্রশ্ন : ইবাদত কাকে বলে?
উত্তর : ইবাদত আরবি শব্দ। ইবাদত শব্দের অর্থ হলো আনুগত্য, দাসত্ব, বন্দেগি ইত্যাদি। আর ইসলামী পরিভাষায় দৈনন্দিন জীবনের সকল কাজকর্মে আল্লাহ তায়ালার বিধিবিধান মেনে চলাকে ইবাদত বলা হয়।
প্রশ্ন : আল্লাহ আমাদের কেন সৃষ্টি করেছেন?
উত্তর : আমরা আল্লাহর বান্দা। তাঁর ওপর বিশ্বাস স্থাপন করা আমাদের অবশ্য কর্তব্য। আল্লাহ তায়ালা আমাদের সৃষ্টির উদ্দেশ্য সম্পর্কে পবিত্র কুরআনে বলেছেন, ‘জিন ও মানব জাতিকে আমি (আল্লাহ) আমার ইবাদতের জন্যই সৃষ্টি করেছি।’ অতএব, আল্লাহ তায়ালা আমাদের তাঁর ইবাদতের জন্য সৃষ্টি করেছেন।
প্রশ্ন : ইসলামের রুকন কয়টি ও কী কী?
উত্তর : ইসলাম আল্লাহ তায়ালার মনোনীত একমাত্র জীবনব্যবস্থা। ইসলামের রুকন পাঁচটি।
যথা-১. ইমান আনয়ন করা,
২. সালাত আদায় করা,
৩. জাকাত প্রদান করা,
৪. হজ পালন করা ও ৫. রমজানের সাওম পালন করা।
প্রশ্ন : পাঁচ ওয়াক্ত সালাতের নাম লিখ।
উত্তর : সালাত একটি মৌলিক ফরজ ইবাদত। এটি ইসলামের দ্বিতীয় রুকন। দৈনিক পাঁচ ওয়াক্ত সালাত আদায় করা ফরজ। পাঁচ ওয়াক্ত সালাতের নাম হলো- ১. ফজর, ২. জোহর, ৩. আসর, ৪. মাগরিব ও ৫. এশা।
প্রশ্ন : সালাতের নিষিদ্ধ সময়গুলো কী কী?
উত্তর : আমরা নিয়মিত পাঁচ ওয়াক্ত ফরজ সালাত আদায় করি। এ ছাড়া সুন্নত ও নফল সালাতও আদায় করি। দিনের সব সময় সালাত আদায় করা যায় না। সালাত আদায়ের কিছু নিষিদ্ধ সময় রয়েছে। সালাতের নিষিদ্ধ সময় হলো- ১. ঠিক সূর্যোদয়ের সময়, ২. ঠিক দ্বিপ্রহরের সময় ও ৩. সূর্যাস্তের সময়।
প্রশ্ন : মুসাফির কাকে বলে?
উত্তর : মুসাফির আরবি শব্দ। এর অর্থ- সফরকারী বা ভ্রমণকারী। কোনো ব্যক্তি তিন দিনের রাস্তা বা ৪৮ মাইল দূরে গমনের নিয়ত করে বাড়ি থেকে বের হলে তাকে মুসাফির বলে।
প্রশ্ন : আহকাম কাকে বলে?
উত্তর : সালাতের প্রস্তুতিতে কিছু কাজ রয়েছে। সালাতের প্রস্তুতিমূলক এসব কাজ বা সালাত শুরু করার আগে যে ফরজ কাজগুলো আছে, সেগুলোকে সালাতের আহকাম বা শর্ত বলে।

 

 


আরো সংবাদ


premium cement