১৯ অক্টোবর ২০২১, ৩ কার্তিক ১৪২৮, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরি
`

অনলাইন শিক্ষায় এনআইএসটি

-

স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়সমূহ দীর্ঘদিন বন্ধ। এ অবস্থা থেকে পরিত্রাণের বিকল্প উপায় খুঁজছে সবাই। অনলাইন কার্যক্রমের ব্যবহার আগের তুলনায় অনেক বেড়ে গেছে। একাডেমিক ও প্রশাসনিক শিক্ষা কার্যক্রম সফলতার সাথে সম্পন্ন করে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে ড্যাফোডিল পরিবার কর্তৃক পরিচালিত ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি (এনআইএসটি)। শিক্ষা কার্যক্রমকে সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করতে এনআইএসটিকে যে বিষয়টি সবচেয়ে বেশি সফলতা দিয়েছে তা হলো সম্পূর্ণ অটোমেশন এবং প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ ডিজিটাইজেশনের লক্ষ্যে যে শক্তিশালী টুলসগুলো ব্যবহার করছে বিশেষ করে নিজস্ব লার্নিং ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (খগঝ), ব্লেন্ডেড লার্নিং সিস্টেম (ইখঈ) এবং ‘গো এডু’ (এড়বফঁ) প্ল্যাটফর্ম। এই সব সুবিধা একসাথে ওহঃবমৎধঃব করে ঝসধৎঃ ঊফঁ নামে একটি প্ল্যাটফর্ম তৈরি করা হয়েছে। যার মাধ্যমে প্রশাসনিক কার্যক্রমও পরিচালনা ও মনিটরিং করা সম্ভব হচ্ছে। খগঝ ডিজিটাল টিচিং এবং লার্নিং-এর হাব হিসেবে কাজ করছে। অনলাইন শিক্ষার একমাত্র উপকরণই কম্পিউটার আর সেই সাথে তার চালিকাশক্তি ইন্টারনেট সংযোগ এবং ঝসধৎঃ ঊফঁ প্ল্যাটফর্ম। এ দুই-এর সুবন্দোবস্ত থাকলে দূরত্ব কোনো বাধা নয়। যেকোনো স্থানে বসেই লেখাপড়া চালিয়ে নেয়া সম্ভব। এক যুগ আগেই ২০০৮ সালে দেশবরেণ্য তথ্য-প্রযুক্তিবিদ, স্বপ্নবাজ ও উদ্যোক্তা উন্নয়নের রূপকার ড্যাফোডিল পরিবারের চেয়ারম্যান ড. মো. সবুর খান তার দূরদর্শিতা দিয়ে এ বিষয়টি গুরুত্বের সাথে অনুধাবন করতে পেরেছিলেন। তাই তথ্য প্রযুক্তিকে শিক্ষার্থীর এবং শিক্ষার গুণগত মান উন্নয়নের কাজে লাগানো, লেখাপড়ার পাশাপাশি তথ্যপ্রযুক্তিতে নিজেদের দক্ষতা বৃদ্ধির সাথে সাথে তথ্য প্রযুক্তির ক্রমবিকাশমান ধারার সাথে প্রতিটি শিক্ষার্থীকে যুগোপযোগী করে তুলতে এবং প্রতিযোগিতামূলক চাকরির বাজারে দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ ও ওয়ার্কশপ/প্রজেক্ট করানোর মাধ্যমে দক্ষ ও চাকরি উপযোগী করে গড়ে তোলা হয়। শুধু তাই নয় প্রথম থেকেই এনআইএসটির সব শিক্ষা কার্যক্রম এই প্ল্যাটফর্মের আওতায় আনা হয়। পূর্ব অভিজ্ঞতা থাকায় লকডাউনের শুরু থেকেই এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা অনলাইন শিক্ষায় পারদর্শিতার প্রমাণ রেখে চলেছেন এবং শিক্ষার্থীরাও প্রযুক্তির সাথে অভ্যস্ত হয়ে পড়েছেন। সব ধরনের একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম পরিচালনা ও শিক্ষকদের জন্য প্রায় শতভাগ সহজতর হয়েছে। এই ঝসধৎঃ ঊফঁ প্ল্যাটফর্মের লক্ষ্য হচ্ছে শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীদের কার্যকরভাবে সংযুক্ত রেখে প্রতিটি শিক্ষার্থীর অগ্রগতি ট্র্যাক করা ও স্বতন্ত্র মূল্যায়ন নিরীক্ষণ এবং তাদের শেখাকে সহজতর করতে অধিকতর সহযোগিতা দেয়া। ঝসধৎঃ ঊফঁ প্ল্যাটফর্ম শক্তিশালী কিন্তু সহজ লার্নিং ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম। কোর্স তৈরি, সেগুলো ঠিকমতো সাজিয়ে পরিবেশন, ই-লার্নিং এর সুবিধাসহ যোগাযোগ ও অন্যান্য সব প্রশাসনিক এবং একাডেমিক কার্যক্রম পরিচালনা করার ওয়ান স্টপ সমাধান। শক্তিশালী চষঁমরহং এবং ওহঃবমৎধঃরড়হ একটি বাস্তব উদাহরণ হলো এই প্ল্যাটফর্ম। শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের জন্য ব্যবহার ও পরিচালনা করা খুব সহজ। প্ল্যাটফর্মটিতে একটি ‘ড্র্যাগ অ্যান্ড ড্রপ’ কোর্স বিল্ডার রয়েছে যা শিক্ষকদের সহজেই কোর্স তৈরি এবং সেগুলো ছাত্রছাত্রীদের জন্য অনলাইনে প্রকাশ করতে সহায়তা করে। কোর্স উপকরণ, ক্লাসের রেকর্ডিং, যেকোনো একাডেমিক ভিডিও, অডিও, পাওয়ারপয়েন্ট, গুগল ড্রাইভ এ সংরক্ষিত রিসোর্স, ডেস্কটপ থেকেও যেকোনো ফাইল এমনকি এখানে সংযুক্ত করবার সুবিধা রয়েছে। প্ল্যাটফর্মটিতে প্রয়োজনীয় চষঁমরহং এবং ওহঃবমৎধঃরড়হ সহ ২৫টিরও বেশি ইনবিল্ট ফিচার রয়েছে যা, পড়াশোনার কাজে সংযুক্ত রাখবার জন্য ব্যবহার করা সম্ভব। যোগাযোগ : ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি, ১৯/১, পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা। ফোন: ০১৭১৩৪৯৩১৯৬

 



আরো সংবাদ