২৮ জানুয়ারি ২০২১
`

একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণীর প্রস্তুতি : বাংলা প্রথমপত্র গল্প : অপরিচিতা

-

সুপ্রিয় একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থী বন্ধুরা, শুভেচ্ছা নিয়ো। আজ তোমাদের বাংলা প্রথমপত্র বিষয়ের ‘গল্প : অপরিচিতা’ থেকে আরো ৩টি অনুধাবনমূলক প্রশ্ন ও উত্তর নিয়ে আলোচনা করা হলো।
প্রশ্ন : কল্যাণী বিয়েতে রাজি হয়নি কেন?
উত্তর : বিয়ে ভাঙার পর থেকেই কল্যাণী মেয়েদের শিক্ষার ব্রত গ্রহণ করছে।
মায়ের সাথে তীর্থযাত্রায় গাড়িতে কল্যাণীকে দেখে মুগ্ধ হয়ে অনুপম বিয়ের প্রস্তাব নিয়ে যায় বাড়িতে। কিন্তু কল্যাণী তাকে ‘মাতৃ-আজ্ঞা’ এই দোহাই দিয়ে ফিরিয়ে দেয়। তারপর অনুপম বুঝতে পারে মাতৃভূমির কল্যাণে ব্রত গ্রহণ করেছে বলে কল্যাণী তাকে ফিরিয়ে দেয়।
প্রশ্ন : ‘মৃত্যুতে তিনি যে হাঁফ ছাড়িলেন সেই তাঁর প্রথম অবকাশ’Ñ বলতে কী বুঝানো হয়েছে?
উত্তর : নায়ক অনুপমের বাবার অবকাশ যাত্রা সম্পর্কে বুঝানো হয়েছে।
অনুপমের বাবা এককালে গরিব ছিলেন। পরে ওকালতি করে প্রচুর টাকা উপার্জন করেন। কিন্তু তা ভোগ করার সময় পাননি। তাই মৃত্যুর মধ্য দিয়েই তার অবকাশ যাত্রা শুরু হয়।
প্রশ্ন : মামাকে কেন অনুপমের ভাগ্যদেবতার প্রধান এজেন্ট বলা হয়েছে?
উত্তর : অনুপমের পিতার মৃত্যুর পর থেকে সংসারে অনুপমের মামা অভিভাবক হওয়াতে ভাগ্যদেবতার প্রধান এজেন্ট বলা হয়েছে।
সংসারের সকল কাজকর্মের মতো অনুপমের বিয়ের সম্পর্কেও মামার বিশেষ অভিমতের গুরুত্ব ছিল। ধনীর কন্যা মামা পছন্দ না করলেও টাকার প্রতি আসক্তি ছিল তার অস্থিমজ্জায় জড়িত। তিনি এমন বেহাই চান যার টাকা নেই অথচ যে টাকা দিতে কোনো কার্পণ্য করবে না। তাই মামার মতামত ও আদর্শেই অনুপমের জীবনের গুরুত্বপূর্ণ কাজ সম্পন্ন হয় বলেই তাকে এ পৃথিবীতে তার ভাগ্যদেবতার প্রধান এজেন্ট বলা হয়েছে।



আরো সংবাদ