০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৩ মাঘ ১৪২৮, ১৪ রজব ১৪৪৪
ads
`

গ্রেফতারের পর ফের কারাগারে ঝুমন দাস

গ্রেফতারের পর ফের কারাগারে ঝুমন দাস - ছবি : নয়া দিগন্ত

আদালতের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে ফের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে উস্কানিমূলক পোস্ট দেয়ার অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে আবারো কারাগারে পাঠানো হলো সুনামগঞ্জ-শাল্লার আলোচিত ঝুমন দাসকে।

বুধবার আদালতের রায়ে তাকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। তার আগে মঙ্গলবার সকালে উস্কানিমূলক পোস্ট দেয়ায় অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

শাল্লা থানা সূত্রে জানা যায়, ২০২১ সালের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় গ্রেফতার হয়ে জেলে থাকা অবস্থায় জামিনের জন্য হাইকোর্টে আবেদন করেন ঝুমন দাস (২৬)। ছয় মাস কারাভোগের পর শর্ত সাপেক্ষে মুক্তি পান তিনি। কিন্তু জেল থেকে বের হয়েই আদালতের দেয়া শর্ত অমান্য করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লেখালেখিসহ নানা অপরাধে জড়িয়ে পড়ার অভিযোগ ওঠে। সম্প্রতি তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করে উস্কানিমূলক কয়েকটি স্ট্যাটাস দিলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নজরে পড়ে। পরে মঙ্গলবার দিনভর থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রাতে শাল্লা থানার পুলিশ ঝুমন দাসের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে আরেকটি মামলা করে।

পুলিশ জানায়, ফেসবুকে একের পর এক উস্কানিমূলক পোস্ট করার কারণে নোয়াগাঁও গ্রামে গত কয়েকদিন ধরে আবারো উত্তেজনা দেখা দেয়। তিন দিন যাবত নোয়াগাঁও গ্রামের নিরাপত্তার জন্য পুলিশ মোতায়েন করা হয়। মঙ্গলবার প্রথমে আটক করে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু সুফিয়ানের উপস্থিতিতে দিনভর ঝুমনকে জিজ্ঞাসাবাদ চলে। রাতে থানা পুলিশ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করার পর তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বুধবার তাকে সুনামগঞ্জ আদালতে হাজির করা হয় ।

সুনামগঞ্জ কোর্টের পুলিশ পরিদর্শক বুরহান উদ্দিন জানান, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় গ্রেফতার ঝুমনকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন শাল্লা আদালতের বিচারক।


আরো সংবাদ


premium cement