০৭ জুলাই ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ৭ জিলহজ ১৪৪৩
`

সিলেটে ঘুষ দিতে গিয়ে যুবক আটক

সিলেটে ঘুষ দিতে গিয়ে যুবক আটক। - ছবি : সংগৃহীত

সিলেট সিটি করপোরেশনে (সিসিক) চাকরির জন্য ঘুষ দিতে গিয়ে আটক হয়েছে এক যুবক। ঘুষ দেয়ার সময় তাকে হাতেনাতে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেছে সিসিক কর্মকর্তা।

ওই যুবকের নাম শুভ হাসান। তিনি দক্ষিণ সুরমা উপজেলার সিলাম মাঝপাড়ার মৃত হুশিয়ার আলীর ছেলে।

জানা গেছে, ঘুষ দিতে আসা যুবকের চাকরির জন্য মেয়রের কাছে লিখিত সুপারিশ করেছিলেন সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিব। তবে ঘুষ দেয়ার চেষ্টার অভিযোগ শোনার পর তাকে পুলিশে দেয়ার পরামর্শ দেন তিনি। পরে মঙ্গলবার বিকেলে তাকে পুলিশে সোর্পদ করা হয়।

সিটি করপোরেশন সূত্রে জানা গেছে, গত বছরের ডিসেম্বর মাসে শুভ হাসান মেয়র বরাবর চাকরির জন্য একটি আবেদন করেন। ওই আবেদনে সুপারিশ করেন সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিব। তিনি আবেদনের পাশে লিখেন ‘আরিফ ভাই, দয়া করে চাকরিটার ব্যবস্থা করে দিবেন।’

জানা যায়, সংসদ সদস্যের সুপারিশকৃত আবেদনটি পাওয়ার পর মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী শুভ হাসানকে চাকরি দেয়া যায় কি-না তা বিবেচনার জন্য প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে পাঠান। এরপর আবেদনপত্রটি কয়েকটি দফতর ঘুরে প্রশাসনিক শাখায় যায়। মঙ্গলবার ওই যুবক হাবিব এমপির নামে ছাপানো জাতীয় সংসদের একটি খাম নিয়ে সিটি করপোরেশনের প্রশাসনিক কর্মকর্তা হানিফুর রহমানের কাছে যান। এমপি হাবিব ওই খামটি হানিফকে দিয়েছেন বলে জানায় শুভ। খাম খুলে টাকা দেখতে পেয়ে শুভকে সাথে সাথে মেয়রের কাছে নিয়ে যান হানিফ। তখন খাম খুলে ভেতরে পাঁচ হাজার টাকা দেখতে পেয়ে টাকা নিয়ে আসার কারণ জানতে চাইলে শুভ জানায়, চাকরির জন্য ঘুষ দিতে তিনি ওই টাকা নিয়ে এসেছে। বিষয়টি সাথে সাথে ফোনে এমপি হাবিবুর রহমাকে অবগত করেন মেয়র আরিফ। তখন হাবিব ওই যুবককে পুলিশে সোর্পদ করতে বলেন।

সিলেট সিটি করপোরেশনের প্রশাসনিক কর্মকর্তা হানিপুর রহমান হানিফ নয়া দিগন্তকে জানান, শুভ নামের ওই যুবকের আচরণেই বোঝা যাচ্ছিল তিনি হাবিবুর রহমান এমপি’র নাম ভাঙিয়ে ফায়দা হাসিলের চেষ্টা করছে। পরে এমপির পরামর্শে তাকে পুলিশে দেয়া হয়েছে।

কোতোয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আলী মাহমুদ জানান, ঘুষ দিয়ে চাকরি পাওয়ার চেষ্টার অভিযোগে সিটি করপোরেশনে কর্মকর্তারা এক ব্যক্তিকে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেন। তবে এখন পর্যন্ত (সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা) সিসিকের পক্ষ থেকে কোনো লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়নি।


আরো সংবাদ


premium cement

সকল