২২ অক্টোবর ২০২০, ৭ কার্তিক ১৪২৪, ১ সফর ১৪৩৯

সুনামগঞ্জে পাহাড়ী ঢলে ভেসে গেল একশ’ কোটি টাকার বালি-পাথর

সুনামগঞ্জে পাহাড়ী ঢলে ভেসে গেল একশ’ কোটি টাকার বালি-পাথর - ছবি : নয়া দিগন্ত

সুনামগঞ্জে এক সাপ্তাহের টানা বর্ষণ ও আকস্মিক পাহাড়ি ঢলে উজান থেকে নেমে আসা বন্যার পানির তোড়ে সুনামগঞ্জের সদর উপজেলা, বিশ্বম্ভরপুর, ছাতক, জামালগঞ্জ ও তাহিরপুর উপজেলার বালি পাথর মহালে স্টকে রাখা একশ’ কোটি টাকার বেশি মূল্যের বালি ও পাথর ভেসে গেছে। শুধু তাই নয় এর সাথে অফিস ঘর পানি ও ঝড়ে উড়িয়ে নিয়ে গেছে।

সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা বালি ও পাথর ব্যবসায়ী আরিফ মিয়া জানান, আমি ব্যাংক ঋণ ও বিভিন্ন আত্মীয় স্বজনের কাছ থেকে ধার বালি স্টক করে রেখেছিলাম। ঢলের পানি আসার আগেও বালি বিক্রি করার কথা চলছিল। কিন্তু পাহাড়ী ঢলের পানি আমাদের সবকিছু কেড়ে নিয়ে নিঃস্ব করে দিয়েছে। এখন কিভাবে ঋণ পরিশোধ করব? কিভাবে আবার ব্যবসা শুরু করবো কিছুই বুঝতে পারছি না। 

তাহিরপুর উপজেলার মেসার্স রনি এন্টারপ্রাইজ এর স্বাত্তাধিকারী রায়হান উদ্দিন জানান, হঠাৎ করে পাহাড়ী ঢলে চোখের সামনে মুহুর্তের মধ্যেই আমার চার লাখ টাকার বেশি পাথর পাহাড়ী ঢলের পানির প্রবল চাপে ভেসে চলে গেছে।

আবেদ এন্টারপ্রাইজের মালিক সুমন আহমেদ জানান, ফাজিলপুর বালি ও পাথর মহালে স্টকে থাকা প্রায় ৭ লাখ টাকার বালি ও পাথর টানা বৃষ্টি ও পাহাড়ী প্রবল চাপে সম্পূর্ন ভেসে গেছে। কোনোভাবেই রক্ষা করা যায়নি। ব্যাংক থেকে লোন নিয়ে এই বালি ও পাথর মজুদ করে রেখেছিলাম। এমন পরিস্থিতির শিকার হতে হবে কোনো দিন ভাবিনি।

লাউড়েরগড় বালু ও পাথর ব্যবসায়ী সমিতির সাবেক সাধারণত সম্পাদক আজিম উদ্দিন জানান, এবার বন্যায় যাদুকাটা নদীর পাড়ে আমার স্টকে রাখা বালু, পাথর পাহাড়ী ঢলে ভেসে ও পাথর ভাঙ্গার মেশিনসহ ১০লাখ টাকার বেশি ক্ষতি হয়েছে। এখন পরিবার পরিজন নিয়ে খুবেই কষ্টের মাঝে আছি।


আরো সংবাদ