১১ জুলাই ২০২০

মৌলভীবাজারে সুরক্ষা ছাড়াই সেবা দিচ্ছেন ৩০০ স্বাস্থ্যকর্মী

মৌলভীবাজারে সুরক্ষা ছাড়াই সেবা দিচ্ছেন ৩০০ স্বাস্থ্যকর্মী - ছবি: নয়া দিগন্ত

করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে দেশের সরকারি-বেসরকারি অফিস ও সবধরণের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে। এরই মধ্যে চলছে মৌলভীবাজার জেলার স্বাস্থ্য বিভাগের টিকাদান কর্মসূচী।

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে কোনো ধরণের নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা ছাড়াই প্রত্যন্ত অঞ্চলে জেলার ৭টি উপজেলার ৬৭টি ইউনিয়নের ১৬০৮টি অস্থায়ী টিকাদান কেন্দ্রে অব্যাহত রয়েছে ইপিআই কার্যক্রম। প্রায় ৩০০ জন স্বাস্থ্য সহকারীরা কোরোধরণের সুরক্ষা ছাড়াই শিশু, গর্ভবতী মা ও কিশোরীদের টিকা দান কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন।

তারা ইতোপূর্বে বিষয়টি সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্তৃপক্ষ জেলা সিভিল সার্জন ডাক্তার তৌহিদ আহমেদকে লিখিত ও মৌখিকভাবে অবহিত করেছেন।

বাংলাদেশ স্বাস্থ্য সহকারী এসোসিয়েশন মৌলভীবাজার জেলা শাখার সভাপতি অমলেষ পুরাকায়স্ত জানান, করোনা ছোঁয়াচে ভাইরাস, যা মানুষের সংস্পর্সে ছড়ায়। আমরা স্বাস্থ্য সহকারীরা কাজ করি শিশু, মা ও কিশোরীদের সাথে গ্রাম থেকে গ্রামান্তরে। বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনা প্রতিরোধে কোনোধরণের পিপিই ছাড়াই আমরা সংক্রমণের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছি। অথচ  সরকার করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে দেশের সব কিছু বন্ধ করেছে। বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি আমাদের কোনো সিদ্ধান্ত দেওয়া হচ্ছে না।

জেলা সিভিল সার্জন ডাক্তার তৌহিদ আহমেদের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি ইপিআই কার্যক্রম চালু রয়েছে এ কথা স্বীকার করে বলেন, এ কর্মসূচী সরকারের গুরুত্বপুর্ণ বিষয়। আমরা উপর মহলের অপেক্ষায় আছি। কোনো নির্দেশনা ছাড়া বন্ধ করা যাবে না।


আরো সংবাদ