০৪ এপ্রিল ২০২০

সুনামগঞ্জে বিদেশফেরত ২২৮৮, কোয়ারেন্টাইনে ৪৩ জন

সুনামগঞ্জে বিদেশফেরত ২২৮৮, কোয়ারেন্টাইনে ৪৩ জন - ছবি : সংগৃহীত

সুনামগঞ্জ সংবাদদাতা

সুনামগঞ্জের বিভিন্ন উপজেলায় বিদেশ থেকে ফেরত এসেছেন ২ হাজার ২২৮ জন। এর মধ্যে মাত্র ৪৩ জন আছেন হোম কোয়ারেন্টানে। বাকীরা  স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না বলে অভিযোগ উঠেছে।

শুক্রবার জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এই বিষয়ে করণীয় নির্ধারণ সংক্রান্ত জরুরি সভায় এ তথ্য জানানো হয়।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় হুইপ পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ এমপি, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, সিভিল সার্জন ডা: শামছুদ্দিন, সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নাদের বখ্ত, সুনামগঞ্জ ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ আলী খুশনুর, সুনামগঞ্জ চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক এনামুল হক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় জানানো হয়, ১ মার্চ থেকে ১৭ মার্চ পর্যন্ত জেলার ১১ উপজেলা ও এক থানা এলাকায় ২ হাজার ২৮৮ জন প্রবাসী দেশে ফিরেছেন। এরমধ্যে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলায় এসেছেন ৪৩৯, বিশ^ম্ভরপুরে ৫৩, ছাতকে ৫৮৭, দোয়ারাবাজারে ২১৬, জগন্নাথপুরে ৫১২, দক্ষিণ সুনামগঞ্জে ২৫, দিরাইয়ে ১৭৯, শাল্লায় ২১, তাহিরপুরে ৪৪, জামালগঞ্জে ৭৯, ধর্মপাশায় ৫৫ ও মধ্যনগরে ১৩ জন দেশে ফিরেছেন। অন্যান্য জেলার ৬৫ জন প্রবাসী সুনামগঞ্জ জেলায় অবস্থান করছেন।

সভায় সংসদ সদস্য পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ তার বক্তব্যে বলেন, এই জেলায় হোম কোয়ারেন্টাইনের নির্দেশনা কাজে আসছে না। লাখ লাখ মানুষের ঝুঁকি তৈরি হচ্ছে প্রবাসীদের কারণে।

তিনি বিদেশফেরত সকলকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে আনার জন্য মন্ত্রণালয়ে নির্দেশনা চেয়ে প্রস্তাব পাঠানোর কথা উল্লেখ করেন। পরে এই প্রস্তাব সর্বসম্মতভাবে গৃহীত হয়। সভার সভাপতি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ জানান, সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আজই তারা প্রবাসীদের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে আনার প্রতি উপজেলায় একটি এবং অধিক প্রবাসী অধ্যুষিত এলাকায় একাধিক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন খোলার নির্দেশনা চেয়ে মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠাবেন।

এ দিকে জেলা প্রশাসন সর্তকতার জন্য জেলার সকল কমিউনিটি সেন্টার, হোটেল, রেস্তোরা, মিলনায়তনে যে কোনো ধরণের সামাজিক সমাবেশ, ওয়াজ মাহফিল, অনুষ্ঠান আয়োজনে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।


আরো সংবাদ