১৮ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১, ১১ মহররম ১৪৪৬
`

প্রবল বর্ষণে দার্জিলিং-কালিম্পং সড়ক বন্ধ

প্রবল বর্ষণে দার্জিলিং-কালিম্পং সড়ক বন্ধ - ছবি : সংগৃহীত

প্রবল বৃষ্টিপাত হচ্ছে ভারতের দার্জিলিংয়ে। একই সাথে তিস্তা নদীতে পানিস্ফীতি। এর জেরে পরিস্থিতি ক্রমশই খারাপ হচ্ছে। একাধিক রাস্তা বন্ধ হয়েছে হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

এদিকে বৃষ্টিতে পাহাড় দেখার জন্য় যারা কালিম্পং গেছে, সমস্যায় পড়তে পারে তারাও। এ কারণে পর্যটকদের সাবধান করা হয়েছে। কোনোভাবেই ঝুঁকি নিয়ে তারা যেন প্রবল বৃষ্টিতে রাস্তায় না বের হয় সে ব্যাপারে অনুরোধ করা হয়েছে।

প্রবল বৃষ্টিপাতে দার্জিলিং-কালিম্পং সড়ক প্রায় বন্ধ। মূলত তিস্তার পানি বৃদ্ধির জেরে পেশকের রাস্তার ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। এ কারণেই ওই এলাকায় গাড়ি চলাচল আপাতত বন্ধ করা হয়েছে। তিস্তাবাজার ও সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দাদেরও সতর্ক করা হয়েছে।

তিস্তাবাজার ও সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দাদের বিশেষভাবে সতর্ক করা হয়েছে। কালিম্পং জেলা প্রশাসন, দুর্যোগ মোকাবিলা দফতর গোটা পরিস্থিতির ওপর নজর রাখছে।

তবে ১০ নম্বর জাতীয় সড়ক পুরোপুরি বন্ধ করা হয়নি। কিন্তু অত্যন্ত সাবধানে যাতায়াত করার জন্য় বলা হয়েছে। কারণ একাধিক জায়গায় মূল রাস্তার ওপর পানি উঠে এসেছে। ফলে যেকোনো মুহূর্তে বড় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

এদিকে নতুন করে কিছু জায়গায় ধস নামতে শুরু করেছে। লিকুভির, রবিঝোরা এলাকায় সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

এর আগে, বালুখোলা ও লিকুভিরে ধস নেমেছিল। এ কারণেই ১০ নম্বর জাতীয় সড়ক বন্ধ রাখতে হয়েছিল। এবার আবার কালিম্পং-দার্জিলিং সড়কের ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত। পরিস্থিতি ক্রমশ খাবার হচ্ছে। সিকিম, ভুটান ও উত্তরবঙ্গে প্রবল বৃষ্টির জেরে নদীগুলোতে পানি বৃদ্ধির আশঙ্কা রয়েছে।

এদিকে আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, এখনই দুর্যোগ কমার কোনো সম্ভাবনা নেই। আসাম, মেঘালয়, সিকিম ও রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। উত্তরের জেলাগুলোতে অন্তত চার-পাঁচ দিন বৃষ্টি হতে পারে। জলপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ার ও কোচবিহারেও অতি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। একাধিক নদীর পানিস্তর ক্রমশ বাড়ছে।
সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস


আরো সংবাদ



premium cement