১৫ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১, ৮ মহররম ১৪৪৬
`

পাকিস্তানে রিভিউ বাতিল, নওয়াজের স্বপ্ন শেষ!

নওয়াজ শরিফ - ফাইল ছবি

পাকিস্তানের শীর্ষ আদালত আজ শুক্রবার সুপ্রিম কোর্ট (রিভিউ অব জাজমেন্টস অ্যান্ড অর্ডার্স) অ্যাক্ট ২০০৩ বাতিল করেছে। প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে তিন সদস্যের বেঞ্চের দৃষ্টিতে অ্যাক্টটি সংবিধানের পরিপন্থী হওয়ায় সেটি বাতিল করে দেয়। এর ফলে সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফসহ বেশ কয়েকজন রাজনীতিবিদের প্রত্যাবর্তনের স্বপ্ন শেষ হয়ে গেছে বলে অনেকে মনে করছেন।

বিচারপতি উমর আতা বান্দিয়াল এবং বিচারপতি আহসান ও বিচারপতি মুনিব আখতার ১৯ জানুয়ারি আদালতের দেয়া রায় বাতিল করে দেন।

ওই আইনকে যারা চ্যালেঞ্জ করেছিলেন, তাদের মধ্যে অন্যতম ছিল কারাবন্দী সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)।

প্রধান বিচারপতি আজ এজিপি, প্রিটিশনার এবং বিপুলসংখ্যক আইনজীবীর উপস্থিতিতে রায় পড়ে শোনান।

প্রধান বিচারপতি বান্দিয়াল বলেন, সুপ্রিম কোর্ট রিভিউ অ্যাক্টটি সংবিধানের পরিপন্থী। তিন সদস্যের বেঞ্চ সর্বসম্মতিতে এই রায় দিয়েছে। বিস্তারিত রায় পরে প্রকাশ করা হবে।

তিনি বলেন, 'সেই অনুযায়ী আইনটি বাতিল করা হলো এবং এর কোনো আইনগত প্রভার রইল না।'

আইনটি শাহবাজ শরিফের নেতৃত্বাধীন সরকারের আমলে প্রণীত হয়েছিল। এতে সুপ্রিম কোর্টকে তাদের রায় রিভিউ করা এবং প্রয়োগ করার ব্যাপারে আরো বেশি ক্ষমতা দেয়া হয়েছিল।

আগামী মাসেই নওয়াজ ফিরছেন পাকিস্তানে

আদালতে আজ শুক্রবার দেয়া এই রায়ের ফলে সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফসহ বেশ কয়েকজন রাজনীতিবিদের প্রত্যাবর্তনের স্বপ্ন শেষ হয়ে গেলে বলে অনেকে বলছেন। নওয়াজ আসন্ন জাতীয় পরিষদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার মাধ্যমে রাজনীতিতে ফেরার কথা ভাবছিলেন।
এছাড়া ইমরান খানের দল থেকে বের হয়ে ইসতেকাম-ই-পাকিস্তান পার্টি (আইপিপি) গঠনকারী জাহাঙ্গীর তারিনের স্বপ্নও শেষ হয়ে গেল বলে ধারণা করা হচ্ছে।

নওয়াজ ও তারিন উভয়কেই সংবিধানের অনুচ্ছেদ ৬২ বলে অযোগ্য ঘোষণা করা হয়েছিল।

তবে বিদায়ী আইনমন্ত্রী আজম নাজির তারার বলেছেন, সর্বোচ্চ আদালতের এই রায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফকে অযোগ্য করার মামলায় ‌'কোনো প্রভাব' ফেলবে না।

রায় ঘোষণার সামান্য পরে জিও নিউজকে তারার একে 'দুর্ভাগ্যজনক' হিসেবে অভিহিত করে বলেন, পার্লামেন্টের কাজে আদালতের বারবার হস্তক্ষেপ করা কোনো ভালো ঐতিহ্য নয়।

এই রায়ের ফলে নওয়াজ শরিফের প্রত্যাবর্তন বিলম্বিত হবে কিনা এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, 'মোটেই না।'

সূত্র : ডন, দি নিউজ, জিও নিউজ


আরো সংবাদ



premium cement