১১ জুন ২০২৩, ২৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০, ২১ জিলকদ ১৪৪৪
`

মেঘালয়ে বিজেপি জোটই ফিরছে ক্ষমতায়

মেঘালয়ে বিজেপি জোটই ফিরছে ক্ষমতায় - ছবি : সংগৃহীত

ভারতের মেঘালয় রাজ্যে আবার সরকার গড়তে আরো দু'দলের সমর্থন পেয়ে গেছে কনরাড সাংমার নেতৃত্বাধীন ন্যাশনাল পিপলস পার্টি (এনপিপি)। সরকার গড়তে কনরাডের দলকে সমর্থনের কথা জানিয়েছে ইউনাইটেড ডেমোক্রেটিক পার্টি (ইউডিপি) এবং পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (পিডিএফ)। আগেই এনপিপিকে সমর্থনের কথা জানিয়েছে বিজেপি, হিলস স্টেট পিপলস ডেমোক্রেটিক পার্টি (এইচএসপিডিপি)। সমর্থন জানিয়েছেন দু'জন নির্দল বিধায়কও।

সরকার গঠনে এনপিপিকে সমর্থনের কথা জানিয়েছেন ইউডিপি প্রেসিডেন্ট মেটবাহ্ লিংডো। সরকার গঠনে সমর্থনের জন্য ইউডিপি এবং পিডিএফকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন কনরাড।

গত ২৭ মার্চ মেঘালয়ে ভোটগ্রহণ হয়েছিল। ২ মার্চ প্রকাশিত হয় ফল। অতীতের নির্বাচনের ফলের ধারা বজায় রেখে এবারো ভারতের উত্তর-পূর্বের এই রাজ্যে কোনো দল সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করতে পারেনি। ৬০ আসনের বিধানসভায় সরকার গঠনের জন্য জাদু সংখ্যা (ম্যাজিক ফিগার) ছিল ৩১। ফল ত্রিশঙ্কু হওয়ায় সরকার গঠন করতে ভোট-পরবর্তী জোট নিয়ে আলোচনা শুরু হয়।

এনপিপি জিতেছে ২৬টি আসনে। ইউডিপি দখল করেছে ১১টি আসন। বিজেপি, এইচএসপিডিপি, পিডিএফ জিতেছে দুটি করে আসন। এনপিপিকে সমর্থন জানিয়েছেন আরো দুজন নির্দল বিধায়ক। সবমিলিয়ে এনপিপি জোটের হাতে রয়েছেন ৪৫ জন বিধায়ক। এবার ৫৯টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ হয়েছিল। প্রথমবার লড়ে তৃণমূল জিতেছে পাঁচটি আসন। কংগ্রেসও পাঁচটি কেন্দ্র দখল করেছে। ভয়েস অব দ্য পিপল পার্টি জিতেছে চারটি কেন্দ্র।

গত শুক্রবার রাতে রাজ্যের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী এবং এই নির্বাচনে তৃণমূলের হয়ে লড়ে জয়ী মুকুল সাংমার উপস্থিতিতে সরকার গঠনের একটি পাল্টা চেষ্টা হয়েছিল। তাতে কংগ্রেস যেমন ছিল, তেমনই ছিল রোবরার এনপিপিকে সমর্থন করা দুটি দলও। সেই বৈঠকে এনপিপি-বিরোধী পক্ষের বিধায়ক সংখ্যা ২৯ বলে ইঙ্গিত দিচ্ছিল। যেখানে এনপিপির পক্ষে হিসাব দাঁড়াচ্ছিল ৩০। এই তুল্যমূল্য ফারাক রোববারের পর আর রইল না।

গত বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর বিজেপির সাথে জোট বেঁধে সরকার গড়েছিল এনপিপি। এবারো আলাদা লড়েছে এনপিপি, বিজেপি। ভোটের ফল প্রকাশের আগে আগেই গুয়াহাটিতে আসামের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মার সাথে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেন কনরাড। সরকার গঠনে জোট নিয়েই তাদের মধ্যে আলোচনা হয়েছে বলে জল্পনা ছড়ায়। ফল প্রকাশের পর কনরাড ইঙ্গিত দিয়েছিলেন যে সরকার গঠনের জন্য বিজেপির সাথে জোট গড়তে তারা রাজি। এর পরই এনপিপিকে সমর্থনের কথা জানায় বিজেপি।

আগামী ৭ মার্চ মেঘালয়ে দ্বিতীয়বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ গ্রহণ করবেন কনরাড। শিলংয়ে রাজভবনে এই শপথ গ্রহণের অনুষ্ঠানে থাকার কথা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির।
সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন

 


আরো সংবাদ


premium cement