০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ন ১৪২৯, ৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

গ্রামবাসীর শিরশ্ছেদ করে কাটা মুণ্ডু নিয়ে ২৫ কিমি হেঁটে থানায় যুবক

ঘাতক টুনিরামকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। - ছবি : সংগৃহীত

কসাইখানায় ছাগল না নিয়ে যাওয়ায় নিজের গ্রামের এক ব্যক্তির শিরশ্ছেদ করে দিলো এক যুবক। শুধু তাই নয় কাটা মুণ্ডু নিয়ে ২৫ কিলোমিটার পথ হেঁটে পুলিশের কাছে গিয়ে আত্মসমর্পণ করলেন ওই যুবক।

এমন হাড়হিম করা ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের আসামের সোনিতপুর জেলায়। এ ঘটনায় অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

যে অস্ত্র দিয়ে খুন করা হয়েছে সেই অস্ত্রটিও পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে ওই যুবক।

অভিযুক্তের নাম টুনিরাম মাদ্রী। আর মৃত ব্যক্তির নাম বয়লা হেমরাম।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত সোমবার ভারতের স্বাধীনতা দিবসে সেখানে একটি ফুটবল ম্যাচের আয়োজন হয়। সেই ফুটবল ম্যাচে ৫০০ টাকা বাজি রাখার জন্য টুনিরামের কাছে ধার চেয়েছিলেন হেমরাম। কিন্তু টুনিরাম তাকে সেই টাকা দিতে অস্বীকার করেছিলেন। টুনিরামও ম্যাচে বাজি ধরেছিলেন। ম্যাচ শেষে তিনি একটি ছাগল জেতেন। এরপর ওই ছাগলটি কসাইখানায় নিয়ে যেতে হেমরামকে বলেন টুনিরাম। হেমরাম তাতে অস্বীকার করেন। এতেই ক্ষুব্ধ হয়ে টুনিরাম ধারালো অস্ত্র দিয়ে হেমরামের শিরশ্ছেদ করে দেন বলে অভিযোগ।

পুলিশ জানায়, ওই ব্যক্তিকে হত্যার পর কাটা মুণ্ডু নিয়ে প্রথমে বাড়ি যায় অভিযুক্ত। এ অবস্থা দেখে তার ভাই তাকে মারধর করলে সে পালিয়ে যায়। পরে ২৫ কিলোমিটার পায়ে হেঁটে থানায় পৌঁছায় টুনিরাম এবং বিচ্ছিন্ন মাথা নিয়ে আত্মসমর্পণ করে।

পুলিশের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নেয়া হয়েছে, এবং মামলার সমস্ত দিক তদন্ত করা হচ্ছে।

সূত্র : হিন্দুস্থান টাইমস


আরো সংবাদ


premium cement