২০ আগস্ট ২০২২
`

উদ্ভট বিদ্যুৎ বিলের শকে হাসপাতালে ভর্তি গৃহকর্তা, মেয়ে অসুস্থ


এক মাসে বিদ্যুতের বিল এসেছে ৩ হাজার ৪০০ কোটি টাকা। যা দেখে বাড়ির কর্তা এতটাই ঘাবড়ে যান যে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ভারতের মধ্যপ্রদেশের সেই ঘটনায় ইতোমধ্যে বিদ্যুতের এক কর্মীকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে আরেকজনকে এবং এক জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ারকে করা হয়েছে শো-কজ নোটিশ।

জানা যায়, সম্প্রতি গোয়ালিয়রের শিববিহার কলোনির বাসিন্দা রাজেন্দ্রপ্রসাদ গুপ্তার ফোনে বিদ্যুতের বিলের মেসেজ আসে। তা দেখে হতবাক হয়ে যান রাজেন্দ্র। বিলের অঙ্কটা দেখায় ৩৪১৯৫৩২৫৯৩ টাকা। না, ভুল দেখছেন না (আপনি)। সেটাই এসেছিল।

সেই অঙ্ক দেখে রাজেন্দ্র এতটাই চমকে যান যে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়েছে। তার রক্তচাপ বেড়ে যায়। রাজেন্দ্রের মেয়ে প্রিয়াঙ্কাও অসুস্থ বোধ করছেন।

রাজেন্দ্রর মেয়ের জামাই বলেছেন, ‘আমার স্ত্রী প্রিয়াঙ্কা গুপ্তার নামে বাড়ির মিটার আছে। বিল দেখে আমার স্ত্রী এবং শ্বশুরের রক্তচাপ বেড়ে যায়। তাদের দ্রুত হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়।’

বিষয়টি সামনে আসার পর মধ্যপ্রদেশের জ্বালানিমন্ত্রী প্রদ্যুতমান সিং তোমর জানান, মিটার রিডিংয়ের পর কত টাকা বিল এসেছে, সেটা না বসিয়ে বিদ্যুৎ সংস্থার কর্মীরা সার্ভিস নম্বর বসিয়ে দেন। সার্ভিস নম্বর স্বভাবতই বড় হয়। তিনি বলেন, ‘তারপর সেই (উদ্ভট) বিল দেয়া হয়। এখন বাড়িটির বিদ্যুতের বিল কমিয়ে ১ হাজার ৩০০ টাকা করে দেয়া হয়েছে। এক কর্মীকে বরখাস্ত করা হয়েছে। একজনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এক জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ারকে নোটিশ দেয়া হয়েছে।’

সূত্র : হিন্দুস্থান টাইমস


আরো সংবাদ


premium cement