১২ আগস্ট ২০২২
`

ধর্মস্থানের মিশ্র চরিত্র নতুন কিছু নয়, জ্ঞানবাপী মামলায় পর্যবেক্ষণ সুপ্রিম কোর্টের

ধর্মস্থানের মিশ্র চরিত্র নতুন কিছু নয়, জ্ঞানবাপী মামলায় পর্যবেক্ষণ সুপ্রিম কোর্টের - ফাইল ছবি

ভারতবর্ষে ধর্মস্থানের ‘মিশ্র চরিত্র’ নতুন কিছু নয়। স্পর্শকাতর জ্ঞানবাপী মামলায় এমনটাই পর্যবেক্ষণ সুপ্রিম কোর্টের। অর্থাৎ, মসজিদ-মন্দির বিতর্কে আপাতত স্থিতাবস্থা বজায় রাখার পক্ষেই মত দিল দেশের শীর্ষ আদালত।

শুক্রবার শুনানি শেষে জ্ঞানবাপী মামলাটি নিম্ন আদালতেই ফিরিয়ে দেয় সুপ্রিম কোর্ট। আপাতত সিল থাকবে মসজিদের ওজুখানা। তবে নমাজপাঠ করতে যারা আসবেন, তাদের জন্য অন্য ব্যবস্থা করে দিত হবে। এদিন নিজের পর্যবেক্ষণে আদালত জানায়, এক মুহূর্তের জন্য মন্দির-মসজিদ বিবাদ দূরে সরিয়ে রেখে ভাবুন। ধর্মস্থানের মিশ্র চরিত্র ভারতবর্ষে নতুন কিছু নয়। একটি জরাস্ট্রিয়ান উপাসনালয়ে ক্রুশ মেলার অর্থ এই নয় যে এটা খ্রিস্টানদের ধর্মস্থল। এবং সব ক্ষেত্রেই এটা প্রযোজ্য।

মনে করা হচ্ছে, মসজিদ-মন্দির বিতর্কে আপাতত স্থিতাবস্থা বজায় রাখার পক্ষেই মত দিয়েছে দেশের শীর্ষ আদালত।

তাৎপর্যপূর্ণভাবে, এতদিন জ্ঞানবাপী মামলাটি ছিল বারাণসী দায়রা আদালতে। এদিন মামলাটি বারাণসী জেলা আদালতে স্থানান্তর করার নির্দেশ দেয় সুপ্রিম কোর্ট।

আদালতের বক্তব্য, এটি খুবই জটিল এবং স্পর্শকাতর বিষয়। আমরা মনে করি এই মামলাটির শুনানি ডিস্ট্রিক্ট জাজের এজলাসে হওয়া উচিত। মামলার বর্তমান বিচারপতির প্রতি আমাদের কোনো বক্তব্য নেই। আমরা ইতিবাচকভাবে মামলাটি অভিজ্ঞ বিচারকের হাতে তুলে দেয়ার কথা বলেছি।

উল্লেখ্য, বারাণসী দায়রা আদালত-নিযুক্ত পর্যবেক্ষক দল বৃহস্পতিবার মুখবন্ধ খামে জ্ঞানবাপী মসজিদের অন্দরে ভিডিওগ্রাফি সংক্রান্ত চূড়ান্ত রিপোর্ট দায়রা বিচারক দিবাকরের কাছে জমা দিয়েছিল। জ্ঞানবাপীর অন্দরে ভিডিও সার্ভের জন্য বারাণসী দায়রা আদালতের বিচারক রবিকুমার দিবাকরের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন জানিয়েছিলেন অঞ্জুমান ইন্তেজামিয়া মসজিদ কমিটির আইনজীবী হুজেফা আহমদি।
সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন


আরো সংবাদ


premium cement