৩০ জুলাই ২০২১
`

কুম্ভমেলা ছিল করোনা ছড়ানোর সবচেয়ে বড় ক্ষেত্র

কুম্ভমেলা ছিল করোনা ছড়ানোর সবচেয়ে বড় ক্ষেত্র - ছবি : মুসলিম মিরর

ভারতের বিরোধী দল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক দিনেশ গুন্ডু রাও অভিযোগ করে বলেছেন, কুম্ভমেলা ছিল বিশ্বের করোনাভাইরাস ছড়ানোর সবচেয়ে বড় ক্ষেত্র। করোনাভাইরাস সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ের সময় উত্তরাখণ্ড রাজ্যে এই মেলার আয়োজন করা হয়েছিল।

এ বছরের শুরুর দিকে করোনার তীব্র সংক্রমণের সময় তা নিয়ন্ত্রণের জন্য পর্যাপ্ত ব্যবস্থা না নেয়ার কারণে তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে দোষারোপ করেন।

গোয়া রাজ্যের রাজধানী পানাজিতে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে দিনেশ গুন্ডু রাও আরো বলেন, যদিও ভারত বিশ্বে সবচেয়ে বড় ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারক দেশ, তবু দেশটির বর্তমান পরিস্থিতি দক্ষিণ এশিয়ার অন্যান্য প্রতিবেশীর থেকে খারাপ।

ভারতের গোয়া রাজ্যে কংগ্রেসের প্রাদেশিক সদর দফতরে সাংবাদিকদের উদ্দেশ করে দিনেশ গুন্ডু রাও বলেন, ‘কুম্ভমেলা ছিল বিশ্বের সবচেয়ে বড় করোনা সংক্রমণের ক্ষেত্র।’

ইন্দো এশিয়ান নিউজ সার্ভিসের প্রতিবেদন মতে তিনি বলেন, ‘দেশব্যাপী মানুষ তাদের জীবন ও জীবিকা হারাচ্ছেন করোনা ভাইরাসের কারণে। কেন তারা দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন? কারণ কেন্দ্রীয় সরকার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়নি। তারা ভ্যাকসিন কেনারও চিন্তা করছেন না। তারা সাধারণ মানুষদের বলেননি যে করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ চলে এসেছে, চলুন সবাই সতর্ক হই।

এসব করার পরিবর্তে নরেন্দ্র মোদি নির্বাচনী সমাবেশ করেছেন। অথচ তিনি জানতেন যে করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ চলে এসেছে। ভারতীয় রাজনীতির ইতিহাসে তিনিই একমাত্র প্রধানমন্ত্রী যিনি এমন দায়িত্বহীনের মতো আচরণ করেছেন। তিনি কোনো বিষয়ের প্রতি দায়িত্বশীল আচরণ করছেন না। তিনি দেশের কোনো বিষয় নিয়েই মাথা ঘামান না। প্রধানমন্ত্রী নিজের আত্মপ্রশংসায় ব্যস্ত। কেন বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার করোনা পরিস্থিতি ভারতের মতো মারাত্মক নয়? তারা তো আমাদেরই প্রতিবেশী।’

সূত্র : মুসলিম মিরর



আরো সংবাদ