৩০ জুলাই ২০২১
`

ভারতে আশরাফ আলী হত্যা : নৃশংসতার এক নতুন ধরন

নিহত আশরাফ আলীর স্ত্রী ও তিন মেয়ে রয়েছে। - ছবি : সংগৃহীত

ভারতের উত্তরপ্রদেশের কানপুরে ৩৪ বছর বয়সী আশরাফ আলীকে হত্যা করেছে তিনজনের একটি দল। তাকে প্রথমে শারীরিকভাবে হেনস্থা করা হয়, পরে গাড়িচাপা দিয়ে হত্যা করা হয়।

ওই তিন অপরাধী সাধারণ মানুষের সামনে নির্লজ্জের মতো প্রস্রাব করছিল। আশরাফ আলী তাদেরকে এমন কাজ করতে নিষেধ করায় এমনটা ঘটিয়েছে তারা।

আশরাফ আলীর পরিবার জানান, ওই অপরাধী ব্যক্তিরা মদ্যপ ছিল। তারা আশরাফ আলীকে যখন গাড়িচাপা দেয় তখন তিনি তার বাড়িওয়ালা কুলদীপ কাপুরের সাথে ফোনে কথা বলছিলেন। তিনি তার বাড়িওয়ালাকে তার ওপর হওয়া শারীরিক আক্রমণের কথা বলেছিলেন। ফোনে কথা বলার মাঝখানে তিনি বলেন, গাড়িটি তাকে হত্যা করার জন্য আসছে। ওই সময়ই তাকে গাড়িচাপা দেয়া হয়। দুর্ঘটনার সময় তার ওই ফোনটি একপাশে পড়ে গিয়েছিল, পরে তা ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয়।

আশরাফ আলীর স্ত্রী ও তিন মেয়ে রয়েছে। মেয়েরা স্কুলে পড়ে। এ মুহূর্তে তাদের দেখার কেউ নেই। আশরাফ আলী ছিলেন এ পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি। তার মৃত্যুর ফলে তার পরিবার এখন অসহায় জীবন অতিবাহিত করছে। তারা একটি ভাড়া বাড়িতে থাকেন। তাদের এমন কোনো সম্পদ নেই যা দিয়ে তারা তাদের জীবন নির্বাহ করবেন। দুঃখজনক ভাবে সরকার বা কোনো জনসেবামূলক সংস্থাও তাদের সাহায্যে এগিয়ে আসেনি।

কোনো ধরনের প্ররোচনা ছাড়াই একটি পরিবারের উপার্জনক্ষম ব্যক্তিকে হত্যা করা এক নতুন ধরনের শঙ্কার জন্ম দিয়েছে। এ ভয়ানক হত্যাকাণ্ডের মাধ্যমে এ বিষয়টি সামনে এসেছে যে উত্তরপ্রদেশে অপরাধ ও নিরাপত্তাহীনতা বৃদ্ধি পেয়েছে। সাধারণ মানুষ এ বিষয়টি ভয়ের সাথে লক্ষ্য করেছে যে গাড়ি বা অন্য কোনো ভারী যানবাহন দিয়ে অসহায় ও নিরাপরাধ মানুষকে হত্যা করা হচ্ছে।

সূত্র : মুসলিম মিরর



আরো সংবাদ