১৬ জুন ২০২১
`

আসামের মুখ্যমন্ত্রী সোনওয়াল না বিশ্বশর্মা?

সোনওয়াল -বিশ্বশর্মা - ছবি : সংগৃহীত

পশ্চিমবঙ্গে জয়ী হতে না পারলেও আসামে ঠিকই জয় পেয়েছে বিজেপি। তারা দ্বিতীয়বারের মতো সরকার গঠন করতে যাচ্ছে। কিন্তু সেখান থেকেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে, এবার তাহলে মুখ্যমন্ত্রীর মুখ কে? সমাধানসূত্র খুঁজতে আসরে নেমেছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা। সূত্রের খবর আজ নাড্ডার সঙ্গে দিল্লির সদর দফতরে মুখোমুখি বসবেন হিমন্ত বিশ্বশর্মা ও সর্বানন্দ সোনওয়াল। আজ সকালের এই বৈঠকে উপস্থিত থাকতে পারেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, বিএল সন্তোষ-রাও।

আসামে বিধানসভার লড়াই ছিল ১২৬টি আসনের। লড়াইয়ে কংগ্রেসের নেতৃত্বাধীন জোটকে অনেকটাই পিছনে ফেলে অনেকটাই এগিয়ে যায় বিজেপি। কংগ্রেসের ঝুলিতে ছিল ৫০ টি আসন। বিজেপির নেতৃত্বাধীন এনডিএ পায় ৭৫টি আসন। মুখ্যমন্ত্রীর মুখ কে তাই নিয়ে আলোচনা অবশ্য তার আঘে থেকেই। সূত্রের খবর, আসাম বিজেপির উপর একাংশ চাপ সৃষ্টি করছে সর্বানন্দ সোনওয়ালকে সরিয়ে হিমন্ত বিশ্বশর্মাকে আনার বিষয়ে। হিমন্ত বিশ্বশর্মার সঙ্গে দিল্লির নেতাদের সম্পর্কও ঘনিষ্ঠ। বিজেপি অবশ্য অনেকটা পশ্চিমবঙ্গের সুরেই বলে এসেছে মুখ্যমন্ত্রীর মুখ কে তা নিয়ে সিদ্ধান্ত হবে নির্বাচনের পরে।

অতীতে কংগ্রেসের গুরুত্বপূর্ণ মুখ ছিলেন হিমন্ত বিশ্বশর্মা। কংগ্রেস থেকে বিজেপিতে যোগ দিলেও ভাবমূর্তি এতটুকুও টোল খায়নি। বরং করোনার সময়ে আসামবাসী যেভাবে তাকে পাশে পেয়েছে তাতে তার গ্রহণযোগ্যতা আরো বেড়েছে। তার সাংগঠনিক ক্ষমতার জেরে গোটা উত্তর পূর্ব ভারতেই সাংগঠনিক ক্ষমতা বেড়েছে বিজেপির। ফলে অমিত শাহ-নরেন্দ্র মোদির গুডবুকে রয়েছেন হিমন্ত বিশ্বশর্মা। তাহলে কি আজ গত তিন বছরের কর্মকুশলতার ডিভিডেন্ট পেতে চলেছেন হিমন্ত বিশ্বশর্মা? উত্তর মিল‌তে পারে আজই।

সূত্র : নিউজ ১৮



আরো সংবাদ