১৩ জুন ২০২১
`

মোদি বিরোধিতায় এখন জাতীয় মুখ মমতা, তৃণমূল সুপ্রিমোর স্তুতি কংগ্রেস নেতার

মোদি বিরোধিতায় এখন জাতীয় মুখ মমতা, তৃণমূল সুপ্রিমোর স্তুতি কংগ্রেস নেতার -

বাংলার লড়াই ছিল কঠিন। প্রধানমন্ত্রী থেকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, বিজেপি জাতীয় স্তরের নেতারা তাকে হারাতে মাঠে নেমেছিলেন। তৃণমূলের একাংশের অভিযোগ, দুর্জেয় ঘাঁটি বাংলার মাটি জয় করতে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাগুলোকে হাতিয়ার করতেও পিছপা হয়নি বিজেপি। তবু সমস্ত প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে বিরাট জয় পেয়েছেন মমতা ব্যানার্জি।

তার এই জয় শুধুমাত্র বঙ্গ রাজনীতি নয়, জাতীয়স্তরেও অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। এই লড়াই আর রাজ্যের নেত্রী নয়, জাতীয়স্তরের নেত্রীতে পরিণত করেছে। আর একথা স্বীকার করে নিচ্ছেন কংগ্রেসের বর্ষীয়ান নেতা কমল নাথও। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ২০২৪ সালে বিজেপি বিরোধী জোটের প্রধান মুখ হলেও আশ্চর্য হওয়ার কিছু থাকবে না।

বাংলা জয়ের পরই তৃণমূল নেত্রীর ভূয়সী প্রশংসা করেন মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা কংগ্রেসের অভিজ্ঞ নেতা কমল নাথ। তিনি বলেন, পরপর তিনবার বাংলার মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন মমতা। কঠিন লড়াইয়ের পর বিরাট জয় পেয়েছেন তিনি। এখন তিনি জাতীয়স্তরের নেত্রী। কঠিন লড়াইয়ের পর তিনি এই পর্যায়ে পৌঁছাতে পেরেছেন। জাতীয়স্তরে তার গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে।

কমল নাথের কথায়, তাকে (মমতা) কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে লড়তে হয়েছে। যুদ্ধ করতে হয়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং তার মন্ত্রীদের বিরুদ্ধে। এমনকী, কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই, ইডি, আয়কর দফতরের বিরুদ্ধে লড়াই করতে হয়েছে তৃণমূল নেত্রীকে। কিন্তু তিনি সকলকে হারিয়ে দিয়েছেন।

তাহলে কি ২০২৪ সালে প্রধানমন্ত্রী মোদিবিরোধী লড়াইয়ের প্রধান মুখ হবেন মমতা? জবাবে কমল নাথ বলেন, ‘এ বিষয়ে এখনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। পরে ইউপিএ জোট চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে।’ তবে কংগ্রেস নেতা স্বীকার না করলেও রাজনৈতিক মহল বলছে, প্রধানমন্ত্রী মোদির বিরুদ্ধে চব্বিশের লড়াইয়ে গুরুত্বপূর্ণ মুখ হয়ে উঠবেন মমতা। বঙ্গ জয়ের পর সেই সলতে পাকানোর কাজ শুরু করে দিয়েছেন মমতা। বিরোধী নেতা-নেত্রীদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছেন তিনি। বাংলার লড়াইয়ে প্রায় সমস্ত বিজেপিবিরোধী দলই মমতার পাশে দাঁড়িয়েছিল। জয়ের পরও তারা যোগাযোগ করেছেন তৃণমূল সুপ্রিমোর সাথে।

রাজনৈতিক মহল বলছে, প্রধান বিরোধী মুখ হওয়া নিয়ে মমতার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী রাহুল গান্ধী। কিন্তু কংগ্রেস এবং রাহুলের সাম্প্রতিক নির্বাচনের ফলাফল ওই লড়াইকে ভিত্তিহীন করে দিয়েছে।

তাই পরিশেষে বলা যায়, বাংলার লড়াই মমতাকে শুধু জাতীয় স্তরের নেত্রীর পদে উন্নীত করেনি, বরং মোদিবিরোধী লড়াইয়ের প্রধান মুখ হওয়ার পদে আরো কয়েক কদম এগিয়ে দিয়েছে।
সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন



আরো সংবাদ


কানাডার সেই মুসলিম পরিবারের জানাজায় মানুষের ঢল ভিয়েনা আলোচনার সব পক্ষ সফল উপসংহারে পৌঁছাতে চায় রামেকে ২৪ ঘন্টায় আরো ১৩ জনের মৃত্যু সোনারগাঁওয়ে বাসের ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত নিলামে ২৩৮ কোটি টাকা দর হেঁকে মহাকাশ যাত্রার টিকিট জয় ‘গোলান মালভূমি মুক্ত করতে সম্পূর্ণ প্রস্তুত’ ‘বাজেট প্রণয়নে এমপিদের অংশ নেয়ার সুযোগ ছিল না’ গণতন্ত্রের মর্যাদার সাথে বেমামান সরকারের কাজকর্ম : ভারতের সমালোচনায় যুক্তরাষ্ট্র এবার ফিলিস্তিনি নারীকে গুলি করে হত্যা করল ইসরাইলি সেনারা পাকিস্তান লিগের ম্যাচে মাথায় আঘাত পেয়ে হাসপাতালে ফ্যাফ দু’প্লেসি প্রথম সিঙ্গলস গ্র্যান্ডস্লাম জিতলেন ডাবলসের স্পেশালিস্ট ক্রিচিকোভা

সকল