৩০ নভেম্বর ২০২০

করোনায় ভারতে এক দিনে ২ হাজারের বেশি মৃত্যু

ভারতে করোনায় সবচেয়ে বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে মহারাষ্ট্রে - ছবি : এনডিটিভি

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত দুই হাজারেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। দেশটিতে এই প্রথম করোনায় একসাথে এতজনের প্রাণ গেল। রাজ্যগুলো তাদের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত পরিসংখ্যান আপডেট করার পরেই এই তথ্য সামনে এলো।

সারা দেশে এখন পর্যন্ত মোট ৩ লাখ ৫৪ হাজার ৬৫ জন আক্রান্ত হয়েছেন এই মারণ ভাইরাসে। তবে তার মধ্যে চিকিৎসা সহায়তায় সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৮৬ হাজার ৯৩৫ জন। করোনার আক্রমণে মারা গেছেন ১১ হাজার ৯০৩ জন মানুষ।

সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত রাজ্য মহারাষ্ট্র। মঙ্গলবার ওই রাজ্য এবং তার রাজধানী মুম্বাইয়ে যেন আরো দ্রুতগতিতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে। একদিনের মধ্যে সেখানে আরো ১ হাজার ৩২৮ জনের শরীরে বাসা বেঁধেছে ওই সংক্রামক রোগ। শুধু মুম্বাইতেই মোট মৃতের সংখ্যা ৩ হাজার ১৬৭ জন, যা দেশের সব রাজ্যের তুলনায় এখন পর্যন্ত একটি রেকর্ড। আর গোটা মহারাষ্ট্রে করোনার কবলে পড়ে মারা গেছে মোট ৫ হাজার ৫৩৭ জন। শুধু মঙ্গলবারই সে রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে আরো ৮১ জনের।

বুধবার ছয় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সাথে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বৈঠক করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আগামী ৩০ জুনের পরেও দেশে জারি লকডাউনের মেয়াদ আরো বাড়ানো হবে কিনা সেবিষয়েই মুখ্য়মন্ত্রীদের সাথে আলোচনা করবেন প্রধানমন্ত্রী। যদিও শোনা যাচ্ছে ওই বৈঠকে যোগ দিচ্ছেন না পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যয়।

এদিকে, দেশের রাজধানী দিল্লিতেও ক্রমশ জটিল হচ্ছে করোনা পরিস্থিতি। এই মারণ ভাইরাসের আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসায় এবার আপ সরকার দক্ষিণ দিল্লির রাধা সোমী আধ্যাত্মিক কেন্দ্রটিকে বিশ্বের বৃহত্তম অস্থায়ী কোভিড-১৯ কেয়ার সেন্টারে রূপান্তরিত করেছে। সেখানে মোট ১০ হাজার বেডের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলেছে, সরাসরি এক ব্যক্তি থেকে অন্য ব্যক্তির মধ্যে করোনাভাইরাস সংক্রমিত হতে পারে। তাই ঘনিষ্ঠতা এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। এমনকি সংক্রমিত ব্যক্তির কাশি, হাঁচি বা মুখোমুখি কথা বলার মাধ্যমেও এই ভাইরাস ছড়ায়।

সূত্র : এনডিটিভি


আরো সংবাদ