৩০ নভেম্বর ২০২০

গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত, ছাড়ালো ৩৫ হাজার

ভারতে করোনায় মৃত্যু হয়েছে প্রায় দুই হাজার মানুষের। - ছবি : এনডিটিভি

যত দিন যাচ্ছে ততই যেন নিজের শক্তি বাড়াচ্ছে করোনাভাইরাস। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে নতুন করে ওই মারণ ভাইরাসের কবলে পড়েছেন ১ হাজার ৯৯৩ জন মানুষ। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও। গত একদিনের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে আরো ৭৩ জনের।

দেশটির কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের সাম্প্রতিক পরিসংখ্যান বলছে, দেশজুড়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন মোট ৩৫ হাজার ৪৩ জন এবং মারা গেছেন মোট ১ হাজার ১৪৭ জন। যদিও করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর হাসপাতালে চিকিৎসা করিয়ে সুস্থ হওয়ার সংখ্যাও বাড়ছে।
সরকারি হিসাব বলছে, শুক্রবার সকালে দেশে করোনা পুনরুদ্ধারের হার বেড়ে ২৫.৩৬ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। এখনো পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন মোট ৮ হাজার ৮৮৯ জন। বৃহস্পতিবার সরকার জানিয়েছিল, গত দু'সপ্তাহের তুলনায় এই সুস্থ হওয়ার পরিমাণ বেড়ে ১৩ শতাংশ হয়েছে।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয় আরো জানিয়েছে, করোনায় আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যা আগে যে হারে দ্বিগুণ হচ্ছিল তাও এখন অনেক কমেছে। বর্তমানে ১১ দিন অন্তর দ্বিগুণ হচ্ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা, আগে যেখানে ৩.৪ দিন অন্তর দ্বিগুণ হচ্ছিল।

ভারতের যে রাজ্যটি এখনো পর্যন্ত করোনার জেরে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত তা হল মহারাষ্ট্র। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ওই রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। বাণিজ্য নগরী মুম্বাইয়ের অবস্থা শোচনীয়, সেখানে এখনো পর্যন্ত ৭ হাজারের বেশি মানুষ কোভিড-১৯ এ ভুগছেন। মহারাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত হয়ে এই পর্যন্ত মারা গেছেন ৪৫০ জনেরও বেশি মানুষজন।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় বুধবার জানায়, করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের নতুন নির্দেশিকা জারি করা হবে আগামী ৩ মে সর্বস্তরে লকডাউন ওঠার পর। ৪ মে থেকে দেশের বহু রাজ্যে এই কড়া বিধিনিষেধ খানিকটা হলেও শিথিল করা হবে। তবে নতুন ব্যবস্থা গ্রহণের ব্যাপারগুলো সম্পর্কে টুইটারে জানানো হবে বলেই জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র।

সূত্র : এনডিটিভি


আরো সংবাদ