০১ জুন ২০২০

চিকিৎসার পরিবর্তে তাবলিগের লোকদের গুলি করে মারতে চায় রাজ ঠাকরে

মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনা (এমএনএস) প্রধান রাজ ঠাকরে - ছবি : সংগৃহীত

ভারতের ‘মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনা’ (এমএনএস) প্রধান রাজ ঠাকরে তাবলিগ জামাতের লোকদের চিকিৎসার পরিবর্তে তাদের গুলি করে মারা উচিত বলে বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন। তিনি আজ শনিবার এ সংক্রান্ত মন্তব্য করেন।

দিল্লির নিজামুদ্দিনে তাবলিগ জামাতের মারকাজে এক কর্মসূচি থেকে করোনা ছড়িয়ে পড়ার অভিযোগকে কেন্দ্র দেশজুড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তীব্র বিতর্ক ও মুসলিম বিদ্বেষী অপপ্রচারের মধ্যে এমএনএস প্রধানের ওই মন্তব্য প্রকাশ্যে এল।

রাজ ঠাকরে নিজামুদ্দিনের মারকাজের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট তাবলিগ জামাতের সদস্যদের সম্পর্কে বলেন, ‘আমি মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের সাথে এ বিষয়ে কথা বলেছি। এ ধরনের লোকদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি করা হয়েছে। মারকাজের সাথে জড়িত এই জাতীয় লোকের ঔদ্ধত্য সহ্য করার মতো নয়। সেজন্য, তাদের চিকিৎসা করার দরকার নেই, বরং তাদের গুলি করে মারা উচিত। এই মারাত্মক সঙ্কটে পুলিশ, নার্স এবং চিকিৎসকরা গভীর রাত পর্যন্ত কাজ করছেন। যদি তাদের ওপরে আক্রমণ করা হয় তবে আক্রমণকারীকে শিক্ষা দেওয়া উচিত।

রাজ ঠাকরে আরো বলেন, দেশ এখন ভয়ঙ্কর সংকটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। এরকম অবস্থায় ওরা ধর্মটাকেই বড় করে দেখছে। এর মধ্যে যদি কোনো ষড়যন্ত্র থাকে তাহলে তাবলিগ জামাতে থাকা লোকজনকে পেটানো উচিত। এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সেই ভিডিও ভাইরাল করা উচিত।

এদিকে আজ এক সরকারি তথ্যে প্রকাশ, করোনায় এ পর্যন্ত আক্রান্তের ৩০ শতাংশ দিল্লির নিজামুদ্দিনে তাবলিগ জামাতের মারকাজের সাম্প্রতিক কর্মসূচির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ছিলেন।

মারকাজ থেকে ফেরা তাবলিগ জামাতের সদস্যদের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ তুলেছেন দিল্লির বিভিন্ন হাসপাতালের চিকিৎসকেরা। তারা অতিরিক্ত নিরাপত্তা দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন। মসজিদ থেকে বের করে বাসে তোলার সময়ে ওই তাবলিগ জামাত সদস্যরা থুতু ছিটিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এমনকি নার্সদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করার অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে উত্তর প্রদেশ সরকার জাতীয় নিরাপত্তা আইনে অভিযোগ করবে বলে জানিয়েছে। পার্সটুডে।


আরো সংবাদ





justin tv maltepe evden eve nakliyat knight online indir hatay web tasarım ko cuce Friv buy Instagram likes www.catunited.com buy Instagram likes cheap Adiyaman tutunu