০৬ জুন ২০২০

১০ মাসের শিশু কাঁধে নিয়ে ২ দিন হাঁটলেন যুবক

করোনাকে রুখতে ভারত জুড়ে চলছে লকডাউন। যার জেরে থমকে শহর। বাইরের রাজ্যে যারা কাজ করতে গিয়েছেন, যানবাহনের অভাবে তারাও ফিরতে পারছে না ঘরে। এই পরিস্থিতিতে দেখা গেল এক মর্মান্তিক চিত্র। এক যুবককে দেখা যায় ১০ মাসের শিশুপুত্রকে কাঁধে চাপিয়ে স্ত্রী ও আরও ২ শিশু সন্তানকে সঙ্গে নিয়ে দিল্লি থেকে ফিরছেন উত্তরপ্রদেশে নিজের গ্রামে।

টানা ২দিন ধরে হেঁটে চলেছেন তারা। আশা একদিন না একদিন আলিগড়ের গ্রামে নিজেদের বাড়িতে তো পৌঁছবেন। সেই আশাতেই পথ চলা শুরু। দিনমজুরের কাজ করতে দিল্লি গিয়েছিলেন উত্তরপ্রদেশের বান্টি। হঠাৎ ২১দিনের লকডাউন ঘোষণা।

লকডাউনের এই পর্বে কীভাবে দিল্লিতে দিন গুজরান হবে তাদের? বিকল্প না পেয়ে বান্টি কাঁধে তুলে নিয়েছিলেন ১০ মাসের শিশুপুত্রকে। স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে সেখান থেকেই প্রায় ১৫০ কিমি দূরে নিজের গ্রামের উদ্দেশে পায়ে হেঁটেই যাত্রা শুরু করেন। টানা ২দিন হাঁটার পর বাড়ি পৌঁছন তারা।

বান্টির কথায়, ‘দিল্লি থেকে ১৫০ কিমি দূরে উত্তরপ্রদেশের আলিগড়ে আমার বাড়ি। ২১ দিন লকডাউন হতেই কাজ বন্ধ হয়ে যায়। যা নগদ ছিল, তা দিয়ে বেশিদিন কাটানো সম্ভব নয়। দিল্লিতে থাকলে খাব কী? ওখানে কারও সাহায্যও পাচ্ছিলাম না। তাই গ্রামের বাড়িতে ফেরার সিদ্ধান্ত নেই। কিন্তু ফেরারও কোনও গাড়ি পাচ্ছিলাম না। বাধ্য হয়ে হেঁটে বাড়ি ফেরার সিদ্ধান্ত নিই।’

তিনি আরও বলেন, ‘গ্রামের বাড়িতেও সমস্যা রয়েছে। তবুও ওখানে গিয়ে নুন বা চাটনি দিয়ে রুটি খাব। এতেই শান্তি। কিন্তু এখানে কিছু নেই আমাদের।’

একই কথা বান্টির স্ত্রীর মুখেও। রাস্তায় হাঁটতে হাঁটতেই তিনি বলেন, দিল্লিতে থাকলে আমাদের কোনো বাঁচার আশা নেই। কী খাব? কেউ তো আর পাথর খেয়ে বেঁচে থাকতে পারবে না?’ তাই নিরুপায় হয়ে হেঁটেই গ্রামে ফেরার সিদ্ধান্ত নেন তারা। পুবের কলম।


আরো সংবাদ





justin tv