৩১ মার্চ ২০২০

দিল্লির মুসলমানদের উপর হামলা নিয়ে বিশ্বের প্রতিক্রিয়া

ভারতের দিল্লিতে সহিংসতায় কমপক্ষে ৪২ জন প্রাণ হারিয়েছেন। এই ঘটনায় অনেকে উদ্বেগ প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন।

জাতিসংঘের মানবাধিকার প্রধান
‘অফিস অফ দ্য ইউনাইটেড নেশনস হাই কমিশনার ফর হিউম্যান রাইটস’ ওএইচসিএইচআর কমিশনার মিশেল বাচেলেট ভারতে মুসলমানদের বিরুদ্ধে হামলার সময় পুলিশের নীরব ভূমিকার খবরে উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

রজব তাইয়েব এরদোগান
তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এর্দোয়ান বৃহস্পতিবার এক বক্তব্যে বলেন, ‘‘বর্তমানে ভারত এমন এক দেশে পরিণত হয়েছে যেখানে নির্বিচারে হত্যাকাণ্ড চলছে। কাদের হত্যা করা হচ্ছে? মুসলমানদের। কারা করছে? হিন্দুরা।’’

ওআইসি
বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে ‘অর্গানাইজেশন অফ ইসলামিক কোঅপারেশন’ ওআইসি ‘ভারতে মুসলমানদের বিরুদ্ধে চলমান ভয়াবহ হামলা এবং মসজিদ ও মুসলমানদের সম্পত্তিতে আগুন দেয়া ও ভাঙচুরের’ সমালোচনা করেছে।

মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদ
যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি পরিষদের পররাষ্ট্র বিষয়ক কমিটির চেয়ারম্যান এলিয়ট অ্যাঙ্গেল বলেছেন, ‘‘গত কয়েকদিন ধরে ভারতে সহিংসতায় প্রাণহানির খবরে আমরা খুবই উদ্বিগ্ন।’’

ইমরান খান
পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, ‘‘ভারতে ২০ কোটি মুসলমানকে ‘টার্গেট’ করা হচ্ছে। বিশ্ব সম্প্রদায়কে এখন অবশ্যই এগিয়ে আসতে হবে।’’

ডোনাল্ড ট্রাম্প
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সম্প্রতি ভারত সফরে গিয়েছিলেন। সেই সময় দিল্লিতে সহিংসতা শুরু হয়। তবে এই বিষয় নিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে তার আলোচনা হয়নি বলে জানিয়েছেন ট্রাম্প। অবশ্য সহিংসতার বিষয়টি তিনি শুনেছেন বলে স্বীকার করেছেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট প্রার্থী
ডেমোক্র্যাট দল থেকে প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচনে আগ্রহী দুই প্রার্থী বার্নি স্যান্ডার্স ও এলিজাবেথ ওয়ারেন টুইটারে প্রকাশিত বিবৃতিতে ভারতে সহিংসতার বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নেয়ার জন্য ট্রাম্প প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। ‘‘২০ কোটির বেশি মুসলমান ভারতকে নিজেদের দেশ মনে করেন,’’ বলেন স্যান্ডার্স। জবাবে ট্রাম্প বলেন, ‘‘এটা ভারতের ব্যাপার। মানবাধিকার নিয়ে কাজ করা নেতৃত্বের ব্যর্থতা এটা।’’

বাংলাদেশের বিশিষ্ট নাগরিকদের বিবৃতি
বাংলাদেশের ১২ জন বিশিষ্ট নাগরিক ভারতে সহিংসতা গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বৃহস্পতিবার বিবৃতি দিয়েছেন। তারা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় দ্রুত পদক্ষেপ নিতে ভারত সরকার ও নাগরিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। ভারত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ব্যর্থ হলে প্রতিবেশী দেশগুলোতে শান্তি, গণতন্ত্র, উন্নয়ন ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট হওয়ার মতো পরিবেশ তৈরি হতে পারে বলেও বিবৃতিতে আশঙ্কা প্রকাশ করেন তারা।

ইউএসসিআইএফআর
যুক্তরাষ্ট্রের ‘ইউএস কমিশন ফর ইন্টারন্যাশনাল রেলিজিয়াস ফ্রিডম’ ইউএসসিআইএফআর এক টুইটে দিল্লিতে মুসলমানদের উপর হামলার খবরে উদ্বেগ প্রকাশ করে ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের রক্ষায় পদক্ষেপ নিতে মোদী সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

রাশিদা তালিব
মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদে ডেমোক্র্যাট দলের সদস্য রাশিদা তালিব ভারতে ট্রাম্পের সফরের সময় টুইটে বলেছিলেন, এই মুহূর্তে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ হওয়া উচিত মুসলমানদের লক্ষ্য করে চলা সাম্প্রদায়িক সহিংসতা। ‘‘মুসলমানবিরোধী সহিংসতা চলার সময় আমরা বসে থাকতে পারি না,’’ বলেন তিনি।

ভারতের সমালোচনা
দাঙ্গা নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতিক্রিয়ার সমালোচনা করেছে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এক বিবৃতিতে তারা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সমালোচনাকে ‘বিভ্রান্তিকর ও অসত্য’ বলে আখ্যায়িত করেছে। একই সঙ্গে ভারতের এমন ‘স্পর্শকাতর সময়ে দায়িত্বজ্ঞানহীন মন্তব্য’ না করারও আহ্বান জানানো হয়েছে। ডয়চে ভেলে।


আরো সংবাদ