২৯ মার্চ ২০২০

‘ইধার আ পাকিস্তানি, তুঝে নাগরিকতা দেতে হ্যায়’, ছাড় পেলেন না দিল্লিতে সেই সৈনিকও

‘ইধার আ পাকিস্তানি, তুঝে নাগরিকতা দেতে হ্যায়’, ছাড় পেলেন না দিল্লিতে সেই সৈনিকও - সংগৃহীত

উত্তর পূর্ব দিল্লির খেজুরি খাস এলাকা সেদিন রণক্ষেত্রের আকার ধারণ করেছিল৷ চার দিকে আগুন, প্রাণ হাতে পালাচ্ছিলেন সাধারণ মানুষ৷ সেদিন উন্মত্ত জনতা এসে ভিড় করেছিল মুসলিম প্রধান এই এলাকার একটি বাড়িতেও৷ সেই বাড়ির সামনে নেমপ্লেট, তাতে লেখা ভারতীয় সেনা জওয়ার মোহাম্মদ আনিসের নাম৷ কিন্তু ২৫ ফেব্রুয়ারি সেই জওয়ানের বাড়িও মুক্তি পায়নি৷

ভারতের রাজধানী দিল্লির খেজুরি খাস গলিতে আনিসের বাড়ির সামনে ভিড় করে এসেছিল দাঙ্গাবাজেরা৷ প্রথমেই পাথর ছুঁড়তে শুরু করেছিল সেদিন৷ এতদিন সীমান্তে পাকিস্তানি হামলার হাত থেকে ভারতকে রক্ষার দায়িত্ব করেছেন তিনি৷ কিন্তু এদিন কীভাবে বাড়ির ভিতরে বাবা, আর বোন আর চাচাকে রক্ষা করবেন, সেটা তিনিও হয়ত বুঝতে পারছিলেন না৷

প্রথমে হামলাকারীরা বাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে থাকা একটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়৷ তারপর কয়েক মিনিট চলে ইট বৃষ্টি৷ তারপর বাইরে থেকে হামলাকারীরা চিৎকার করে বলতে থাকে, ‘ইধার আ পাকিস্তানি, তুঝে নাগরিকতা দেতে হ্যায়৷’ চিৎকার শুনে শিউরে উঠেছিলেন আনিস৷

এরপর গ্যাস সিলিন্ডারে আগুন ধরিয়ে আনিসের বাড়ির মধ্যে ছুড়ে মারে হামলাকারীরা৷ বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়৷

তিন বছর কাশ্মিরের ভাত পাক সীমান্তে লড়াই করেছিলেন আনিস৷ তার বাড়িতে রয়েছেন বাবা, মোহাম্মদ ইউনিস, চাচা মোহাম্মদ আহমেদ, ও ১৮ বছরের নেহা পরভিন৷ ক’দিন বাদেই নেহার বিয়ে হওয়ার কথা৷ সেদিন রাতে তাদের সবাইকেই বাড়ি থেকে পালাতে হয়েছিল৷ সেদিন আগুনে পুড়ে গিয়েছিল গয়না৷ ছিল নগদ তিন লাখ রুপি৷ তাও পুড়ে ছাই৷
সূত্র : নিউজ১৮

 


আরো সংবাদ

বৃদ্ধকে কান ধরে উঠবস করানো এসিল্যান্ডকে একহাত নিলেন আসিফ নজরুল (২৫১২২)করোনার বিরুদ্ধে লড়াকু ‘বীর’ চিকিৎসক যে ভয়াবহ বার্তা দিয়েই মারা গেলেন (২৪৫০৫)ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর করোনার খবরে পেছনের দরজা দিয়ে পালালেন উপদেষ্টা (ভিডিও) (১৪৩৬২)অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া আর নেই (১২১৬৭)মুক্ত খালেদা জিয়ার সাথে দেখা হলো না সানাউল্লাহর (৯৭৮৩)কান ধরে উঠবস করানো সেই এসিল্যান্ড প্রত্যাহার (৯৭০৬)করোনার ওষুধ আবিষ্কারের দাবি ডুয়েটের ৩ গবেষকের (৯১৭৪)প্রবাসীর স্ত্রীর পরকীয়ার বলি মেয়ে (৮৮৯৯)করোনার আক্রমণে করুণ অবস্থা যুক্তরাষ্ট্রের (৮৭৮৩)মোদি-যোগির রাজ্যে ক্ষুধার জ্বালায় ঘাস খাচ্ছে শিশুরা (৮৫৯৭)