৩১ মার্চ ২০২০

উগ্রবাদীদের হিংস্র আঘাত অন্তঃসত্ত্বা শাবানার পেটে, জন্ম নিল ‘অলৌকিক শিশু’

ভারতের উত্তর-পূর্ব দিল্লির কারাওয়াল নগরে সহিংসতার শিকার হয়েছিলেন বছর তিরিশের শাবানা পারভীন। পূর্ণ অন্তঃসত্ত্বা শাবানার তলপেটে লাথি মেরেছিল ক্ষিপ্ত-হিংস্র উগ্রবাদীরা। অলৌকিক ঘটনা তারপরেও! বুধবার সুস্থ-সবল সন্তানের জন্ম দিলেন তিনি। সবাই সদ্যজাতের নাম দিয়েছে মিরাকল বেবি।

জানা গেছে, সোমবার গভীর রাতে দুই সন্তান, স্বামীর সঙ্গে ঘুমিয়েছিলেন শাবানা। আচমকাই তাদের বাড়ি ঘিরে ফেলে জনতা। শাশুড়ি নাসিমার কথায়, সবাই মারধর করতে থাকে তার ছেলেকে। লাথি মারে অন্তঃসত্ত্বা বউমার তলপেটে। সবাই ভেবেছিল, সেদিন পরিবারের কেউ বাঁচবে না। কিন্তু আল্লাহ রক্ষা করেছেন তাদের। তার বউমার গর্ভের সন্তানকেও।

গর্ভস্থ সন্তানকে বাঁচাতে এরপরেই শাবানাকে ভর্তি করা হয় আল হিন্দ হাসপাতালে। সেখানেই বুধবার সুস্থভাবে জন্ম নেয় তার সন্তান। সবার কাছে যার পরিচয় ‘অলৌকিক শিশু’ নামে। যদিও পরিবারের সদস্যদের মুখ থেকে এখনো সরেনি আতঙ্কের ছায়া। গত দু-দশক ধরে দিল্লিতে বসবাস করছেন তারা। কিন্তু কোনোদিন এমন আক্রমণের শিকার হননি। দিল্লির সহিংসতা থেকে প্রাণে বাঁচলেও ঘর হারিয়েছেন তারা।

নতুন সদস্য আসার পরেও তাই হাসি ফোটেনি শাবানার শাশুড়ির বা পরিবারের বাকি সদস্যদের মুখে। বরং, চিন্তার কালো মেঘে অন্ধকার মুখ। শাবানাকে হাসপাতাল থেকে ছুটি দেওয়ার পর কোথায় যাবেন তারা! ঘর পুড়ে ছাই। মাথা গোঁজার ঠাঁই নেই। হয়ত কোনো আত্মীয়ের বাড়িতে আশ্রয় নেবেন কিছুদিন। তারপর আবার নতুন করে ঘর বানানোর তোড়জোড় করবেন। একদিনের ছেলে কোলে হতাশ জবাব ‘অলৌকিক শিশু’র বাবার।

নবজাতকের বড় ভাই ৬ বছরের আলি কিন্তু এত সহজে হার মানার পাত্র নয়। একদিনের ভাইকে কোলে নিয়ে সাহসের সঙ্গে জানিয়েছে, যতই বাধা-বিপত্তি আসুক, সে-ই রক্ষা করবে তার ভাইকে।

ভারতের দিল্লিতে মৃত্যুর মিছিল অব্যাহত রয়েছে। সংঘর্ষের ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪২-এ এবং আহতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ২০০’র বেশি। এখনো থমথমে মৌজপুর বাবরপুর, জাফরাবাদের মতো বেশ কয়েকটি এলাকা। শুক্রবারের জুমার নামাজের আগে নিরাপত্তার লক্ষ্যে গুরুগ্রামে হাই অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। এনডিটিভি।


আরো সংবাদ