০৯ এপ্রিল ২০২০

দিল্লির সংঘর্ষের অস্ত্রশস্ত্র আসে যোগীরাজ্য থেকেই, সন্দেহ পুলিশের

ভারতের রাজধানী দিল্লির সংঘর্ষে যারা নিহত হয়েছেন, অথবা গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি, তাদের শরীরে বুলেট, ধারালো ব্লেড, পাথর, ভোঁতা বস্তু এবং পোড়ার ক্ষত রয়েছে। এমনটাই জানিয়েছে দিল্লির গুরু তেগ বাহাদুর হাসপাতাল এবং জল প্রবেশ চন্দ্র হাসপাতাল। নিহতদের মধ্যে অন্তত ১৪ জনের শরীরে বুলেটের আঘাত পাওয়া গিয়েছে।

নিহত ও আহতদের শরীরের আঘাত এবং প্রত্যক্ষদর্শীর বিবরণ থেকে জানা যাচ্ছে যে, সংঘর্ষে জড়িতরা রীতিমত অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত ছিল। দেশি পিস্তল, তরোয়াল, হাতুড়ি, কাঁচি, বেসবল ব্যাট, লাঠি এবং বড় পাথর ব্যবহার করা হয় হামলার কাজে। এই সব দেশি পিস্তল পশ্চিম উত্তরপ্রদেশ থেকে দিল্লিতে ঢোকে বলে সন্দেহ করছে পুলিশ। বিশেষ করে উত্তরপ্রদেশের শামলি এবং মুজফফরনগর থেকে এই সব অস্ত্র এবং অনেক সংঘর্ষকারীও আসে বলে সন্দেহ পুলিশের।

পুলিশের রেকর্ড অনুযায়ী, উত্তর-পূর্ব দিল্লির অপরাধী চক্রের কাছে বেআইনি অস্ত্রের যোগান পৌঁছায় উত্তরপ্রদেশ থেকেই। উত্তরপ্রদেশের মেরঠ, শামলি, মুজফফরনগরে ৩ হাজার-৫ হাজার টাকায় একটি দেশি পিস্তল পাওয়া যায়। আর ১৫-২০ হাজার টাকায় মেলে স্বয়ংক্রিয় পিস্তল।

রোববারেই বন্ধ করে দেয়া হয় দিল্লি-উত্তরপ্রদেশ সীমান্তের কিছুটা অংশ। মঙ্গলবার পুরোপুরি সিল করে দেয়া হয় দিল্লি-উত্তরপ্রদেশ সীমানা। যেহেতু দিল্লিতে কোনো অস্ত্রের কারখানা নেই, তাই প্রথম দিনেই সীমানা সিল করে দিলে সঘর্ষ ছড়াতো না বলে মন্তব্য করেছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পুলিশকর্মী। সূত্র : এই সময়।


আরো সংবাদ

সেই প্রিয়া সাহা করোনায় আক্রান্ত! (৫০৮৩৩)নিজ এলাকায় ত্রাণ দিয়ে ঢাকায় ফিরে করোনায় মৃত্যু, আতঙ্কে স্থানীয়রা (৪৪৬১১)বেওয়ারিশের মতো সারা রাত সঙ্গীতশিল্পীর লাশ পড়েছিল রাস্তায় (২৬৭২১)দীর্ঘদিন জেলখাটা আসামিদের মুক্তির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর (২০২৫৬)করোনা ছড়ানোয় চীনকে যে ভয়ঙ্কর শাস্তি দেয়ার দাবি উঠল জাতিসংঘে (১৬৩৮৯)কাশ্মিরে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে নিহত ভারতীয় দুর্ধর্ষ কমান্ডো দলের সব সদস্য (১৫৫২৩)রোজার ঈদের ছুটি পর্যন্ত বন্ধ হচ্ছে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান (১৩০৭৯)করোনার লক্ষণ নিয়ে নিজের বাড়িতে মরে পড়ে আছে ব্যবসায়ী, এগিয়ে আসছে না কেউ (১২৮০৫)ঢাকায় নতুন করে ৯টি এলাকা লকডাউন (১০৬৪৩)সবচেয়ে ভয়াবহ দিন আজ : মৃত্যু ৫, আক্রান্ত ৪১ (১০০৬১)