০৪ এপ্রিল ২০২০

দিল্লিতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩, দেখা মাত্র গুলির নির্দেশ

উত্তপ্ত দিল্লি - ছবি : ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

ভারতে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন ঘিরে এখনো সহিংসতার আগুনে জ্বলছে দেশটির দিল্লি। রাজধানীর উত্তর-পূর্ব এলাকায় সহিংসতায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩, জিটিবি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সূত্রে এমনটাই জানা যাচ্ছে। প্রায় ১৫০ জন জখম অবস্থায় ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বলে জানা গেছে। সোমবার সন্ধ্যার পর ১৪৪ ধারা জারি করা সত্ত্বেও চাঁদবাগ এলাকায় নতুন করে আগুন লাগানোর এবং পাথর ছোড়ার খবর পাওয়া যাচ্ছে। অন্যদিকে, মঙ্গলবার সিএএ-বিরোধী ধর্নার কেন্দ্রস্থল জাফরাবাদ রোড খালি করে দেয় দিল্লি পুলিশ।

মৃতের সংখ্যা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে উত্তর-পূর্ব দিল্লির কিছু এলাকায় জারি করা হয় দেখামাত্র গুলি করার বা ‘শুট অ্যাট সাইট’-এর নির্দেশ। পরিস্থিতি বুঝে ওই এলাকায় বুধবার দশম এবং দ্বাদশ শ্রেণীর বোর্ড পরীক্ষা পিছিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেন্ট্রাল বোর্ড অফ সেকেন্ডারি এডুকেশন। বন্ধ থাকবে এলাকার সরকারি ও বেসরকারি স্কুলও।

সোমবারের পর মঙ্গলবারও সারা দিন অশান্ত থাকে রাজধানী। উত্তর-পূর্ব দিল্লির খাজুরি খাস এলাকায়ও এদিন নতুন করে পাথর ছোড়ার অভিযোগ উঠেছে। ওই এলাকায় পুলিশ ও র‌্যাফ মোতায়েন করা হয়েছে। জারি করা হয়েছে ১৪৪ ধারা। উত্তর-পূর্ব দিল্লির ভজনপুরা, চাঁদবাগ, করওয়াল নগর এলাকায় দোকানপাট পুড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। লাঠি-রড হাতে রাস্তায় জমায়েত জনতার।

মৌজপুরে এদিন একটি মোটরসাইকেলে আগুন লাগানোর অভিযোগ উঠেছে উত্তেজিত জনতার বিরুদ্ধে, সংবাদসংস্থা পিটিআই সূত্রে এমনটাই খবর। এ ঘটনায় অকুস্থলে যায় দমকলের একটি গাড়ি। জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে বেগ পেতে হয় নিরাপত্তা বাহিনীকে। এলাকায় পাথর ছোড়ারও অভিযোগ উঠেছে। উল্লেখ্য, সোমবার পাথরের ঘায়েই মৃত্যু হয়েছে দিল্লি পুলিশের এক কনস্টেবলের। নিরাপত্তাকর্মীদের থেকে বিক্ষোভকর্মীদের সংখ্যাই বেশি। সংবাদকর্মীদেরও হেনস্থা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

উত্তপ্ত এলাকায় বন্ধ রাখা হয়েছে স্কুল। পরিস্থিতি বেগতিক বুঝে স্কুলের পরীক্ষা স্থগিত রাখা হয়েছে। সোমবার থেকে এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। দিল্লি মেট্রোর পিঙ্ক লাইনে ৫টি স্টেশন বুধবারও বন্ধ রাখা হয়েছে। দিল্লিবাসীর কাছে শান্তির আর্জি জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। রাজধানীর পরিস্থিতি নিয়ে সোমবারই দিল্লির পুলিশ কমিশনার অমূল্য পট্টনায়েকের সঙ্গে বৈঠক করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন অজয় ভাল্লা-সহ অন্যরাও। দিল্লির পরিস্থিতি নিয়ে এদিন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গেও বৈঠক করেছেন মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়াল ও দিল্লির উপরাজ্যপাল। এই বৈঠকেই দিল্লির সীমানা সিল করে দেয়ার দাবি করেন মুখ্যমন্ত্রী।
সূত্র : ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস


আরো সংবাদ

আত্মহত্যার আগে মায়ের কাছে স্কুলছাত্রীর আবেগঘন চিঠি (১৩৫৩০)সিসিকের খাদ্য ফান্ডে খালেদা জিয়ার অনুদান (১২৬০৬)করোনা নিয়ে উদ্বিগ্ন খালেদা জিয়া, শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল (৯৩১৫)ভারতে তাবলিগিদের 'মানবতার শত্রু ' অভিহিত করে জাতীয় নিরাপত্তা আইন প্রয়োগ (৮৪৯০)করোনায় নিশ্চিহ্ন হয়ে গেল ইতালির একটি পরিবার (৭৮৬৪)করোনার মধ্যেও ইরান-যুক্তরাষ্ট্র আরেক যুদ্ধ (৭১৪০)করোনায় আটকে গেছে সাড়ে চার লাখ শিক্ষকের বেতন (৬৯৩১)ইসরাইলে গোঁড়া ইহুদির শহরে সবচেয়ে বেশি করোনার সংক্রমণ (৬৮৯০)ঢাকায় টিভি সাংবাদিক আক্রান্ত, একই চ্যানেলের ৪৭ জন কোয়ারান্টাইনে (৬৭৬১)করোনাভাইরাস ভয় : ইতালিতে প্রেমিকাকে হত্যা করল প্রেমিক (৬২৯৬)