২৮ মার্চ ২০২০

ভারত সফরে অল্প হলেও বাণিজ্য নিয়ে কথা বলবেন ট্রাম্প

ভারত সফরে অল্প হলেও বাণিজ্য নিয়ে কথা বলবেন ট্রাম্প - ছবি : এএফপি

আসন্ন সফরে ভারত-মার্কিন বাণিজ্য চুক্তি নিয়ে নেতিবাচক সুর শোনা গিয়েছিল প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের গলায়। তবে, এবার চুক্তি নিয়ে আশার আলো দেখালেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। শুক্রবার প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘অল্প পরিমাণে হলেও বাণিজ্য বিষয়ে কথা হবে।’

ওয়াশিংটনে ট্রাম্প বলেন, ‘ব্যাণিজ্য চুক্তির বিষয়ে বহু বছর ধরেই ভারত আমাদের সঙ্গে খুব একটা ভালো ব্যবহার করে না। তবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আমি পছন্দ করি। এই সফরে আমরা অল্প হলেও বাণিজ্য চুক্তি নিয়ে আলোচনা করব। ভারত আমাদের শুল্ক দেয়। বিশ্বে ভারত থেকে সবচেয়ে বেশি শুল্ক পাওয়া যায়।’

এর আগে ট্রাম্প বলেছিলেন, ‘ব্যাণিজ্য চুক্তির বিষয়ে ভারত আমাদের সঙ্গে খুব একটা ভালো ব্যবহার করে না। তবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আমি পছন্দ করি। তবে ভবিষ্যতের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ চুক্তি করার কথা রয়েছে। আমাদের এখানের নির্বাচনের আগে তা করা সম্ভব হবে কি না, সে ব্যাপারে এখনই কিছু নিশ্চিত করে বলা সম্ভব হবে না।’

আমেদাবাদে মার্কিন প্রেসিডেন্টকে ৬০-৭০ লক্ষ মানুষ অভ্যর্থনা জানাবেন। যা নিয়ে আগেই টুইটে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন ট্রাম্প। এদিনও হোপ ফর প্রিজনারস গ্র্যাজুয়েশন অনুষ্ঠানে ভাষণ দিতে গিয়ে প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী মোদী আমাকে বলেছেন, বিমানবন্দর এবং অনুষ্ঠানগুলি মিলিয়ে প্রায় সত্তর লক্ষ লোক উপস্থিত থাকবে। এবং আমি বুঝতে পেরেছি, স্টেডিয়ামটি এখনও নির্মীয়মাণ, তবে এটি বিশ্বের বৃহত্তম ক্রিকেট স্টেডিয়াম হতে চলেছে। আমি আশা করছি আপনারা সকলেই এটি উপভোগ করবেন।’ আমেরিকার বিভিন্ন সভার সঙ্গে ভারতে তার অভ্যর্থনার বিষয়টির তুলনা টানেন তিনি।

বাণিজ্য চুক্তি নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্টের কাছ থেকে নেতিবাচক সুর শোনা যেতেই পদক্ষেপ করেছে ভারত। মার্কিন প্রতিরক্ষা সংস্থা লোকহিড মার্টিরনের থেকে ২৪ বহুমুখী কাজের জন্য ব্যবহৃত সাবমেরিন হেলিকপ্টার কিনবে নয়াদিল্লি। সরকারি সূত্র মারফত এমনটাই জানা গিয়েছে।

চুক্তি দ্রুত সম্পন্ন করতে তাড়াহুড়ো করতে নারাজ ভারত ও আমেরিকা। পারস্পরিক বোঝাপড়ার মাধ্যমে এই সিদ্ধান্তে এসেছে দুই দেশই। উভয় দেশের পারস্পারিক সুবিধা ও সামঞ্জস্যের মাধ্যমে বাণিজ্য চুক্তি করতে চাইছেন মোদী ও ট্রাম্প। সূত্র : ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস


আরো সংবাদ

সকল